প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে আসছে ‘মুজিব আমার পিতা’


  • অনলাইন ডেস্ক
  • ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:১৮

বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিন উপলক্ষে দেশের প্রথম পূর্ণদৈর্ঘ্য অ্যানিমেশন চলচ্চিত্র ‘মুজিব আমার পিতা’র প্রিমিয়ার শো অনুষ্ঠিত হবে। রোববার (২৬ সেপ্টেম্বর) তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক চলচ্চিত্রটির টেকনিক্যাল শো উপলক্ষে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান। রাজধানীর বসুন্ধরা সিটি কমপ্লেক্সের স্টার সিনেপ্লেক্সে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

প্রধানমন্ত্রীর লেখা ‘শেখ মুজিব আমার পিতা’ গ্রন্থ অবলম্বনে তৈরি নির্মিত পূর্ণদৈর্ঘ্য দ্বিমাত্রিক (টু-ডি) এই অ্যানিমেশন চলচ্চিত্রটি ১ অক্টোবর সারাদেশে মুক্তি পাবে। এর আগে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) ঢাকার বসুন্ধরা সিটির স্টার সিনেপ্লেক্সে প্রিমিয়ার শো হবে।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, মুজিবশতবর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ নির্মাণ করেছে এ অ্যানিমেশন চলচ্চিত্রটি। সহযোগিতায় রয়েছে বিএমআইটি সল্যুউশন লিমিটেড এবং প্রোল্যান্সার স্টুডিও। প্রিমিয়ার শোতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ অ্যানিমেশন চলচ্চিত্রটি উদ্বোধন করবেন।

সংবাদ সম্মেলনে প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, নতুন প্রজন্মের শিশু-কিশোরদের কাছে বঙ্গবন্ধুর জীবনের গল্প পৌঁছে দেওয়া আমাদের দায়িত্ব। তাদের জানানোর জন্য অ্যানিমেশন চলচ্চিত্রের চেয়ে ভালো আর কোনো মাধ্যম হতে পারে না। নির্মাতারা বঙ্গবন্ধুর ছেলেবেলা এ অ্যানিমেশন চলচ্চিত্রে সুনিপুণভাবে তুলে ধরেছেন। বঙ্গবন্ধুর সম্পর্কে তার সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চেয়ে আর কেউ ভালো বলতে পারবে না। এজন্য চলচ্চিত্রটি শেখ হাসিনার লেখা বই অবলম্বনে নির্মাণ হয়েছে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমরা অ্যানিমেশন শিল্পকে এগিয়ে নিতে চাই। কারণ বর্তমান বিশ্বে অ্যানিমেশন শিল্পের বাজার ৩০০ বিলিয়ন ইউএস ডলার। অ্যানিমেশন চলচ্চিত্রে এবং অ্যানিমেশন শিল্পে দেশের তরুণদের উদ্বুদ্ধ করতে এই চলচ্চিত্র গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী বলেন, বিশ্বের অ্যানিমেশনের বাজারে প্রবেশ এবং অ্যানিমেশন শিল্পে আমাদের শিক্ষার্থীদেরকে দক্ষ করে গড়ে তুলতে আইসিটি বিভাগের উদ্যোগে দেশের ৪০টি বিশ্ববিদ্যালয়ে অ্যানিমেশন ল্যাব প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। অ্যানিমেশনের বাজারে আমাদের অবস্থান সুদৃঢ় করতে দেশের প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়ে অ্যানিমেশন ল্যাব প্রতিষ্ঠা করা হবে।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সিআরআই-এর কো-অর্ডিনেটর তন্ময় আহমেদ, চলচ্চিত্র নির্মাতা সোহেল মুহাম্মদ রানাসহ অ্যানিমেশনের সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গ। সবশেষে প্রতিমন্ত্রী অ্যানিমেশন চলচ্চিত্র সম্পর্কে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন।

নির্মাতা প্রতিষ্ঠান প্রোলেন্সার স্টুডিও থেকে নির্মিত চলচ্চিত্রটি পরিচালনা করেছেন সোহেল মোহাম্মদ রানা। অ্যানিমেশন কো-অর্ডিনেটর ও ক্যারেক্টর ডিজাইনার হিসেবে কাজ করেছেন রাফিউজ্জামান রিদম।

অ্যানিমেশন চলচ্চিত্রটি নির্মাণে প্রায় দুই বছর সময় লেগেছে। গবেষণা ও চিত্রনাট্য প্রস্তুতের পর প্রোডাকশনের কাজ শুরু হয় গত বছরের জানুয়ারিতে। চলচ্চিত্রটির জন্য প্রায় ৩০ হাজার ফ্রেম আঁকতে হয়েছে। প্রত্যাশামাফিক না হওয়ায় অনেক দৃশ্য দু-তিনবার করেও আঁকতে হয়েছে। এক শর বেশি কলাকুশলীর শ্রমে নির্মিত হয়েছে ‘মুজিব আমার পিতা’। গত ১৬ সেপ্টেম্বর সেন্সর ছাড়পত্র পায় চলচ্চিত্রটি।

মানবকণ্ঠ/এমএইচ



poisha bazar

ads
ads