পিএসজিকে হুঙ্কার দিয়ে রাখলেন মেসিরা


poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৮:৪৬

নেই নেইমার, নেই ডি মারিয়া—তাতে কী! ন্যু ক্যাম্পে এমবাপ্পে-ইকার্দিরা বার্সেলোনার দুর্বল রক্ষণ কাঁপাতে যথেষ্ট। অন্তত প্রতি ম্যাচেই বার্সা ডিফেন্ডারদের শিশুসুলভ সব ভুল চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলর প্রথম লেগে পিএসজিকে আশাবাদী করে তুলতে যথেষ্ট।

তবে আগামী মঙ্গলবার রাতে ফরাসি ক্লাবটিকে আতিথেয়তা দেয়ার আগে হুঙ্কার দিয়ে রাখলেন মেসিরাও। লিগ ম্যাচে শনিবার রাতে আলাভেজকে ঘরের মাঠে ডেকে এনে ৫-১ গোলের লজ্জা দিয়েছে কাতালান ক্লাবটি। জোড়া গোল করেছেন লিওনেল মেসি এবং ফ্রান্সিসকো ত্রিনকাও। একটি গোল এসেছে ডিফেন্ডার জুনিয়র ফিরপোর পা থেকে।

পিএসজি ম্যাচকে সামনে রেখে একাধিক পরিবর্তন নিয়েই দল সাজান বার্সেলোনা কোচ কুম্যান। তবুও জয় তুলে নিতে সমস্যা হয়নি স্বাগতিকদের। উল্টো দ্বিতীয়ার্ধে যে ধরনের ভয়ানক ফুটবল খেলেছে মেসিরা, তাতে পিএসজির এখন বার্সাকে সমীহ করা ছাড়া কোনো উপায় নেই। রিয়াল বেতিসের বিপক্ষে আগের ম্যাচেই লা লিগায় বার্সার হয়ে প্রথম গোল করা ত্রিনকাও এদিন বার্সার গোলখাতা খোলেন। সিনিয়র দলে অভিষিক্ত ফুটবলার আয়লাই মরিবার এক পাস থেকে বাঁ পায়ের দুর্দান্ত প্লেসিংয়ে গোল করেন এই পর্তুগিজ উইঙ্গার।

চার মিনিট পর দারুণ এক গোলে স্কোরশিটে নাম তোলেন মেসিও। তবে গ্রিজমান অফসাইডে থেকে প্রথম শট নেয়ায়, সেই গোল বাতিল করে দেয় ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারি—ভিএআর। দ্বিতীয়ার্ধে ত্রিনকাওয়ের একটি গোলও একই কারণে বাতিল হলে হ্যাটট্রিক হয়নি তার।

এদিকে মেসি নিজের আক্ষেপ দূর করেন ৩০ গজ দূর থেকে আরেকটি দুর্দান্ত গোলে। প্রথমার্ধের ইনজুরি সময়ে বাঁ পায়ে আলাভেজ গোলরক্ষক পাচেকোকে পরাস্ত করেন মেসি। ম্যাচে বেশ কয়েকটি দুর্দান্ত সেভ করেন এই আলাভেজ গোলরক্ষক। যদিও মেসিরা এতটাই অনবদ্য ফুটবল খেলে যে, পাঁচ গোল হজম করতে হয় তাকে।

দ্বিতীয়ার্ধের ৫৭ মিনিটে আয়লাই মরিবার এক ভুল পাসের খেসারত গোল হজম করে দেয় বার্সেলোনা। স্বাগতিকদের এক গোল ফেরত দেন লুইস রিওহা। ওই ভুলের পর পেদ্রি, পিয়ানিচদের নামিয়ে আক্রমণের ধার বাড়ান কুম্যান। তার ফল ৭৪ থেকে ৮০ মিনিটে বার্সার তিন গোল। আর তিনটি গোলই ছিল চোখ জুড়ানো।

৭৪ মিনিটে মেসিকে রুখে দিলেও, ফিরতি শটে ত্রিনকাও ব্যবধান করেন ৩-১। এক মিনিট পরেই ডি বক্সের বাইরে থেকে মেসির এক গোল। বল গোলপোস্টের বাঁ প্রান্তে যেভাবে বাঁক খেয়ে ঢুকে যায়, তা আটকানোর সাধ্য হয়ত এই দুনিয়ার কোনো গোলকিপারের পক্ষেই সম্ভব ছিল না। আর আলাভেজের কফিনে শেষ পেরেকটিও বার্সা ঠোকে, দলীয় বোঝাপড়ায়। গ্রিজমানের বাড়ানো বলে পা ছোঁয়ান ফিরপো।

কোপা দেল রের সেমিফাইনালে প্রথম লেগে সেভিয়ার কাছে হেরে পরের ম্যাচেই শিষ্যদের এমন পারফরম্যান্সে মুগ্ধ কুম্যান। এই দলকে নিয়েই তাই পিএসজি হারানোর জোর শোনা গেল এই ডাচ কোচের কণ্ঠে, ‘আমার দল বেশ ভালো খেলছে। পিএসজিকে আমরা হারাতে পারব, আমরা সেই ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী। আমরা আজকে যে দলের বিপক্ষে খেলেছি, তাদের রক্ষণভাগ বেশ শক্তিশালী ছিল। দলটির বিপক্ষে এত ভালো করে আমাদের আত্মবিশ্বাস আরো বেড়ে গেছে।’

লিগে টানা সাত জয়ের পর মেসির ফর্ম, দলের সুন্দর গোছাল ফুটবল এবং সবার বোঝাপড়াটাই যেন আশাবাদী করে তুলছে কুম্যানকে, ‘আমরা বেশ ভালো ফর্মে আছি এখন। বেশ কয়টা জয় তুলে নিয়েছি। মেসিও দুর্দান্ত ফর্মে আছে। আমি জানি, ও আমাদের দলের জন্য কতটা গুরুত্বপূর্ণ। ও দলে থাকলে সবকিছুই সহজ হয়ে যায়।’

বার্সার আগে মাঠে নেমে গ্রানাডাকে হারিয়ে জয়ে ফিরেছে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ। আগের ম্যাচেই সেল্টা ভিগোর সঙ্গে ২-২ গোলে ড্র করেছিল ডিয়োগো সিমিওনের দল। তবে এদিন গ্রানাডাকে ২-১ গোলে হারিয়ে শীর্ষস্থান আরো শক্ত করে মাদ্রিদের এই ক্লাবটি। এই জয়ে ২১ ম্যাচ শেষে ৫৪ পয়েন্ট অ্যাটলেটিকোর। বার্সার পয়েন্ট ৪৬। তবে মেসিরা ম্যাচ খেলেছেন একটি বেশি।






ads
ads