ডাচ কোচের বার্সা প্রীতি

সাজ্জাদ সাব্বির

বার্সা
ডাচ কোচের বার্সা প্রীতি - ফাইল ছবি

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ০১ নভেম্বর ২০১৯, ১৯:৪৮

দীর্ঘদিন পর নিজেদের পুরনো রূপ ফিরে পেতে শুরু করেছেন ইউরোপিয়ান পরাশক্তি নেদারল্যান্ডস। রোনাল্ড ক্যোম্যান দায়িত্ব নেয়ার পরই ডাচ ফুটবলকে সমীহ করতে শুরু করেছে ইউরোপের শক্তিশালী দলগুলো। ডি ইয়ং, ডি লিটদের মতো তরুণদের হাতে পেয়ে টোটাল ফুটবলের জনকরা মনে কাঁপুনি ধরাচ্ছে সবার।

সবশেষ উয়েফা নেশন্স লিগের ফাইনালে খেলে নেদারল্যান্ডস। পর্তুগালের কাছে হেরে শিরোপা খোয়ালেও কমলা জার্সিধারীরা সাহসি ফুটবল খেলে মন জয় করে নেয় সবার। তবে যে ক্যোম্যানের হাত ধরে ফের ফুটবলে সফলতা পেতে শুরু করেছে নেদারল্যান্ডস, তাকে যে কোনো সময় হারাতে পারে দলটি। কারণ, ক্যোম্যানের বার্সেলোনায় যোগ দেয়ার তীব্র বাসনা!

কাতালান ক্লাবটির সঙ্গে বর্তমান ডাচ কোচের সখ্যতা বহুদিনের। আয়াক্স, বেনফিকা ও ভ্যালেন্সিয়ার হয়ে খেললেও ১৯৮৯ থেকে ১৯৯৫ পর্যন্ত বøাউগ্রানাদের জার্সি গায়ে ক্যারিয়ারের বর্ণিল সময় কাটান তিনি। বার্সেলোনা প্রথমবার ইউরোপ সেরা হয় ১৯৯২ সালে। তখন টুর্নামেন্টটির নাম ছিল ইউরোপিয়ান কাপ। সেই কাপজয়ী দলের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য ছিলেন ক্যোম্যান।

কোচ হিসেবে আত্মপ্রকাশের পর থেকেই তাই ন্যু ক্যাম্পে ফেরার তীব্র মনোবাসনা প্রকাশ্যেই জানিয়ে আসছিলেন এই ডাচ ম্যান। বার্সার দায়িত্ব পেতে তিনি যে কতটা উদগ্রীব সম্প্রতি তা জানা গেল নেদারল্যান্ডস জাতীয় ফুটবল দলের এক ডিরেক্টরের মুখে। নিকো জান হুগমা নামের ওই ডাচ ফুটবল ডিরেক্টর জানিয়েছেন, নেদারল্যান্ডসের সঙ্গে চুক্তি করার সময় ক্যোম্যান একটি শর্ত জুড়ে দিয়েছিলেন। যা হলো, বার্সা কখনো তাকে কোচ হিসেবে পেতে চাইলে নেদারল্যান্ডস যেন তাকে বাধা না দেয়।

রাশিয়া ২০১৮ বিশ্বকাপের মূলপর্বে উঠতে ব্যর্থ হওয়ার পর ক্যোম্যানের হাতে জাতীয় দলের দায়িত্ব তুলে দেয়া হয়। দেশের ফুটবলের সঙ্কটময় পরিস্থিতির মধ্যেও ক্যোম্যানের সেই শর্ত অনেকটা হাস্যকর শোনালেও তা মেনে নিয়েছিল ডাচ ফুটবল ফেডারেশন। কেননা তাদের তখন দরকার ছিল এমন একজন কোচ, যে দলকে পুনরায় গোছাতে পারবেন। তো এতদিন পর এসে ক্যোম্যানের সেই শর্ত প্রকাশ্যে আনার রহস্য কী?

নিকো জান হুগমা তা জানালেন নিজের মুখেই। মূলত ক্যোম্যানকে এখন ধরে রাখার ব্যাপারে বেশ আত্মপ্রত্যয়ী ডাচ ফেডারেশন। তাই খোলাখুলিভাবে বিষয়টি নিয়ে কথা বলেন তিনি, ‘আমি আশা করছি আমরা আরো অনেকদিন এক সঙ্গে কাজ করব। কারণ সবকিছু খুব সুন্দরভাবে চলছে। ক্যোম্যান আমাদের ইঙ্গিত দিয়েছে, সে যে কোনো দিন বার্সার জন্য আমাদের ছাড়তে পারে। দেখা যাক ভবিষ্যতে কী হয়!

কমলা রঙের জার্সিতে সফলতা সামনের দিনে অনেক সাহায্য করবে তাকে। তবে আমি আশা করছি, কাতার (২০২২ ফিফা বিশ্বকাপ) বিশ্বকাপের আগে আমাদের বন্ধন ছিন্ন হবে না।’

মানবকণ্ঠ/এআইএস




Loading...
ads





Loading...