সপ্তমবারের মতো ব্যালন ডি’অর জিতলেন মেসি

- ফাইল ছবি

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ৩০ নভেম্বর ২০২১, ১৫:২৬

২০২১ সালের ব্যালন ডি’অর জিতে নিয়েছেন মেসি। সোমবার রাতে প্যারিসের থিয়েটার ডু চ্যাটেলেটে এক জাঁকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানে মেসির হাতে তুলে দেয়া হয় পুরস্কার। নিজের রেকর্ড আরো সমৃদ্ধ করে সপ্তমবারের মতো জিতলেন এ পুরস্কার।

২০০৯ সালে প্রথমবার জয়ের পর ২০১০, ২০১১, ২০১২, ২০১৫ ও ২০১৯ সালেও জিতেছিলেন এ মহাতারকা। তাতে রোনালদোর সঙ্গে ব্যালন ডি’অরের ব্যবধানটা বাড়ল আরো। পাঁচটি ব্যালন ডি’অর জিতেছেন তিনি।

ফুটবলের অন্যতম মর্যাদার এই পুরস্কার প্রতি বছর দিয়ে থাকে ফ্রান্স ফুটবল ম্যাগাজিন। যদিও করোনাভাইরাস মহামারিতে ফুটবল ঠিকঠাকভাবে মাঠে না গড়ানোয় ২০২০ সালে এ পুরস্কারটি দেয়া হয়নি।

গতবারের মতো এবারও ব্যালন ডি’অর অনুষ্ঠানে যোগ দেননি রোনালদো। এর কারণ হিসেবে কোয়ারেন্টিনের কথা বলেছিলেন প্যাসকেল। এটা মিথ্যা বলে দাবি করেন রোনালদো, ‘এই ধরনের মর্যাদাপূর্ণ পুরস্কার দেওয়ার পেছনে যার অবদান রয়েছে, তার কাছ থেকে এমন মিথ্যাচার অগ্রহণযোগ্য। ফ্রান্স ফুটবল এবং ব্যালন ডি’অরকে যে সবসময় সম্মান করেছে, তার প্রতি পুরোপুরি অসম্মান। এমনকি তিনি আজকেও (সোমবার) মিথ্যা বলেছেন। গালাতে আমার অনুপস্থিতির পেছনে কোয়ারেন্টিনের কথা বলেছেন, যার কোনো অস্তিত্বই নেই।’

ফুটবল ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে নিজের নাম লিখে যাওয়াই তার বড় লক্ষ্য বলে জানান রোনাল্ডো, ‘আমার ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বড় লক্ষ্য হলো যে ক্লাবের হয়ে আমি খেলি এবং আমার দেশের জাতীয় দলের হয়ে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক শিরোপা জেতা। আমার সবচেয়ে বড় লক্ষ্য হলো যারা পেশাদার ফুটবলার হতে চায় তাদের জন্য ভালো একটা উদাহরণ তৈরি করে যাওয়া। আমার সবচেয়ে বড় লক্ষ্য হলো ফুটবল ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে নিজের নাম লিখে যাওয়া।’

নিজের বর্তমান লক্ষ্যের কথাও উল্লেখ করে নিজের বক্তব্যের ইতি টেনেছেন পাঁচবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী এ তারকা, ‘আমি এটি বলে শেষ করছি যে, আমার সকল মনোযোগ এখন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের পরবর্তী ম্যাচের দিকে। আমার কাছে এটিই সবকিছু। আমার সতীর্থ ও সমর্থকদের সঙ্গে নিয়ে চলতি মৌসুমে আমরা এখনো অনেক কিছু অর্জন করতে পারি। আর বাকি সব? বাকি সব বাকি সব কিছুর মতোই।’


poisha bazar

ads
ads