মেসিহীন বার্সার টিকিট বিক্রিতে ধস


  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৫:০৭

বার্সেলোনার আর্থিক দিক দিয়ে সময়টা মোটেও ভালো যাচ্ছে না। নতুন করে আরেকটি সমস্যার ক্লাবটির সভাপতি হোয়ান লাপোর্তার কপালে নতুন চিন্তার ভাঁজ ফেলছে। সেটা ক্লাবের সমর্থকদের অনীহা। অনেকটা মরার ওপর খাঁড়ার ঘা’এর মতো।

প্রায় দেড় বছরেরও বেশি সময় পর স্টেডিয়ামে দর্শক ফেরার অনুমতি মিলেছে। দীর্ঘ বিরতির পরে অনুমতি মেলায় ক্লাবকে নিজেদের মাঠে দেখতে সমর্থকরা হুমড়ি খেয়ে পড়বে, এমনটাই ধারণা ছিল বার্সার। কিন্তু কাতালান ক্লাবটির সে প্রত্যাশা পূরণ হচ্ছে না। টিকিট কেনায় আগ্রহ দেখা যাচ্ছে না দর্শকদের। ধারণা করা হচ্ছে, লিওনেল মেসির চলে যাওয়ার ফলেই আগ্রহে ভাটা পড়েছে কাতালান ক্লাবটির সমর্থকদের মনে।

সম্প্রতি জানা গেছে, চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ঘরের দর্শকদের জন্য ৪০০০০ টিকিট বরাদ্দ ছিল। তার মধ্যে এখন পর্যন্ত কেবল ৩১ হাজারের কিছু বেশি টিকিটই বিক্রি হয়েছে। ক্লাবে শঙ্কা, বায়ার্নের বিপক্ষে ম্যাচের মতো হাইভোল্টেজ লড়াইয়েই যদি এই পরিণতি হয়, তাহলে অগুরুত্বপূর্ণ ম্যাচগুলোয় হবে কী!

এমনটা বায়ার্ন ম্যাচেই প্রথম হচ্ছে না। এর আগে গেটাফের বিপক্ষে বার্সার ‘হোম’ ম্যাচেও কোটার সব টিকিট বিক্রি হয়নি। সেদিন বিক্রয়ের জন্য তোলা ২০০০০ টিকিটের ১৯১৩৬টি টিকিটই কেবল বিক্রি হয়েছিল।

এইসব তথ্য আর্থিক দুরাবস্থার পাশাপাশি আরও কিছু দুর্ভাবনা এনে দিয়েছে বার্সেলোনা কর্তাব্যক্তিদের। ভক্ত-সমর্থকদের সঙ্গে কি তবে যোগাযোগটা হারিয়ে ফেলেছে ক্লাব? নাকি লিওনেল মেসির চলে যাওয়ার পর থেকে ক্লাবে আকর্ষণ হারিয়েছেন দর্শকরা? না বায়ার্নের বিপক্ষে বার্সেলোনার জয়ের বিষয়ে আত্মবিশ্বাসী নন সমর্থকরা?

উত্তরে দ্বিতীয়টা আসার সম্ভাবনাই বেশি। কারণ মহাতারকাদের বিদায়ের পর এমন কিছু যে খুব স্বাভাবিক। বার্সেলোনায় তো তাও ধারণ ক্ষমতার কাছাকাছি দর্শক এসেছেন। ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর চলে যাওয়ার পর তো রিয়াল মাদ্রিদে আরও বাজে পরিস্থিতি দেখা গিয়েছিল। ২০১৮-১৯ মৌসুমে নিজেদের প্রথম ‘হোম’ ম্যাচে গেটাফের বিপক্ষে যে দল রিয়াল মাদ্রিদ খেলেছিল মাত্র ৪৮ হাজার দর্শকের সামনে, যা ছিল রিয়ালের ধারণক্ষমতার কেবল ৬০ শতাংশ!

মানবকণ্ঠ/এমএইচ



poisha bazar

ads
ads