অর্ধযুগ পর সাফের ফাইনালে বাঘিনীরা


  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৫:৩৩,  আপডেট: ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১৫:৩৮

নারী সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের প্রথম সেমিফাইনালে ভুটানকে ৮-০ গোলের বড় ব্যবধানে বিধ্বস্ত করে ফাইনালে বাংলাদেশ। এর আগে ২০১৬ সালে সবশেষ টুর্নামেন্টটির ফাইনাল খেলেছিল বাংলাদেশ।

নেপালের দশরথ স্টেডিয়ামে শুক্রবার (১৬ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশের হয়ে হ্যাটট্রিক করেন অধিনায়ক সাবিনা খাতুন। একটি করে গোল করেন সিরাজ জাহান স্বপ্না, কৃষ্ণা রানি সরকার, তহুরা খাতুন, মাসুরা পারভীন ও রিতুপর্ণা চাকমা।

ম্যাচ শুরুর দুই মিনিটেই দলকে লিড এনে দেন সিরাত জাহান স্বপ্না। মাঝ মাঠ থেকে সতীর্থের পাস ধরে বাম কর্নার দখলে নেন তিনি। এরপর ডি বক্সে ঢুকে ভুটান গোলরক্ষককে পরাস্ত করে বাংলাদেশকে এনে দেন ম্যাচের প্রথম সাফল্য। ষষ্ঠ মিনিটে ডি বক্সের বাইরে থেকে মারিয়া মান্ডার নেয়া দুর্বল শট গ্লাভসবন্দি করেন ভুটান গোলরক্ষক।

পরের মিনিটেই গোল হজম করতে বসেছিল বাংলাদেশ। প্রতি আক্রমণে গিয়ে ফাঁকা রক্ষণভাগে ঢুকে গোলের চেষ্টা করেন ভুটানের মেয়েরা। বক্স ছেড়ে দ্রুত পায়ে  প্রতিপক্ষ দলের ফুটবলারের ঠিক সামনে থেকে বল ক্লিয়ার করেন রূপনা চাকমা।

ম্যাচের ১৮ মিনিটে গোল ব্যবধান দ্বিগুণ করেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক সাবিনা খাতুন। মাঝমাঠ থেকে মারিয়া মান্ডার বাড়িয়ে দেয়া পাস ধরে প্রতিপক্ষের রক্ষণদেয়ালে ঢুকে পড়েন সাবিনা। গোলরক্ষক কিছুটা বেরিয়ে পড়ায় সহজ শটে বল জালবন্দি করেন তিনি।

ম্যাচের ৩০ মিনিটে বাম প্রান্ত থেকে রিতুপর্ণা চাকমার পাঠানো উঁচু শট হেডের সাহায্যে জালে জড়ান কৃষ্ণা রানি সরকার। এর আগে ভারতের বিপক্ষে ম্যাচেও একটি গোল করেন তিনি। ৩৫ মিনিটে ভুটানের এক হালি গোলে ভুটানের জাল বিধ্বস্ত করেন বাংলাদেশের মেয়েরা। মাঝমাঠ থেকে পাওয়া সতীর্থের পাস নিজের নিয়ন্ত্রণে নিয়ে গোলের উদ্দেশে শট নেন কৃষ্ণা।

প্রথম প্রচেষ্টা ঠেকিয়ে দেন ভুটানের গোলরক্ষক। তবে পুরোপুরি ক্লিয়ার করতে পারেননি তিনি। বল চলে যায় কাছেই দাঁড়িয়ে থাকা রিতুপর্ণার কাছে। তার শট খুঁজে নেয় ঠিকানা। ৪-০ গোলে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় লাল ছোটনের শিষ্যরা।

ডি বক্সের বাইরে থেকে সাবিনার ফ্রি কিক গ্লাভসবন্দি করতে ব্যর্থ হন ভুটান গোলকিপার। দুবারের চেষ্টায় বল জালে জড়ান মাসুরা। পরের মিনিটে বল বারে লেগে ফিরে আসায় গোল বঞ্চিত হন সাবিনারা।  ৬৭ মিনিটে দারুণ এক প্রতি আক্রমণে একটি গোল পরিশোধের মোক্ষম সুযোগ পায় ভুটান। কিন্তু গোলবারের অতন্ত্র প্রহরী রূপনা চাকমার নৈপুণ্যে এ যাত্রায়ও বেঁচে যায় বাংলাদেশ। ৮১ মিনিটে শামসুন্নাহার একক নৈপুণ্যে প্রতিপক্ষের রক্ষণভাগে ঢুকে পড়ে এবং গোলের জন্য শট নেয়।

এগিয়ে গিয়ে সেটা অবশ্য প্রতিহত করার চেষ্টা করেন ভুটান গোলরক্ষক। পরের প্রচেষ্টায় তহুরা খাতুন বল জালে জড়ান। কিন্তু অফসাইডের কারণে গোলটি বাতিল হয়ে যায়। অবশেষে ম্যাচের ৮৭ মিনিটে সপ্তম গোলের দেখা পায় বাংলাদেশ। ডান কর্নার থেকে মাসুরা পারভীনের বাড়ানো উঁচু শট গ্লাভসবন্দি করতে ব্যর্থ হন ভুটান গোলরক্ষক।

ক্লিয়ার করার চেষ্টা করেন রক্ষণভাগের ফুটবলার। কিন্তু দুর্ভাগ্যক্রমে তহুরার গায়ে লেগে বল জালে জড়ায়। অতিরিক্ত মিনিটে ভুটানের জালে শেষ পেরেকটি ঠুকেন সাবিনা এবং ম্যাচে পূরণ করেন নিজের  হ্যাটট্রিক। এর আগে পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচেও হ্যাটট্রিক করেন তিনি। সব মিলিয়ে ৮ গোল করে টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ গোল স্কোরার তিনি।

এর আগে গ্রুপ পর্বে তিন ম্যাচের সবকটিতে জিতেছে বাংলাদেশ। একে একে তারা হারিয়েছে মালদ্বীপ, পাকিস্তান ও শক্তিশালী ভারতকে। টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে জয়ী দলের বিপক্ষে শিরোপার জন্য লড়বে বাংলাদেশ। ফাইনালে যাওয়ার মিশনে বিকেলে মুখোমুখি হবে ভারত-নেপাল। নারীদের সাফে বাংলাদেশের সেরা সাফল্য ২০১৬ সালে ফাইনাল খেলা। সেবার ভারতের বিপক্ষে হেরে শিরোপা খুইয়েছিল লাল সবুজের প্রতিনিধিরা।

মানবকণ্ঠ/এমআই


poisha bazar