বদলি নেমে নায়ক সেই মেসি


poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১৭:৩০

রিয়াল বেতিসের বিপক্ষে লিগে আগের দেখায়ও বার্সেলোনার মূল একাদশে রাখেননি ম্যানেজার রোনাল্ড কুম্যান। পরে দ্বিতীয়ার্ধে মাঠে নেমে জোড়া গোল করে সেদিন দলকে জয় এনে দিয়েছিলেন মেসি। ফিরতি দেখায় নভেম্বরের ওই ম্যাচের পুনঃমঞ্চায়ন আবার হলো রবিবার রাতে।

লা লিগায় এবার বার্সেলোনার জয় ৩-২ গোলে। বদলি নেমে মেসি দুর্দান্ত একটি গোল ছাড়াও আরেকটি গোলে রাখেন প্রত্যক্ষ অবদান। ফলে লিগে টানা ষষ্ঠ তুলে নিতে কোনো সমস্যা হয়নি ব্লাউগ্রানা জার্সিধারীদের।

বেতিসের মাঠে বেনিতো ভিয়ামারিনে মাঝমাঠের দুই ভরসা ফ্রেঙ্কি ডি ইয়ং ও পেদ্রি এবং দলের প্রাণভোমরা মেসিকে একাদশের বাইরে থেকেই একাদশ সাজান কুম্যান। যদিও ম্যাচের ১১ মিনিটে রোনাল্ড আরাউহো ইনজুরিতে পড়লে ডিফেন্ডার হিসেবে নামানো হয় ডি ইয়ংকে। তারপরেও প্রতিপক্ষের মাঠে আক্রমণভাগে মেসি ও পেদ্রির অনুপস্থিতি ভালো করেই টের পায় অতিথিরা।

গোলমুখে একটি শটও নিতে পারেননি গ্রিজমান-দেম্বেলেরা। উল্টো ৩৮ মিনিটে একটি গোল হজম করে বসে বার্সা। বাধ্য হয়েই দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে ডি ইয়ং এবং পেদ্রিকে নামাতে হয় কুম্যানকে। মেসি বদলি হিসেবে মাঠে নামেন ৫৭ মিনিটে। এর দুই মিনিট পরেই বাঁ প্রান্ত থেকে দুর্দান্ত এক গোল করে দলকে সমতায় ফেরান মেসি।

বার্সা পরের গোলটি পায় বেতিস ফুটবলার ভিক্টর রুইজের কল্যাণে। আত্মঘাতী গোল করেন তিনি। ৬৮ মিনিটে মেসি অনবদ্য এক থ্রু বল ডি বক্সে খুঁজে নেয় জরদি আলবাকে। এই লেফটব্যাক গোলকিপারের সামনে থাকা আঁতোয়ান গ্রিজমানকে বল বাড়ান। গ্রিজমান পাওয়া সেই বল পায়ে লাগালেও শেষ মুহূর্তে রুইজের ছোঁয়া লেগেই জালে ঢোকে। এই বেতিস ডিফেন্ডার অবশ্য ৭ মিনিট পর নিজের ভুলের দায়মোচন করে দলকে সমতায় ফিরিয়ে। নাবিল ফেরিকের ফ্রি-কিক থেকে হেডে গোল করে স্বাগতিকদের অন্তত ড্র এনে দেয়ার পথ সুগম করেন।

আগের ম্যাচেই কোপা দেল রের সেমিফাইনালে ঘুরে দাঁড়ানোর অনন্য এক দৃষ্টান্ত স্থাপন করে বার্সেলোনা। ২-০ গোলে পিছিয়ে থেকেও ম্যাচটি ঠিকই জিতে নেয় কাতালান ক্লাবটি। নির্ধারিত সময়ের ১৫ মিনিট আগে বেতিসের কাছে এদিন তাই দ্বিতীয় গোলটি হজ করলেও, আশা হারায়নি বার্সা। যার ফলটা ৮৭ মিনিটে পায় দলটি। বার্সার পর্তুগিজ উইঙ্গারফ্রান্সিসকো ট্রিনকাওয়ের বাঁ পায়ের গোলা গোল পোস্টে লেগে ঠিকই ঢুকে যায় জালে।

লিগে দলের হয়ে ট্রিনকাওয়ের এই প্রথম গোলই পূর্ণ ৩ পয়েন্ট এনে দেয় বার্সাকে। এই মৌসুমে ক্লাবটিতে যোগ দেয়ার পর নামের প্রতি সুবিচার করতে পারছিলেন না ট্রিনকাও। তবে প্রতিপক্ষের মাঠে দলকে জয় এনে দেয়ার পর এই পর্তুগিজ ফুটবলারকে নিয়ে কুম্যান ম্যাচ শেষে বলেন, ‘সে খুব তরুণ। বার্সেলোনার মতো বড় ক্লাবে তাকে মানিয়ে নিতে সময় লাগবে। আমরা ওকে সুযোগ দিচ্ছি। শেষ কয় ম্যাচে ও দারুণ কিছু গোলের সুযোগ নষ্ট করেছে। তবে আজ সে ম্যাচ নির্ধারক এবং খুব গুরুত্বপূর্ণ একটি গোল করল।’

চাপে পড়লেই ম্যাচে ফিরতে পারে না বার্সেলোনার নামের সঙ্গে এই অপবাদ গেল তিন মৌসুম ধরে চলছে। তবে কোপা দেল রের পর লিগেও পিছিয়ে থেকে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে পারায় তুষ্ট বার্সা কোচ, ‘এই ফল আমাদের বিশ্বাস করতে সাহায্য করছে যে, খেলোয়াড়রা জিততে তাদের মাথা কাজে লাগাচ্ছে। এটাই তো খেলার ধরন।’

এরপর বদলি নামা ম্যাচের নায়ক মেসিকে নিয়ে কুম্যান বলেন, মেসিকে নিয়ে বার্সেলোনা সেরা দল। অনেক বেশি কার্যকর। সে অনেক বছর ধরেই এখানে খেলে প্রমাণ করে যাচ্ছে যে, সে আমাদের দলের প্রাণভোমরা।’






ads
ads