করোনাজয়ী ফেলাইনির ‘হেডে হ্যাটট্রিক’


poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ২৮ জুলাই ২০২০, ১৭:৩৯

নানা সময়ে আলোচিত-সমালোচিত ফুটবলারদের একজন মারুয়ান ফেলাইনি। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে শিশুসুলভ সব ভুলে তিনি একপক্ষের কাছে বরাবরই চক্ষুশূল! আবার বাহারি চুলের জন্য অনেকের কাছে বাড়তি গুরুত্ব পান তিনি।

এই করোনাকালেও তিনি ছিলেন পাদপ্রদীপের আলোয়। কারণ, বর্তমানে চাইনিজ লিগের ক্লাব শানডং লুনেংয়ের হয়ে খেলা এই ফুটবলার যে করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। ফেলাইনি অবশ্য তিন সপ্তাহের ভেতরেই করোনা জয় করেছেন।

অবাক করা তথ্য হলো, করোনাজয়ী ফেলাইনি ফুটবল মাঠে ফিরে নিজের প্রথম ম্যাচেই করে ফেললেন হ্যাটট্রিক। তাও মাত্র সাত মিনিটের ব্যবধানে এবং সব ক’টি গোলই এসেছে হেড থেকে।

রবিবার চাইনিজ সুপার লিগে ফেলাইনির হ্যাটট্রিকে দালিয়ান প্রোকে ৩-২ গোলে হারায় শানডং লুনেং। ৭৯ থেকে ৮৬ মিনিট এই মাত্র সাত মিনিটের ব্যবধানে গোল তিনটি করেন বেলজিয়ামের এই মিডফিল্ডার। ফেলাইনির হ্যাটট্রিকে শানডং এগিয়ে যাওয়ার পর অতিরিক্ত সময়ে একটি গোল পরিশোধ করে রাফায়েল বেনতেজের দালিয়ান প্রো। তবে তাতে শানডংয়ের জয় আটকে থাকেনি।

করোনা জয়ের পর ওজন আরো কমিয়েছেন ফেলাইনি। এখন চাইলেই শরীরে তার ক’টি হাড় গুনে দেখা যাবে। বাড়তি মেদ-চর্বি কমিয়ে ফেলাইনি মাঠে যেন নিজেকে অন্যভাবে তুলে ধরলেন। দালিয়ান প্রো সালোমোন রন্ডনের গোলে প্রথমার্ধে এগিয়ে গিয়েছিল ঠিকই। তবে ৭৯, ৮৩ এবং ৮৬ মিনিটে তিনটি সেটপিস থেকে ফেলাইনির সুযোগ-সন্ধানী হেডগুলো জড়ায় প্রতিপক্ষের জালে। যার মধ্যে দুটি কর্নার এবং একটি গোল আসে ফ্রি-কিক থেকে।

স্বাভাবিকভাবেই করোনাজয়ী ফেলাইনির এই কীর্তিতে কমবেশি হতবাক তার সতীর্থ থেকে প্রতিপক্ষ দলের ফুটবলাররা। হ্যাটট্রিকের পর গ্যালারিতে উঠে দাঁড়িয়ে বেলজিয়ান ফুটবলারটিকে অভিবাদন জানান তার সতীর্থরা। ম্যাচ জিতিয়ে উচ্ছ্বসিত ছিলেন ফেলাইনি নিজেও।

তিনি বলেন, ‘গোল করা সবসময়ই একটা দারুণ অনুভূতি। ম্যাচ জিতে কার না ভালো লাগে? খেলাটা কঠিন ছিল তবে দুর্দান্ত লড়াই হয়েছে।’






ads