কষ্টের জয়, তবুও শঙ্কা


poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১২ জুলাই ২০২০, ১৭:৫৫

লিগে টানা তৃতীয় জয় তুলে নিল বার্সেলোনা। শনিবার রাতে ভায়াদোলিদের মাঠে মেসিদের জয় ১-০ গোলে। আগের ম্যাচে নগর প্রতিদ্বন্দ্বী এস্পানিওলকেও একই ব্যবধানে হারায় কাতালান ক্লাবটি। কষ্টে পাওয়া জয়ের পরেও শিরোপাটা প্রায় খোয়াবার পথেই আছে বার্সেলোনা।

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের চেয়ে এখনো ১ পয়েন্ট পিছিয়ে আছে তারা। শেষ দুই ম্যাচে জয়ের পাশাপাশি রিয়ালের হাতে থাকা তিন ম্যাচের দুটোতে হারা চাই, নতুবা টানা তৃতীয়বার লিগ জেতার স্বপ্ন অধরাই থেকে যাবে ব্লাউগ্রানা জার্সিধারীদের।

রিয়াল জয়ের ধারা অব্যাহত রাখায় বার্সার সামনে জয়ের কোনো বিকল্প ছিল না। তবে খেলা প্রতিপক্ষের মাঠে হওয়ায় দুশ্চিন্তা ছিল বার্সেলোনা সমর্থকদের মনে। কারণ, সাম্প্রতিক সময়ে এওয়ে ম্যাচে কাঙ্ক্ষিত পারফর্ম করতে ব্যর্থ হচ্ছেন মেসি-সুয়ারেজরা। তবে ভায়াদোলিদের মাঠ হোসে জোরিয়াতে ম্যাচের শুরু থেকেই আধিপত্য বিস্তার করে খেলতে শুরু করে বার্সেলোনা। গোলের দেখা পেতেও তাই বেশি দেরি হয়নি। ১৫ মিনিটে অ্যালেক্সিস ভিদালের গোলে এগিয়ে যায় অতিথি শিবির। চিলিয়ান এই মিডফিল্ডারকে বল বাড়ান মেসি।

ভিদালের অষ্টম লিগ গোলে সহায়তা করে মেসি তার অ্যাসিস্ট সংখ্যাকে বাড়িয়ে নিয়ে গেলেন ২০-এ। ২০০৮-০৯ মৌসুমের পর মেসিই প্রথম ফুটবলার যিনি কিনা লা লিগায় এক মৌসুমে ২০টি অ্যাসিস্টের রেকর্ড গড়লেন। এর আগে, সাবেক বার্সা ফুটবলার ও মেসির সতীর্থ জাভির দখলে ছিল রেকর্ডটি। মেসি-ভিদাল যুগলবন্দিতে এগিয়ে যাওয়ার পর বার্সেলোনা দ্বিতীয়ার্ধে খেই হারায়।

প্রথমার্ধে নিজের ছায়া হয়ে থাকা গ্রিজমান ভালো কিছু সুযোগ পেয়েও কাজে লাগাতে পারেননি। বিরতির পর তাই গ্রিজমানকে তুলে সুয়ারেজকে মাঠে নামান বার্সা বস সেতিয়েন। এতে আক্রমণে ধার বাড়লেও গোল মুখ আর খুলতে পারেনি কাতালানরা।
ভায়াদোলিদও বেশ ক’টি সহজ গোলের সুযোগ তৈরি করে কাজে লাগাতে ব্যর্থ হয়।

এদিন তিন কাঠির নিচে রীতিমতো অপ্রতিরোধ্য ছিলেন বার্সার গোলবারের অতন্দ্র প্রহরী টের স্টেগান। স্বাগতিকদের নিশ্চিত কিছু গোলের সুযোগ নষ্ট করে দেন তিনি। শেষ পর্যন্ত তাই আর সমতায় ফেরা হয়নি স্বাগতিকদের। এ জয়ে ৩৬ ম্যাচ খেলে বার্সেলোনার পয়েন্ট দাঁড়াল ৭৯ তে। এক ম্যাচ কম খেলে শীর্ষে থাকা রিয়াল মাদ্রিদের পয়েন্ট ৮০।

 





ads






Loading...