বলিউড তারকাদের অন্ধকার জীবন

রেজাউল করিম খোকন

বলিউড তারকাদের অন্ধকার জীবন

poisha bazar

  • ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৮:১৪

করোনা মহামারীর প্রকোপে নিরুত্তাপ বলিউডে গত কয়েক মাস ধরে মোটামুটি ভালো উত্তাপ ছড়াচ্ছে অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের রহস্যজনক মৃত্যু পরবর্তী ঘটনাপ্রবাহ। সেই উত্তেজনাপূর্ণ ঘটনাপ্রবাহ, যার কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছে একটি নাম, রিয়া চক্রবর্তী। সুশান্তের জীবনের শেষ দিনগুলোতে যে ছিল তার সবচেয়ে কাছের, খুবই ঘনিষ্ঠ একজন। তারা দু’জন এক ছাদের নিচে বসবাস করছিলেন। এর আগে সুশান্তের জীবনে আরো বেশ ক’জন নারীর আগমন ঘটলেও মাত্র অল্প দিনেই রিয়ার সঙ্গে অনেক গভীর সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছিলেন বলিউডের সম্ভাবনাময় সুদর্শন এই অভিনেতা।

বিভিন্ন জায়গায় রিয়াকে বগলদাবা করে ঘুরে বেড়াতেন সুশান্ত সিং রাজপুত। তার দামি বিলাসবহুল ফ্ল্যাটে নিয়মিত যাতায়াত ছিল উঠতি এই নায়িকার। তারা একসঙ্গে থাকতেন সেখানে। তবে রহস্যজনক মৃত্যুর কয়েকদিন আগে রিয়ার সঙ্গে সুশান্তের নানা বিষয়ে মতবিরোধ, ঝগড়া, মনোমালিন্য হলে ফ্ল্যাট ছেড়ে চলে এসেছিলেন রিয়া। তেমন প্রেক্ষাপটে সুশান্তের আত্মহত্যার পর স্বাভাবিকভাবে তার ঘনিষ্ঠ বান্ধবী রিয়ার ব্যাপারে সবাই আলাদাভাবে কৌত‚হলী হয়ে ওঠেন। আত্মহত্যার পূর্ববর্তী ঘটনাপ্রবাহ বিশ্লেষণ করে অনেকেই সুশান্তের বান্ধবী এই চিত্রনায়িকাকে নানাভাবে অভিযুক্ত করতে থাকেন। নানা অসুন্ধানে একে একে বেরিয়ে আসতে থাকে চাঞ্চল্যকর অনেক তথ্য। প্রেমিকা হিসেবে সুশান্তের জীবনে জড়ালেও রিয়ার কর্মকাণ্ডে অনেক অসঙ্গতি, সন্দেহজনক আচরণের প্রমাণ খুঁজে পাওয়া যায়। মিডিয়াগুলো সরব হয়ে ওঠে ২০১৩ সালে বলিউডে পা রাখা ২৮ বছর বয়সী সুন্দরী তন্বী অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তীকে নিয়ে।

৭ বছরের ক্যারিয়ারে ৬টি বলিউডি সিনেমায় অভিনয় করা এই সুন্দরী অভিনেত্রী এর আগে কোনোভাবেই লাইম লাইটে কিংবা আলোচনায় আসতে পারেননি। ‘মেরি ড্যাড কী মারুতি’ ছবিটি দিয়ে হিন্দি চলচ্চিত্রে তার অভিষেক হয়েছিল। প্রথম ছবিতে সম্ভাবনার আলো ছড়িয়েছিলেন রিয়া। সম্ভাবনাময় নতুন মুখের অভিনেত্রী পুরস্কারের জন্য মনোনয়নও পেয়েছিলেন। এরপর ‘সোনালী ক্যাবল,’ ‘দোবারা - সি ইয়্যুর ইডিল’, হাফ গার্ল ফ্রেন্ড’, ‘ব্যাংক চোর’, ‘জালেবি ছবিগুলোতে অভিনয় করেছেন রিয়া। গø্যামারাস সুন্দরী আবেদনময় অভিনেত্রী হিসেবে সর্বশেষ ‘জালেবি’ ছবিতে তার পারফরমেন্সে চমক থাকলেও সাড়া জাগাতে পারেননি। অভিনয়ে ব্যস্ততা বাড়াতে না পারলেও সুশান্ত সিং রাজপুতের সঙ্গে বন্ধুত্ব হওয়ার পর থেকে তাকে নিয়ে মেতে উঠেছিলেন রিয়া। গত বছরের এপ্রিলে এক পার্টিতে তাদের দু’জনের প্রথম দেখা এবং সেই থেকে ধাপে ধাপে দ্রুতই খুব কাছাকাছি চলে এসেছিলেন তারা। সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর তার পরিবারের পক্ষ থেকে আনীত অভিযোগে আত্মহত্যায় প্ররোচণাকারী হিসেবে রিয়ার নামটি উল্লেখ করা হলে সবাই নড়েচড়ে বসেন। সুশান্তের সঙ্গে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা সৃজনের যৌথ ব্যবসা শুরু করেছিলেন রিয়া।

