বিশ্বকাপ: এবার চমক দেখালো মরক্কো


  • অনলাইন ডেস্ক
  • ২৭ নভেম্বর ২০২২, ২১:১৮,  আপডেট: ২৭ নভেম্বর ২০২২, ২১:২৮

দলের ১১ জন মিলে অল এটাক ফুটবল খেলে বেলজিয়ামকে ২-০তে হারিয়ে দিল মরক্কো। কাতার বিশ্বকাপে গ্রুপ এফ-এর ম্যাচে আল থুমামা স্টেডিয়ামে আজ বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা ৭টায় মুখোমুখি হয় বেলজিয়াম ও মরক্কো। এ ম্যাচে জয় পেলেই বেলজিয়ামের দ্বিতীয় রাউন্ড নিশ্চিত হয়ে যাবে। কিন্তু স্রোতের উল্টো গিয়ে মরক্কোর কাছে ১ গোল হজম করে পিছিয়ে গেল তারা। মরক্কোর হয়ে আব্দেলহামিদী সাবেরি খেলার ৭৩ মিনিটে ও জাকারিয়া খেলা শেষের অতিরক্তি ২ মিনিটের মাথায় গোল করে দলের জয় নিশ্চিত করেন।

কাতার বিশ্বকাপ যেন একের পর এক বিস্ময়ের জন্ম দিচ্ছে। সৌদি আরবের কাছে হেরে যায় আর্জেন্টিনা, জাপান হারিয়ে দেয় জার্মানিকে। আবার সেই জাপানকে ১-০ গোলে হারিয়ে দেয় স্পেনের কাছে ৭ গোল হজম করা কোস্টারিকা।

কাতার বিশ্বকাপে এবার চমক দেখালো আফ্রিকান দেশ মরক্কো। ফিফা র‌্যাংকিংয়ে দ্বিতীয় স্থানে থাকা বেলজিয়ামকে তারা হারিয়ে দিয়েছে ২-০ গোলের ব্যবধানে।

প্রথম ম্যাচে গতবারের রানার্সআপ ক্রোয়েশিয়াকে গোলশূন্য রুখে দিয়ে মরক্কো আভাস দিয়েছিল তারা কাতার বিশ্বকাপে অনেকদূর যাবে। দ্বিতীয় ম্যাচে ইউরোপের শক্তিশালী বেলজিয়ামকে হারিয়ে সেটাই প্রমাণ করেছে আফ্রিকার অদম্য দেশটি।

যদিও মরোক্কো-বেলজিয়ামের ম্যাচের প্রথমার্ধ গোলশূন্যভাবে শেষ হয়। এই অর্ধের যোগ করা সময়ে মরোক্কোর হাকিম জিয়েখ ফ্রি কিক থেকে গোল করেছিলেন। কিন্তু ভিএআর চেকে সেটি অফসাইডের কারণে বাতিল হয়। তাতে গোলশূন্যভাবেই শেষ হয় প্রথমার্ধের খেলা।

অবশ্য এই অর্ধে বেলজিয়ামের কাছে ৭০ শতাংশ বলের দখল ছিল। তারা শটও নিয়েছিল ৯টি। তার মধ্যে অন টার্গেটে ছিল একটি। ম্যাচের ২১ মিনিটে প্রথম সুযোগটি পায় মরোক্কো। এ সময় আশরাফি হাকিমির বাড়িয়ে দেওয়া বল থেকে হাকিম জিয়েখের নেওয়া বাম পায়ের শট উপর দিয়ে চলে যায়। এরপর ২৮ মিনিটে আরও একটি সুযোগ পান মরোক্কোর সেলিম আমাল্লা। সেটিও মিস হয়।

ম্যাচের ৫ মিনিট থেকে ১৩ মিনিটের মধ্যে ৪টি কর্নার পায় বেলজিয়াম। তবে ভালো কোনো সুযোগ তৈরি করতে পারেনি তারা। এরপর ১৬ মিনিটে পায় আরও একটি। কিন্তু মিচি বাতশুয়াই-এর নেওয়া শট গোলপোস্টের বাম পাশ দিয়ে চলে যায়।

প্রথম ম্যাচে কানাডার বিপক্ষে ১-০ গোলের জয়ে বেলজিয়াম নক আউট পর্বের পথে অনেকটাই এগিয় আছে। এদিকে গতবারের রানার্স-আপ ক্রোয়েশিয়াকে রুখে দিয়ে এক পয়েন্ট অর্জন করা মরক্কোও আত্মবিশ্বাস নিয়েই মাঠে নামে।

গড়ে প্রতি ম্যাচে তিনটি করে গোল করে অনেকটা সহজ বাছাইপর্ব পেরিয়ে আসা বেলজিয়াম টুর্নামেন্টের শুরুটাও জয় দিয়ে করেছিল। এখন তাদের সামনে এমন এক প্রতিপক্ষ যারা গত চার দশক ধরে বিশ্বকাপের বাইরে ছিল।

আল রাইয়ান স্টেডিয়ামে কানাডার বিপক্ষে ম্যাচের শুরুতে পেনাল্টি রুখে দিয়ে থিবো কোর্তোয়া আরো একবার বেলজিয়ানদের রক্ষা করেছিলেন। আর এতেই উজ্জীতি হয়ে ৪৪ মিনিটে মিশি বাটশুয়াইয়ের গোলে শেষ পর্যন্ত তিন পয়েন্ট নিয়ে মাঠ রবার্তো মার্টিনেজের দল।

অন্যদিকে এ পর্যন্ত খেলা পাঁচটি বিশ্বকাপের কোনটিতেই গ্রুপ পর্বের বাঁধা পেরুতে পারেনি মরক্কো। চার বছর আগে কঠিন গ্রুপ থেকে মাত্র এক পয়েন্ট অর্জন করতে সক্ষম হয়েছিল দলটি।

বর্তমান কোচ ওয়ালিদ রেগ্রাগুই ইতোমধ্যেই স্বীকার করেছেন তার দলের নক আউট পর্বে যাওয়াটা অনেকটা অবাস্তব, এক্ষেত্রে গ্রুপের ইউরোপীয়ান প্রতিপক্ষদেরই তিনি এগিয়ে রেখেছেন।

যদিও ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে প্রতাশ্যার চেয়ে ভাল ফল করায় মরক্কোকে নিয়ে অনেকেই আশাবাদী হয়ে উঠেছেন। কিন্তু এ পর্যন্ত বিশ্বকাপে খেলা ১৭টি ম্যাচের নয়টিতেই তারা কোন গোল করতে পারেনি।

মানবকণ্ঠ/এসআরএস


poisha bazar