এবার মুদ্রার উল্টো পিঠ দেখল বায়ার্ন


poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১৪ জানুয়ারি ২০২১, ১৭:৫১,  আপডেট: ১৪ জানুয়ারি ২০২১, ১৭:৫৪

বার্সেলোনার মতো ক্লাবকে ৮ গোল দেয়া, সম্ভাব্য সব কটি ট্রফি ঘরে তোলা, ক্লাবের ফুটবলারদের রাক্ষুসে ফর্ম—ইউরোপে গেল মৌসুমটা অপ্রতিরোধ্য হিসেবে কাটিয়েছে বায়ার্ন মিউনিখ। করোনা বিপর্যয়ের বছরে তারা হেরেছিল মাত্র এক ম্যাচ।

সেই দলের কোচ হান্সি ফ্লিক, খেলোয়াড়—লেভানডস্কি, নয়্যার, কিমিখরা এখনো আছে; কিন্তু হঠাৎ করেই যেন ব্যর্থতার কাঁদায় মাখামাখি অবস্থা দলটার। এবার মুদ্রার ঠিক উল্টো পিঠটা যেন দেখছে জার্মান জায়ান্টরা। বুধবার রাতে জার্মান কাপের দ্বিতীয় পর্ব থেকেই বাদ পড়েছে বাভারিয়ানরা। তাও দ্বিতীয় বিভাগের দল হোলস্টেইন কাইলের মতো অখ্যাত দলের কাছে হেরে।

শেষ লিগ ম্যাচে বরুশিয়া মনশেনগ্লাডবাখের কাছে বশ মেনেছিল বায়ার্ন। নতুন বছরে ১৫ দিনে, এরইমধ্যে দুটি হার জুটেছে নয়্যারদের কপালে, অথচ গেল বছরের পুরোটা জুড়ে বাভারিয়ানরা মাত্র একবার হার নিয়ে মাঠ ছেড়েছিল। এদিন, ডিএফবি পোকালের দ্বিতীয় পর্বের ম্যাচে হোলস্টেইনের মাঠে খেলতে গিয়েছিল বায়ার্ন। ম্যাচে দুই দুইবার এগিয়ে গেলেও, কোনো এক অদৃশ্য শক্তির ভরে যেন, স্বাগতিকরা দুইবারই ম্যাচে ফিরে আসে। এর পর অতিরিক্ত সময়েও ম্যাচের নিষ্পত্তি না হলে, ফলাফলের জন্য ম্যাচ গড়ায় টাইব্রেকারে। যেখানে সাডেন ডেথে বায়ার্নের কপাল পোড়ে মার্ক রোকা গোল করতে ব্যর্থ হলে।

পুঁচকে দলের কাছে জার্মান কাপ থেকে বিদায়টা কিছুতেই যেন মেনে নিতে পারছেন না উয়েফার বর্তমান বর্ষসেরা কোচ হান্সি ফ্লিক। ম্যাচ শেষে স্কাইকে তিনি বলেন, ‘এটা বিশাল একটা ধাক্কা আমাদের জন্য। আমরা খুবই হতাশ। সবচেয়ে চিন্তার বিষয় এটা যে ইনজুরি সময়ে আমরা গোল হজম করলাম, আর ম্যাচটায় সমতা ফিরল। কিয়েলকে (হোলস্টেইন) অভিনন্দন।’

বায়ার্নের জার্মান মিডফিল্ডার টমাস মুলার তো এই হারকে রীতিমতো বর্বর-নিষ্ঠুর বলেও উল্লেখ করেছেন। তার মতে, জয়টা বায়ার্নেরই প্রাপ্য ছিল। প্রতিপক্ষকে সম্মান জানিয়েই তিনি বলেন, ‘হোলস্টেইনকে শ্রদ্ধা করেই বলছি, ম্যাচটা আমাদের জেতা উচিত ছিল। তবে প্রতিপক্ষ বেশ ভালো খেলেছে। আমরা সুপার কাপ থেকে বিদায় নিলাম, যা মেনে নেয়া খুবই কষ্টের।’

মুলারের কথাটা তেমন অমূলকও নয়। ভারী তুষারপাতের মধ্য দিয়ে চলমান ম্যাচে ভাগ্যটা বেশ নিষ্ঠুর আচরণই করেছে তাদের সঙ্গে। সের্জ নাবরির গোলে ১৪ মিনিটে এগিয়ে যাওয়ার পর ফিন বার্টেলস ৩৭ মিনিটে স্বাগতিকদের ম্যাচে ফেরান। দ্বিতীয়ার্ধের ২ মিনিটে সাবেক ম্যান সিটি তারকা লেরয় সানের গোলে আবারো এগিয়ে যায় অতিথি দল। সেই গোলে জয়ের পথেই ছিল বাভারিয়ানরা। রেফারি তখন ম্যাচের শেষ বাঁশি বাজানোর অপেক্ষায়। চলছে ইনজুরি টাইমের শেষ মিনিট। আচমকা বাঁ প্রান্ত থেকে হোলস্টেইন লেফট ব্যাক ফন ডেন বেরগ ক্রস বাড়ান ডি-বক্সে। লাফিয়ে উঠে ডিফেন্ডার হাউকে ভাল মাথাও ছোঁয়ান বলে। সেই বল ম্যানুয়েল নয়্যারকে ফাঁকি দিয়ে ডানদিকের পোস্ট দিয়ে ঢুকে যায় জালে।

ম্যাচ শেষে তাই নিজেদের ব্যর্থতা মেনে নিতে কার্পণ্য করেননি মুলার, ‘আমরা ম্যাচটা হেরেছি তুলনামূলক দুর্বল হোলস্টেইনের কাছে। আমাদের ভুলগুলোই সদ্ব্যবহার করেছে হোলস্টেইন। বায়ার্ন বধের পর শেষ ষোলতে আগামী ২ ফেব্রুয়ারি আরেক দ্বিতীয় সারির দল ডার্মস্টাডটের বিপক্ষে খেলবে। এদিকে, ২০ বছর পর জার্মান কাপ থেকে দ্বিতীয় সারির কোনো দলের কাছে হেরে ফ্লিক ছাত্ররা নষ্ট করল আরো একটি মৌসুমে ট্রেবল জেতার সম্ভাব্য সুযোগ।’






ads
ads