করোনা : ইউরোপ নিয়ে যে আশংকা 'হু'র

করোনা : ইউরোপ নিয়ে যে আশংকা 'হু'র
- ছবি : সংগৃহীত

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৯:৫৬

ইউরোপে করোনাভাইরাস পরিস্থিতি ফের মারাত্মক হতে যাচ্ছে বলে সতর্ক করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। সংস্থাটি জানিয়েছে, অঞ্চলটিতে আক্রান্তের সংখ্যা আশঙ্কাজনকভাবে বাড়ছে। দ্রুতই আসতে পারে মহামারির দ্বিতীয় ঢেউ।

বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে সংস্থাটির আঞ্চলিক পরিচালক হ্যান্স ক্লুজ বলেছেন, ইউরোপে গত মার্চে মহামারি প্রথমবার চূড়ায় উঠেছিল। বর্তমানে সাপ্তাহিক সংক্রমণের ঘটনা সেই সংখ্যাকেও ছাড়িয়ে গেছে। গত সপ্তাহে অঞ্চলটিতে সাপ্তাহিক রোগীর সংখ্যা তিন লাখ ছাড়িয়েছে। অঞ্চলটিতে নতুন আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে থাকা আসন্ন ভয়াবহতার সংকেত দিচ্ছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানায়, ইউরোপের অর্ধেকের বেশি দেশেই গত দুই সপ্তাহে ১০ শতাংশ নতুন রোগী বৃদ্ধি পেয়েছে। এর মধ্যে সাতটি দেশে নতুন সংক্রমণ বেড়েছে দ্বিগুণেরও বেশি।

উল্লেখ্য, গত ডিসেম্বরে চীনে করোনাভাইরাস সংক্রমণ শুরুর কিছুদিন পরেই এর দ্বিতীয় হটস্পট হয়ে উঠেছিল ইউরোপ। সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আসায় মাস দুয়েক আগে অঞ্চলটির বেশিরভাগ দেশই লকডাউন তুলে অর্থনৈতিক কার্যক্রম শুরু করেছে। তবে গত কয়েক সপ্তাহে আবারও আশঙ্কাজনক হারে সংক্রমণ বাড়তে থাকায় বিধিনিষেধ ফিরিয়ে এনেছে বেশ কয়েকটি দেশ।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশে করোনায় মোট মৃতের সংখ্যা এখন ৪ হাজার ৮৫৯ জন। মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা এখন ৩ লাখ ৪৪ হাজার ২৬৪ জন। বৃহস্পতিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো করোনা সংক্রান্ত নিয়মিত স্বাস্থ্য সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় ৯৪টি করোনা পরীক্ষাগারে নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১৩ হাজার ৬৭৩টি। এ পর্যন্ত মোট নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৭ লাখ ৮৩ হাজার ৭৭৯টি। এর মধ্যে নতুন শনাক্ত হয়েছে ১ হাজার ৫৯৩ জন। এ নিয়ে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল ৩ লাখ ৪৪ হাজার ২৬৪ জনে। গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ১১ দশমিক ৬৫ শতাংশ এবং এ পর্যন্ত শনাক্তের হার ১৯ দশমিক ৩০ শতাংশ।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু হয়েছে আরও ৩৬ জনের। এ নিয়ে করোনায় মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ৪ হাজার ৮৫৯ জনে। মৃতদের মধ্যে পুরুষ ২৮ জন ও নারী ৮ জন। শনাক্ত বিবেচনায় মোট মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৪১ শতাংশ। করোনা থেকে গত ২৪ ঘণ্টায় ২ হাজার ৪৪৩ জন রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন। এতে সুস্থ রোগীর মোট সংখ্যা বেড়ে ২ লাখ ৫০ হাজার ৪১২ জন হয়েছে।

এদিকে বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসে বিশ্বে এরই মধ্যে তিন কোটির বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। মৃত্যুর মিছিলে যোগ দিয়েছেন ৯ লাখ ৪৫ হাজারের বেশি মানুষ।

করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের সংখ্যা ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্যানুযায়ী, বৃহস্পতিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) সকাল পর্যন্ত বিশ্বের বিভিন্ন দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ৯ লাখ ৪৫ হাজার ৬৬ জনের এবং আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩ কোটি ৩১ হাজার ৯৭৬ জনে। এর মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২ কোটি ১৭ লাখ ৯৯ হাজার ৬৮৪ জন।

বিশ্বে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে, ২ লাখ ১ হাজার ৩৪৮ জন। বিশ্বে সর্বোচ্চ আক্রান্তের সংখ্যাও এই দেশটিতে। এ নিয়ে ৬৮ লাখ ২৮ হাজার ৩০১ জন এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন।

করোনা আক্রান্তের সংখ্যায় দ্বিতীয় এবং মৃতের সংখ্যায় তৃতীয় অবস্থানে আছে ভারত। দেশটিতে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ৫১ লাখ ১৫ হাজার ৮৯৩ জন। এবং এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৮৩ হাজার ২৩০ জন।

করোনা আক্রান্তের সংখ্যায় তৃতীয় এবং মৃতের সংখ্যায় দ্বিতীয় অবস্থানে আছে ব্রাজিল। দেশটিতে এখন পর্যন্ত এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৪৪ লাখ ২১ হাজার ৬৮৬ জন। এবং আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১ লাখ ৩৪ হাজার ১৭৪ জন।

করোনায় মৃতের দিক থেকে চতুর্থ অবস্থানে আছে মেক্সিকো। দেশটিতে এখন পর্যন্ত এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৭১ হাজার ৯৭৮ জন। আর এ পর্যন্ত দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছে ৬ লাখ ৮০ হাজার ৯৩১ জন।

আক্রান্তের দিক থেকে চতুর্থ অবস্থানে আছে রাশিয়া। দেশটিতে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে ১০ লাখ ৭৯ হাজার ৫১৯ জন। আর মৃতের সংখ্যা ১৮ হাজার ৯১৭ জন।

সুস্থতার দিক থেকেও প্রথম অবস্থানে আছে যুক্তরাষ্ট্র (৪১ লাখ ১৯ হাজার ১৫৮ জন), দ্বিতীয় অবস্থানে আছে ভারত (৪০ লাখ ২২ হাজার ৪৯ জন), এবং তৃতীয় অবস্থানে আছে ব্রাজিল (৩৭ লাখ ২০ হাজার ৩১২ জন)।

গত বছরের ডিসেম্বরের শেষ দিকে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান থেকে করোনাভাইরাস সংক্রমণ শুরু হয়। এখন পর্যন্ত বাংলাদেশসহ বিশ্বের ২১৫টি দেশে ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে কোভিড-১৯। গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনা ভাইরাসের রোগী শনাক্ত হলেও প্রথম মৃত্যুর খবর আসে ১৮ মার্চ।

মানবকণ্ঠ/এইচকে






ads