দাপুটে জয় কিংসের

বসুন্ধরা কিংস
বসুন্ধরা কিংস - ফাইল ছবি

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৯:৪৩,  আপডেট: ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ২০:০০

আবারো আলো ছড়ালেন রাউল অস্কার বেসেরা ও রবসন দি সিলভা রবিনিয়ো। প্রিমিয়ার লিগে শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের বিপক্ষে দাপুটে জয় পেয়েছে বসুন্ধরা কিংস। কুমিল্লার শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত স্টেডিয়ামে বুধবার প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচে ৪-০ গোলে জেতে বসুন্ধরা কিংস। জোড়া গোল করেন বেসেরা ও রবিনিয়ো। ১১ ম্যাচে ১০ জয় ও এক ড্রয়ে ৩১ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে রয়েছে বসুন্ধরা কিংস। ১০ ম্যাচে ২২ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে আবাহনী লিমিটেড।

ম্যাচের ২৩ মিনিটে রবিনিয়োর বাড়ানো বল গোল করে ২০১৮-১৯ মৌসুমের লিগ চ্যাম্পিয়নদের এগিয়ে দেন বেসেরা। প্রথমার্ধের শেষ দিকে তৌহিদুল আলম সবুজের পাস থেকে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড রবিনিয়ো। আগের দুই ম্যাচেও জয়হীন শেখ রাসেল দ্বিতীয়ার্ধেও পারেনি ঘুরে দাঁড়াতে। বরং আরো দুই গোল হজম করে ছিটকে যায় ম্যাচ থেকে।

বিরতির পর ৭৪ মিনিটে খালিদ শাফিইয়ের পাস ধরে ব্যবধান বাড়ান বেসেরা। আর্জেন্টিনা বংশোদ্ভূত চিলিয়ান এই ফরোয়ার্ডের লিগে গোল হলো ১০টি। ৮৩ মিনিটে বেসেরার তৈরি করে দেয়া সুযোগ কাজে লাগান রবিনিয়ো। লিগের সর্বোচ্চ গোলদাতার তালিকায় ১২ গোল নিয়ে শীর্ষে উঠে এলেন তিনি। ১১ গোল নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছেন শেখ জামাল ধানমণ্ডি ক্লাবের ওমর জোবে। ১০ ম্যাচে ১৭ পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থ স্থানে আছে শেখ রাসেল।

বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে দিনের অপর ম্যাচে সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব ২-১ গোলে হারিয়েছে উত্তর বারিধারা ক্লাবকে। আরিফ হোসেন উত্তর বারিধারাকে এগিয়ে নেয়ার পর সমতা ফেরান সাইফের জন ওকোলি, আর জয়সূচক গোলটি করেন সাজ্জাদ। ১০ ম্যাচে পাঁচ জয় ও এক ড্রয়ে ১৬ পয়েন্ট নিয়ে পঞ্চম স্থানে রয়েছে সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব। টানা পাঁচ ড্রয়ের পর হারের তেতো স্বাদ পাওয়া উত্তর বারিধারা ৬ পয়েন্ট নিয়ে আছে একাদশ স্থানে।

ম্যাচের ২০ মিনিটে আরিফের দারুণ গোলে এগিয়ে যায় উত্তর বারিধারা। উজবেকিস্তানের মিডফিল্ডার ইভজেনি কোচনেভের থ্রু পাশে ডি-বক্সের ভেতর থেকে বাঁ পায়ের বাঁকানো শটে লক্ষ্যভেদ করেন তিনি। ২৭ মিনিটে আরিফুর রহমানের বাঁ পায়ের জোরালো শট ফিরিয়ে উত্তর বারিধারার ত্রাতা গোলরক্ষক মিতুল মারমা। ৩২ মিনিটে ফয়সাল আহমেদ ফাহিমের শট পোস্ট ঘেঁষে বেরিয়ে গেলে গোলের অপেক্ষা বাড়ে সাইফ স্পোর্টিংয়ের।

টানা দুই ম্যাচ হেরে আসা সাইফ স্পোর্টিং সমতায় ফেরে ৪৪ মিনিটে। ইয়াসিন আরাফাতের থ্রু বল ধরে এক ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে নিখুঁত শটে দূরের পোস্ট দিয়ে জাল খুঁজে নেন নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ড ওকোলি। দ্বিতীয়ার্ধে অধিকাংশ সময় খেলা ছিল মাঝমাঠে সীমাবদ্ধ। সুযোগ যা একটু তৈরি করে সাইফ স্পোর্টিং, কিন্তু ফিনিশিংয়ের ব্যর্থতায় মিলছিল না গোলের দেখা।

৮০ মিনিটে ভালো একটি সুযোগ নষ্ট হয় ফেডারেশন কাপের রানার্সআপ সাইফ স্পোর্টিংয়ের। ইকেচুকে কেনেথের পাস ধরে সিরোজুদ্দিন রাখমাতুল্লায়েভ ক্রস বাড়িয়েছিলেন। গোলমুখ থেকে টোকা দেয়ার কাজটুকু করতে পারেননি ফয়সাল আহমেদ ফাহিমের বদলি নামা মিডফিল্ডার সাজ্জাদ। শেষ দিকে রহিম উদ্দিনের ক্রসে ডাইভিং হেডে জয়সূচক গোলটি করেন সাজ্জাদ।






ads
ads