মেসিকে নিয়ে ধোয়াশা


poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১৬ জানুয়ারি ২০২১, ১৯:৩৬

স্প্যানিশ সুপার কাপের ফাইনালে আজ সেভিয়াতে মুখোমুখি হচ্ছে বার্সেলোনা ও অ্যাটলেটিকো বিলবাও। তবে এই ফাইনালে বার্সার প্রাণভোমরা লিওনেল মেসিকে নিয়ে দেখা দিয়েছে সংশয়। বার্সেলোনার অধিনায়ক ইনজুরির কারণে রিয়াল সোসিয়েদেদের বিপক্ষে সেমিফাইনালে খেলেননি।

ফাইনালের আগে দলের অনুশীলনেও যোগ দেননি বার্সা ও আর্জেন্টাইন সুপারস্টার। তবে দলের সঙ্গে সেভিয়াতে গিয়েছেন তিনি। দলের ওয়েবসাইট থেকে এখনো কিছু জানানো হয়নি মেসির খেলা নিয়ে। তাই ফাইনালে মেসির খেলাটা নিয়ে অনেকটাই ধোয়াশাই থাকতে হচ্ছে ফুটবলপ্রেমীদের।

মেসি বার্সায় যোগ দেয়ার পর ২০০৬ সালের পর এই প্রথম কোনো ফাইনাল মিস করতে পারেন যদি আজ তার মাঠে নামা না হয়। মেসির ইনজুরির ব্যাপারে তেমন কোনো আপডেট দেয়া হয়নি দলটির ওয়েবসাইটে। তবে মেসির খেলার ব্যাপারে আগ্রহী বার্সার কোচ রোনাল্ড কুম্যান।

কুম্যান বলেছেন তিনি মেসির জন্য শেষ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে রাজি। মেসি দলের হয়ে সবশেষ ম্যাচটি খেলেছেন লিগে। সেই ম্যাচে দুর্দান্ত দুই গোল করে তার পুরনো ফর্মেও কথা জানানও দিয়েছিলেন।

বার্সেলোনাকে সেমিফাইনালে জিততে বেশ ঘাম ঝরাতে হয়েছে সোসিয়েদাদের বিপক্ষে। মেসিবিহীন খেলতে নেমে অনেকটাই ভাগ্যের জোড়ে ফাইনালে ওঠে কাতালানরা। সেদিন দলের জয়ের নায়ক গোলরক্ষক আন্দ্রে টের স্টেগেন। তার অসাধারণ গোলকিপিংয়ে শেষ পর্যন্ত ফাইনালের টিকিট মেলে দলটির।

নির্ধারিত সময়ে প্রতিপক্ষের কয়েকটি দুর্ধর্ষ প্রচেষ্টা রুখে দেয়ার পর টাইব্রেকারে দুটি পেনাল্টি শট ঠেকিয়ে নায়ক বনে যান তিনি। তাই ফাইনালেও তার দিকে যে দল তাকিয়ে থাকবে না তাকি হয়। বার্সার ভঙ্গুর ডিফেন্সের ওপর তেমন ভরসা করা যায় না। তবে মেসি ফিরলে বার্সা যে অন্য চেহারার তা বলার অপেক্ষা রাখে না। কারন দুই দলের মধ্যে পার্থক্য গড়ে দেয়ার একমাত্র ক্ষমতা আছে তার।

অ্যাটলেটিকো বিলবাও যোগ্য দল হিসেবেই এইবার ফাইনালে উঠে এসেছে। সেমিফাইনালে অন্যতম শক্তিশালী দল রিয়াল মাদ্রিদকে তারা হারিয়েছে ২-১ গোলে। রিয়ালের মতো দলের বিপক্ষে জয়ী হওয়াটা যে সহজ না তা সকলেই যানে। আর সেমিফাইনালের মতো ম্যাচে রিয়াল কোনো সুযোগও দেয় না। দুটো সুযোগের দুটিকেই কাজে লাগিয়ে গোল করেছিল বিলবাও।

প্রথমার্ধের সেই লিডটা শেষ পর্যন্ত তারা ধরে রাখতে পেরেছিল। যদিও বিরতির পর রিয়াল ম্যাচে ফেরার জন্য প্রাণপণ চেষ্টা করেছিল, কিন্তু কাজ হয়নি। যদিও ফাইনালে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদেও তুলনায় বার্সেলোনা পরিষ্কার ফেবারিট। তবুও ফাইনাল বলে কথা।






ads
ads