‘করোনায় ৪৮ হাজারের বেশি মৃতদেহ পুড়িয়েছে চীন’

৫০ হাজার মানুষের মৃত্যুর খবর গোপন করেছে চীন
৫০ হাজার মানুষের মৃত্যুর খবর গোপন করেছে চীন - ফাইল ছবি

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ০৪ এপ্রিল ২০২০, ২০:১০,  আপডেট: ০৪ এপ্রিল ২০২০, ২১:৪৫

করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) প্রাদুর্ভাবের মাত্রা গোপন করেছে চীন। দেশটিতে প্রাণঘাতী এই ভাইরাসে অন্তত ৫০ হাজার মানুষের মৃত্যু হয়েছে। উহানে ৪৮ হাজার ৮০০ মৃতদেহ পোড়ানো হয়েছে। নিজ ভুখণ্ডে মৃত্যু ও আক্রান্তের সঠিক সংখ্যা চীন গোপন করেছে।

শনিবার (৪ মার্চ) যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাবশালী পত্রিকা ‘ওয়াশিংটন পোস্ট’ এক প্রতিবেদনে এ তথ্য প্রকাশ করে।

চীনের একটি সাময়িকী ক্যাক্সিনের বরাতে ওয়াশিংটন পোস্টের প্রতিবেদনে বলা হয়, উহানের হানকাউ নামের একটি শ্মশানে প্রতিদিন ১৯ ঘণ্টা ধরে মৃতদেহ সৎকার হয়েছে। মাত্র দুদিনে সেখানে অন্তত ৫ হাজার মানুষের মরদেহ পোড়ানো হয়।

এছাড়া অনলাইনে পোস্ট করা ছবি ব্যবহার করে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলো একটা হিসাব বের করেছে। এতে দেখা গেছে, গত ২৩ মার্চ থেকে মৃতদেহ সৎকার শেষে উহানে মৃতদেহের ছাই ভরা ৩ হাজার ৫০০ কলস ফিরে এসেছে প্রতিদিন। সে হিসেবে ৩ এপ্রিল পর্যন্ত ১২ দিনে উহানে ৪২ হাজার মানুষের মৃত্যুর তথ্য উঠে আসে।

রেডিও ফ্রি এশিয়ার বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়, উহানে ৮৮টি চুল্লিতে দিন–রাত মৃতদেহ পোড়ানো হয়। সেখানে ৪৮ হাজার ৮০০ মানুষকে পোড়ানো হয়েছে।

এদিকে চীন সরকার বলছে, এখন পর্যন্ত চীনের মূল ভূখণ্ডে ৮২ হাজার লোক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে তিন হাজার ৩০০ লোকের মৃত্যু হয়েছে।

তবে চীনের এ তথ্যের সঙ্গে একমত নন মার্কিন গোয়েন্দারাও। তাদের দাবি, চীন তথ্য গোপন করেছে এবং এর মাধ্যমে চীন গোটা বিশ্বকে ঝুঁকির মধ্যে ফেলে দিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের তিন জন গোয়েন্দা সম্প্রতি দেশটির প্রেসিডেন্টের কার্যালয় হোয়াইট হাউজে একটি গোপন প্রতিবেদন পাঠিয়েছেন। সেখানে তারা এ দাবি করেছে বলে খবর প্রকাশ করেছে দেশটির প্রভাবশালী সংবাদমাধ্যম ব্লুমবার্গ।

এছাড়া চীনে করোনায় আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা নিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও সন্দেহ প্রকাশ করেছেন। গত বুধবার ওয়াশিংটনে এক সংবাদ সমেল্লনে ট্রাম্প বলেন, চীনের পরিসংখ্যানে করোনায় আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা আমার মনে হয় কম করে দেখানো হয়েছে।

মানবকণ্ঠ/এসকে




Loading...
ads






Loading...