শুরুতেই দাপুটে জয় বায়ার্নের


poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ২২ অক্টোবর ২০২০, ১১:২০

চ্যাম্পিয়নস লিগে জয় দিয়েই দাপুটে শুরু জার্মান জায়ান্ট বায়ার্ন মিউনিখের। ঘরের মাঠে অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে দিল বাভারিয়ানরা। বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের হয়ে জোড়া গোল করেন কিংসলে কোম্যান। বাকি দুটি গোল আসে লেয়ন গোরেটস্কা ও টলিসোর পা থেকে।

মাস দুয়েক আগে পর্তুগালের লিসবনে পিএসজিকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগের ট্রফি জিতেছিল বায়ার্ন মিউনিখ। সাফল্যের সেই সুখস্মৃতি নিয়ে এবারের আসরে শুরুটাও দুর্দান্ত হলো বাভারিয়ানদের। সবমিলিয়ে টানা পঞ্চম জয়ে সময়টা দারুণ যাচ্ছে জার্মান লিগ চ্যাম্পিয়নদের।

ঘরের মাঠ অ্যালিয়াঞ্জ অ্যারেনায় বরাবরই অপ্রতিরোধ্য বায়ার্ন মিউনিখ। এবার ইউরোপ সেরার মঞ্চে বাভারিয়ানদের মুখোমুখি হয় স্প্যানিশ অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ। যদিও ম্যাচের শুরুতেই বলের দখল নিয়ে অ্যাটাকিং ফুটবল খেলে দিয়াগো সিমিওনের দল। তিন মিনিটে সুযোগ পায় অতিথিরা। তবে সতীর্থের বাড়ানো বল জালে জড়াতে পারেনি উরুগুয়েন ফরোয়ার্ড লুইস সুয়ারেজ। এরপর আধিপত্য বিস্তার করে বায়ার্ন। তাইতো ২৮ মিনিটে জসুয়া কিমিচের অ্যাসিস্টে বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের লিড এনে দেন ফরাসি উইঙ্গার কিংসলে কোম্যান।

এরপর আর বায়ার্নের কাছে পাত্তাই পায়নি অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ। ৪১ মিনিটে আবারো এগিয়ে যায় বায়ার্ন মিউনিখ। কোম্যানের দারুণ পাসে প্রতিপক্ষের গোলকিপারকে বোকা বানিয়ে গোল আদায় করে নেন জার্মান মিডফিল্ডার গোরেটস্কা। পিছিয়ে পড়ে গোল শোধে মরিয়া হয়ে ওঠে সিমিওনের শিষ্যরা। কিন্তু সুয়ারেজ-ফিলিক্সরা এদিন সুযোগ কাজে লাগাতে পুরোপুরি ব্যর্থ হয়।

বিরতির পরও যেনো বায়ার্ন ঝলক। মুহুর্মুহু আক্রমণে প্রতিপক্ষের রক্ষণদুর্গে কাঁপন ধরিয়ে দেয় বাভারিয়ানরা। ৬৬ মিনিটে প্রায় ২৮ গজ দুর থেকে বুলেট গতির শটে স্কোর শিটে নাম লেখান টলিসো। ৩-০ গোলের লিড স্বাগতিকদের।

এ গোলের রেশ না কাটতেই ৭২ মিনিটে মাঝমাঠ থেকে একক প্রচেষ্টায় জালের ঠিকানা খুঁজে নিয়ে নিজের দ্বিতীয় গোল করেন কোম্যান। ঠিক ৫৯ দিন আগে লিসবনে নায়ক বনে যাওয়া এই ফরাসি যেন নিজের জাত চিনিয়ে সেই দিনের স্মৃতিচারণ করলেন।

শেষ পর্যন্ত আর গোল না হলে দাপুটে জয় দিয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগের মিশন শুরু করল বায়ার্ন মিউনিখ।






ads