জামিন চাইতে আদালতে পরীমণি


  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ১০ অক্টোবর ২০২১, ১১:৪৪

মাদক মামলায় জামিন চাইতে আদালতে যাচ্ছেন চিত্রনায়িকা পরীমণি। রোববার (১০ অক্টোবর) ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে তিনি হাজির হবেন বলে জানিয়েছেন তার আইনজীবী নীলাঞ্জনা রিফাত সুরভি।

শনিবার (৯ অক্টোবর) বিকালে পরীমণির আইনজীবী বলেছিলেন, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের মামলায় রোববার আদালতে পরীমণির হাজিরার দিন ধার্য রয়েছে। আদালত তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল পর্যন্ত পরীকে জামিন দিয়েছিলেন। কয়েকদিন আগে মামলায় তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেছে সিআইডি। তাই পরীমণির জামিন চেয়ে আবেদন করা হবে।

এই মাদক মামলায় গত ৪ অক্টোবর তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির পরিদর্শক কাজী মোস্তফা কামাল আদালতে পরীমণিসহ তিনজনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করেন। অভিযুক্ত অন্যরা হলেন- কবির হোসেন এবং আশরাফুল ইসলাম দিপু। সেটির শুনানির জন্যই ১০ অক্টোবর দিন ধার্য করেছিলেন আদালত।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী আবদুল্লাহ আবু সাংবাদিকদের বলছেন, সাক্ষ্যপ্রমাণের ভিত্তিতেই এই মামলা নিষ্পত্তি হবে। পরীমণির আইনজীবী মজিবুর রহমান জানান, পরীমণির পক্ষে প্রয়োজনে তারা চার্জশিটের বিপরীতে হাইকোর্টে যাবেন।

সংশ্লিষ্ট মামলার সূত্রে জানা যায়, পরীমণি ২০১৬ সাল থেকে মাদকসেবন করতেন। এ জন্য বাসায় একটি ‘মিনিবার’ তৈরি করেন। সেখানে নিয়মিত ‘মদের পার্টি’ করতেন। চলচ্চিত্র প্রযোজক নজরুল ইসলাম রাজসহ আরো অনেকে তার বাসায় অ্যালকোহলসহ বিভিন্ন ধরনের মাদকের সরবরাহ করতেন ও পার্টিতে অংশ নিতেন।

পরীমণির বিরুদ্ধে দেয়া চার্জশিটে বলা হয়েছে, গ্রেফতার হওয়ার অনেক আগেই এই চিত্রনায়িকার মদ পানের লাইসেন্সের মেয়াদ শেষ হয়েছিল। তার বাসা থেকে জব্দ করা মাদক দ্রব্যের বৈধ কাগজপত্র ছিল না। মাদক বহনের কাজে ঋণের ৩০ লাখ টাকায় কেনা গাড়িটি ব্যবহার করতেন তিনি। বাসায় থাকা মাদকের সন্তোষজনক জবাবও দিতে পারেনি তিনি।

এর আগে গত ২৮ সেপ্টেম্বর পরীমণিকে তার আইফোন, হ্যারিয়ার গাড়ি, ল্যাপটপসহ জব্দকৃত ১৬টি আলামত ফেরত দেয়ার নির্দেশ দেন আদালত। ২৬ সেপ্টেম্বর মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির পরিদর্শক কাজী মোস্তফা কামাল দুটি জব্দ তালিকার মোট ১৬টি আলামত পরীমণিকে ফেরত দেয়ার সুপারিশসহ একটি প্রতিবেদন দাখিল করেন।

তার আগে ১৫ সেপ্টেম্বর ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে গাড়ি, ল্যাপটপ ও মোবাইলসহ ১৬টি জব্দ আলামত জিম্মায় চেয়ে আবেদন করেন পরীমণি। আদালত মালিকানা যাচাই করে তদন্ত কর্মকর্তাকে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন।

গত ৩১ আগস্ট ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশ শুনানি শেষে পরীমণির জামিন মঞ্জুর করেন। পরদিন গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় মহিলা কারাগার থেকে মুক্ত হন এই চিত্রনায়িকা।

এর আগে গত ৪ আগস্ট সন্ধ্যায় অভিযান চালিয়ে পরীমণিকে তার বনানীর বাসা থেকে আটক করে র‌্যাব। পরদিন ৫ আগস্ট বিকালে এই নায়িকা, চলচ্চিত্র প্রযোজক রাজ ও তাদের ২ সহযোগীকে কালো একটি মাইক্রোবাসে বনানী থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। এরপর বাদী হয়ে বনানী থানায় পরীমণি ও তার সহযোগী দীপুর বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করে র‌্যাব। সেই মামলায় পরীমণিকে আদালতে হাজির করলে প্রথমে চার দিনের রিমান্ড ও পরে আরো দুই দফায় তাকে রিমান্ডে নেয়া হয়।

এর আগে সাভারের বোটক্লাবকাণ্ডে ব্যাপকভাবে আলোচিত-সমালোচিত হন এই ঢালিউড নায়িকা।


poisha bazar

ads
ads