ইনজুরির কারণে কপাল পুড়ল ইমরুলের

ইনজুরির কারণে কপাল পুড়ল ইমরুলের
ইমরুল কায়েস - ফাইল ছবি

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১৯ জানুয়ারি ২০২০, ১৩:৩৩

ভারত সফরে টেস্টে চরম ব্যর্থ ইমরুল কায়েসকে কাঠগড়ায় তুলেছিলেন অনেকেই। বাতিলের খাতায়ও ফেলে দেয়া লোকেরও অভাব ছিল না। তবে স্লথ গতির ব্যাটিংয়ের কারণে পরিচিত এ ব্যাটসম্যান টি-টোয়েন্টিতে হঠাৎ করেই মেলে ধরেন নিজেকে। ইনজুরির কারণে নিয়মিত অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ না খেলায় সদ্য সমাপ্ত বঙ্গবন্ধু বিপিএলে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সকে সফলভাবে নেতৃত্ব দেয়ার পাশাপাশি ব্যাট হাতে আলো কাড়েন তিনি।

দেশীয় ক্রিকেটারদের মধ্যে তৃতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ছিলেন ইমরুল। ১৩ ম্যাচ খেলে প্রায় ৫০ গড়ে ৪৪২ রান আসে এ বাঁহাতি ব্যাটসম্যানের উইলো থেকে। স্ট্রাইক রেটটাও টি-টোয়েন্টিসুলভ- ১৩২.৩৩! স্বভাবতই আসন্ন পাকিস্তান সফরের কুড়ি ওভারের দলে তাকে অন্তর্ভুক্ত করার কথা ভেবে রেখেছিলেন জাতীয় দলের নির্বাচকরা। তবে বিধি বাম, ক্যারিয়ারের সেরা সময়ে ইনজুরি কেড়ে নিল ইমুরলের দলে ঢোকার সেই সুযোগ।

গতকাল পাকিস্তানের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের জন্য ১৫ সদস্যর দল ঘোষণা করে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। যেখানে ঠাঁই পাননি ইমরুল। বিপিএল জুড়ে দুর্ধর্ষ পারফর্ম করেও, ইমরুলের না থাকাটা বাঁকা চোখেই নেয় সমালোচকরা। পরে জানা যায়, হ্যামস্ট্রিং ইনজুরির কারণে তাকে দলে নেয়া হয়নি।

নির্বাচক হাবিবুল বাশার সুমন দলে ইমরুলের না থাকা নিয়ে বলেন, ‘এটা ইমরুলের দুর্ভাগ্য। তাকে তো আমরা দলে রেখেছিলাম। কিন্তু চিকিৎসক আমাদের জানিয়েছেন তার সেরে উঠতে সময় লাগবে। তার হ্যামস্ট্রিংয়ের স্ক্যান করা হবে। রিপোর্ট পাওয়ার পর জানা যাবে, পরিস্থিতিটা কি!’

পাকিস্তান সফরে নিরাপত্তা নিয়ে পরিবারের শঙ্কা থাকায় মুশফিকুর রহিম আগেই নিজেকে সরিয়ে নেন এ সিরিজ থেকে। বিসিবি মুশফিকের এই ইচ্ছাকে সম্মান জানিয়ে তার অনুরোধ মেনে নিয়েছে। একে তো আইসিসির নিষেধাজ্ঞার কারণে সাকিব আল হাসান দলে নেই। মড়ার উপর খাঁড়ার ঘা মুশফিকেরও না থাকা। ব্যাটিং অর্ডারে ভারসাম্য রাখতে ইমরুলকেই নাকি মুশফিকের প্রিয় চার নম্বরের জন্য ভেবে রেখেছিলেন নির্বাচকরা। তবে দল ঘোষণার আগপর্যন্ত এই ব্যাটসম্যানের সুস্থ না হয়ে ওঠা নির্বাচকদের বাধ্যই করেছে তাকে বাদ দিয়ে দল ঘোষণা করতে, ‘আমরা ব্যাটিং অর্ডারে চার নম্বর পজিশনে মুশফিকের জায়গায় ইমরুল কায়েসের নামই ঠিক করেছিলাম। কিন্তু ইনজুরির কারণে এখন ইমরুলের নামও কেটে ফেলতে হয়েছে’- বলেন হাবিবুল।

মানবকণ্ঠ/এসকে




Loading...
ads






Loading...