বিজয়ের মাসে ভাবনার ‘লাল মোরগের ঝুঁটি’


  • বিনোদন প্রতিবেদক
  • ০৮ নভেম্বর ২০২১, ২২:৩৫

আশনা হাবিব ভাবনা। এ সময়ের জনপ্রিয় অভিনেত্রী। দীর্ঘ ক্যারিয়ারে নানা চরিত্রে সাবলীল অভিনয় করে দর্শকদের হূদয়ে জায়গা করে নিয়েছেন তিনি। একাধারে তিনি মডেল, অভিনয় শিল্পী ও লেখিকা। শৈশব থেকেই সাংস্কৃতিক অঙ্গনের সঙ্গে পরিচয় এই অভিনেত্রীর। মাত্র দুই বছর বয়সেই ক্যামেরার সামনে দাঁড়ান। তার অভিনয় জীবন শুরু করেন ‘নট আউট’ নাটকের মাধ্যমে।

এটাই ছিল তার প্রথম টিভি নাটক। পরে তিনি একের পর এক টিভি ধারাবাহিকে কাজ করতে থাকেন। তবে ছোট পর্দার এই ব্যস্ত অভিনেত্রী আলোচনায় আসেন চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে। অনিমেষ আইচ পরিচালিত ‘ভয়ঙ্কর সুন্দর’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে ঢাকায় সিনেমায় নিজের একটা আলাদা পরিচিতি পান ছোট পর্দার অভিনেত্রী আশনা হাবিব ভাবনা। তিনি ভেবে চিন্তেই কাজ করেন। দীর্ঘ ক্যারিয়ারে বেশকিছু নাটকে অভিনয় করলেও সিনেমার সংখ্যা দুটি।

‘ভয়ঙ্কর সুন্দর’র পরে ভাবনা দ্বিতীয় সিনেমা ‘লাল মোরগের ঝুঁটি’তে অভিনয় করেন। দীর্ঘ সময় অপেক্ষার পর অবশেষে বিনা কর্তনে সেন্সর ছাড়পত্র পেল নূরুল আল আতিক পরিচলিত চলচ্চিত্র ‘লাল মোরগের ঝুঁটি’। গত রবিবার সেন্সর পায় সিনেমাটি। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন পরিচালক নিজেই। ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহে সিনেমাটি মুক্তি দেয়ার পরিকল্পনা রয়েছে নির্মাতার।

নূরুল আলম আতিক মানবকণ্ঠকে বলেন, ‘আমাদের দীর্ঘদিনের প্রতীক্ষার অবসান ঘটতে যাচ্ছে। সিনেমাটি আমরা অনেক বেশি মানুষকে দেখাতে চাই। স্বাধীনতার ৫০ বছর পূর্তিতে এটা আমাদের নিবেদন।’

নূরুল আলম আতিকের সিনেমা ‘লাল মোরগের ঝুটি’ একটি মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক ছবি। এই ছবিটিতে ভাবনাকে দেখা যাবে ভিন্নরূপে। এই সিনেমা নিয়ে জানতে চাইলে ভাবনা মানবকণ্ঠকে বলেন- ‘আমার দীর্ঘ ক্যারিয়ারে দ্বিতীয় ছবি, দ্বিতীয় সিঁড়ি। মুক্তিযুদ্ধ আমার পছন্দের বিষয়। আমি একজন বাঙালি অভিনয়শিল্পী। তাই এই অনুভূতি নিয়েই দর্শকের ভালোবাসা ও সম্মান নিয়ে সত্ভাবে কাজ করেছি— আমি এই মুহূর্তে দর্শকদের ভালোবাসা ও দোয়া চাই। প্রত্যাশা করছি সবাই সিনেমাটি দেখবেন। কথা দিচ্ছি দর্শক নিরাশ হবেন না।’

পাণ্ডুলিপি কারখানা প্রযোজিত সিনেমাটি ২০১৪-১৫ অর্থবছরে সরকারি অনুদান পায়। ২০১৬ সালে শুটিং শুরু হয়েছিল মুক্তিযুদ্ধের গল্পের এই সিনেমার। নানা চড়াই-উত্রাই পেরিয়ে চলতি বছরে সিনেমার শুটিং শেষ করে অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহে সেন্সর বোর্ডে জমা পড়ে সিনেমাটি।

পরিচালনার পাশাপাশি চলচ্চিত্রটির কাহিনী ও চিত্রনাট্য রচনা করেছেন নূরুল আলম আতিক। পাণ্ডুলিপি কারখানার ব্যানারে নির্মিত সিনেমায় আশনা হাবিব ভাবনা ছাড়াও বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করছেন— জ্যোতিকা জ্যোতি, লায়লা হাসান, আহমেদ রুবেল, অশোক ব্যাপারি, আশীষ খন্দকার, জয়রাজ, শিল্পী সরকার, ইলোরা গহর, দিলরুবা দোয়েল, স্বাগতা, শাহজাহান সম্রাট, দীপক সুমন, খলিলুর রহমান কাদেরী, সদ্য প্রয়াত অনন্ত মুনির, সৈকত, যুবায়ের, অনন্ত, মতিউল আলম, হাসিমুনসহ কুষ্টিয়া, টাঙ্গাইল এবং গৌরিপুর এলাকার সাধারণ মানুষ। আগামী ১০ ডিসেম্বর সিনেমাটি সারা দেশে মুক্তি দেয়ার পরিকল্পনা করছেন নির্মাতা।

ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই ভাবনা তার অভিনয়ের জাদু দিয়ে বেশ কিছু জনপ্রিয় ধারাবাহিক নাটক দর্শককে উপহার দিয়েছেন। এর মধ্যে রয়েছে-‘চৌধুরী ভিলা’, ‘অচেনা প্রতিবিম্ব’, ‘শূন্য সমীকরণ’, ‘চেনা মুখ অচেনা মুখ’, ‘জয় পরাজয়’, ‘সোনার সুতা’ প্রভৃতি। ভাবনা শুধু অভিনয় নিয়েই নয়, লেখালেখির সঙ্গেও জড়িত। একুশের বই মেলাতে ‘গুলনেহার’, ‘তারা’ ও ‘গোলাপী জমিন’ নামে তিনটি উপন্যাসও লিখেছেন তিনি। এছাড়াও প্রকাশ হয়েছে কবিতার বই ‘রাস্তার ধারের গাছটির কোনো ধর্ম ছিল না’।


poisha bazar

ads
ads