অঘটনের ঘনঘটা

নাজমুল হক ইমন

  • নাজমুল হক ইমন
  • ২৯ নভেম্বর ২০২২, ১৪:০১,  আপডেট: ২৯ নভেম্বর ২০২২, ১৪:২৩

বিশ্বকাপে একের পর এক অঘটন ঘটেই চলেছে। সৌদি আরবের সঙ্গে আর্জেন্টিনার হার, জার্মানিকে হারাল জাপান, বেলজিয়ামকে কুপোকাত করল মরক্কো। শক্তিশালী দলগুলো ম্যাচ ড্র করছে, হলুদ কার্ড তো পিছু ছাড়ছে না। আবার ওয়েলসের গোলরক্ষক ওয়েন হেনেসি খেয়েছে লাল কার্ড। ব্রাজিল ফুটবল সেলিব্রেটি নেইমারের গোড়ালি মচকে গেছে, বিশ্বকাপ শেষের শঙ্কা তার। নিজেদের গোলরক্ষকের সঙ্গে সংঘর্ষে সৌদির ডিফেন্ডার শাহরানির চোয়ালের হাড় ভেঙেছে। অঘটনের ঘনঘটা যেন কাতার বিশ্বকাপ জুড়েই।

এদিকে আর্জেন্টিনার আরেক ফাইনাল অপেক্ষা করছে পোল্যান্ডের সঙ্গে। গ্রুপ সি এখন ডেড গ্রুপে পরিণত হয়েছে। কেউ ছাড় দিবে না এক চুলও। জার্মানির ভাগ্য দুলছে কারণ বিশ্বকাপে টিকে থাকলে হলে জিততেই হবে। অন্যদিকে, সুপার ফ্রমে আছে ফ্রান্স, চিন্তা নেই ইল্যান্ডেরও। তবে অঘটনের এই বিশ্বকাপে ভক্তদের চোখ ব্রাজিলের তুরুপের তাস স্ট্রাইকার রিচার্লিসনের দিকে। অসাধারণ গোলে সবাইকে চমকে দিয়েছে।

এবার বাংলাদেশ প্রসঙ্গে আসি। অলিগলি কিংবা রাস্তার মোড়ে মোড়ে প্রজেক্টরে খেলা চলছে। ব্রাজিল আর আর্জেন্টিনার খেলা হলে তো কোনো কথা নেই। পর্দার সামনে হাজার হাজার মানুষ। গোল হলেই উল্লাসে মেতে উঠে ভক্তরা। গায়ে জার্সি জড়িয়ে খেলা দেখছেন প্রিয় দলের। বাংলাদেশের ফুটবল উম্মোদনার কথা পুরো বিশ্বই জানে। নিজেদের দেশ বিশ্বকাপে অংশ নিতে না পারলেও ব্রাজিল আর আর্জেন্টিনার সমর্থক দেশে অগণিত।

রাজধানীতে বড় পর্দায় বিশ্বকাপ খেলা দেখানো হচ্ছে বেশকিছু স্থানে। বরাবরের মতোই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) টিএসসিতে দেখানো হচ্ছে বিশ্বকাপের ম্যাচগুলো। এছাড়া মতিঝিলের ফুটবল ফেডারেশন ভবনের সামনের, ধানমণ্ডি রবীন্দ্র সরোবরে দেখানো হচ্ছে কাতার বিশ্বকাপ।

রাজধানীর নয়টি স্থানে বড় পর্দায় খেলা দেখানোর উদ্যোগ নিয়েছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি)। উত্তরা রবীন্দ্র সরণি, মানিক মিয়া অ্যাভিনিউ, হাতিরঝিল মুজিব চত্বর, গুলশান-২-এর নগরভবন, মোহাম্মদপুর বছিলার লাউতলা খাল সংলগ্ন মাঠ, প্যারিস রোড সংলগ্ন মাঠ, কাচকুড়া কলেজ মাঠ, শ্যামলী পার্ক ও খিলগাঁও তালতলা মার্কেটে খেলা দেখাচ্ছে ডিএনসিসি। মহাখালীর তিতুমীর কলেজ চত্বরে বড় পর্দায় দেখানো হচ্ছে বিশ্বকাপ। কলেজটির মাঠে বসানো হয়েছে ১৬ ফুট দৈর্ঘ্য ও ৮ ফুট প্রস্থের বিশাল আকারের এলইডি স্ক্রিন। ঢাকার বাইরে বাফুফের উদ্যোগে চট্টগ্রামের ফিজিক্যাল ট্রেনিং সেন্টারেও বড় পর্দায় খেলা দেখানো হচ্ছে। এছাড়াও সারা দেশের বহু জায়গায় বড় পর্দায় খেলা দেখানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। শুধু তাই নয়, দেশের বিভিন্ন সিনেমা হলে বাণিজ্যিক ছবির প্রদর্শনী বন্ধ রেখে দেখানো হচ্ছে বিশ্বকাপ।

মেক্সিকোর সঙ্গে জয়ের পর বাংলাদেশের আর্জেন্টিনা ভক্তদের মনে আনন্দের জোয়ার বইছে। সেদিন গভীর রাতেই রাস্তায় বেরিয়েছে মিছিল। বাংলাদেশি আর্জেন্টাইন ভক্তদের এই উল্লাসের আওয়াজ পৌঁছে গেছে বিশ্ব ফুটবলের প্রধান নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফা পর্যন্ত। তারা বাংলাদেশি ভক্তদের এই উল্লাসের ভিডিও পোস্ট করেছে টুইটারে। আর সে ভিডিও ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির বলে জানা গেছে।

মানবকণ্ঠ/এআই


poisha bazar