সেই সুবাদে নিজের ছোট ভাইকে ব্যবসায় যুক্ত করেছিলেন সুশান্তের বান্ধবী। সুকৌশলে বেশ বড় অঙ্কের অর্থ হাতিয়ে নেন ভাই বোন মিলে। এ নিয়ে কথা বলতে চাইলে নানাভাবে সুশান্তকে চাপের মধ্যে রাখার চেষ্টা করেন তারা। মাদক সেবনে উদ্বুদ্ধ করেন। রিয়া সুশান্তকে নিয়ে নিয়মিত গাঁজার আসর বসাতেন ফ্ল্যাটে। যেখানে রিয়ার ছোট ভাইটিও থাকত। মাদক সরবরাহকারীদের সঙ্গে রিয়ার ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ ছিল। সুশান্তকে কব্জায় রাখতে রিয়া সব সময় তাকে ড্রাগস নিতে উৎসাহিত করতেন। এভাবেই ক্রমেই চরম মানসিক অবসাদ, হতাশায় নিমজ্জিত হন এই সম্ভাবনাময় অভিনেতা। সবশেষে, আত্মহত্যায় নিজের মূল্যবান জীবনের অবসান ঘটান। অনেক আলোচনা, সমালোচনা, বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হন রিয়া।

বলিউডের সুন্দরী উঠতি নায়িকাটির বিরুদ্ধে অভিযোগের তীর উঠতে থাকায় নায়িকা থেকে খলনায়িকায় পরিণত হয়েছেন। সম্প্রতি মাদক রাখা এবং সুশান্তকে সরবরাহ করার অভিযোগে নারকোটিকস বিভাগের মামলায় রিয়া চক্রবর্তীকে এবং তার ভাইকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। এর আগে টানা বেশ কয়েকদিন তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। বহুল আলোচিত ঘটনার খলনায়িকা হিসেবে বলিউডে এই উঠতি অভিনেত্রীর গ্রেফতারের পর নতুন করে আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে। রিয়া চক্রবর্তী অভিনীত ‘চেহরে’ ছবিটি বর্তমানে মুক্তিপ্রতীক্ষায় রয়েছে। যেখানে তার সহশিল্পী হিসেবে রয়েছেন অভিতাভ বচ্চন, ইমরান হাশমির মতো তারকারা। করোনা পরিস্থিতির কারণে রিয়া অভিনীত ‘চেহরে’ ছবিটি বর্তমানে বাক্সবন্দি হয়ে আছে।

বাঙালি সেনা কর্মকর্তা বাবার মেয়ে রিয়া চক্রবর্তীর জন্ম ব্যাঙ্গালুরুতে। মডেলিং করেছেন একসময়ে। এম টিভিতে ভিজে হিসেবেও কাজ করেছেন। এভাবেই গ্ল্যামার জগতের সঙ্গে জড়িয়েছিলেন তিনি নিজেকে। নায়িকা হিসেবে রুপালি পর্দায় বিচরণ করলেও ঘটনাপ্রবাহ বাস্তব জীবনে রিয়াকে খলনায়িকা হিসেবে পরিচিত করেছে নতুনভাবে।
গ্রেফতারের পর জিজ্ঞাসাবাদে পুুলিশের কাছে ইতোমধ্যে নতুন নতুন চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়ে দারুণ চমক সৃষ্টি করেছেন তিনি। যা বলিউডের অনেক তারকার ভিত কাঁপিয়ে দিতে আরম্ভ করেছে। রিয়া তার সঙ্গে মাদক সেবনে এবং তার কাছ থেকে নিয়মিত মাদক নেয়া বেশ কয়েকজন বলিউড নায়িকার নাম বলেছেন পুলিশের কাছে। এর মধ্যে তন্বী সুন্দরী অভিনেত্রী সারা আলি খান ও রাকুল প্রীত সিং এর নাম আসায় সবাই নড়েচড়ে বসতে শুরু করেছেন। মাদকের মামলায় নিজে ফেঁসে গিয়ে রিয়া এখন বলিউডের অন্যান্য মাদকসেবী অভিনেতা অভিনেত্রীর মুখোশ উন্মোচন করে দিচ্ছেন। ফলে বলিউডের নামি দামি জনপ্রিয় প্রতিষ্ঠিত অনেক তারকার মনে রিয়া আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছে।

কখন কার নাম পুলিশের কাছে বলে দেন তিনি সেই আতঙ্কের সময় পার করছেন তাদের কেউ কেউ। কখন কোন অভিনেত্রী তার কাছ থেকে মাদক নিয়ে সেবন করেছেন তেমন তথ্য দিয়েছেন রিয়া জিজ্ঞাসাবাদের সময়। জিজ্ঞাসাবাদে দেয়া তথ্য অনুযায়ী সেই সব বলিউড তারকা খবর চাউর হতেই অনেক অভিনেতা-অভিনেত্রীর ব্যক্তি ইমেজ ভীষণভাবে ক্ষুণœ হয়েছে। জীবনের অন্ধকার দিক উন্মোচিত হওয়ায় তাদের পর্দা ইমেজও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে প্রকান্তরে। বলিউডের নবাব কন্যা হিসেবে আলোচিত সারা আলি খান গত বেশ কয়েকদিন ধরে মিডিয়াকে এড়িয়ে চলছেন বলে জানা গেছে। মাদককাণ্ডে অভিযুক্ত হয়ে জেলে যাওয়া অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তীর জবানবন্দিতে দেয়া তথ্যকে আবোল তাবোল মিথ্যে মনগড়া বলছেন তিনি বিভিন্নজনকে। ওদিকে রাকুল প্রীত সিংও রিয়ার দেয়া জবানবন্দির তথ্য মিডিয়ায় প্রকাশের ব্যাপারে আদালতের নিষেধাজ্ঞা চেয়ে আবেদন করেছেন।

সুশান্ত সিং রাজপুতের বেদনাদায়ক মৃত্যুর ঘটনা তদন্ত করতে গিয়ে বলিউডের নানা চাঞ্চল্যকর অজানা বিষয় বেরিয়ে আসতে শুরু করেছে। যার মাধ্যমে আলো ঝলমল গø্যামার জগতের অন্ধকার দিকটি ফুটে উঠতে শুরু করেছে, তা বলাই বাহুল্য। মাদকসেবী এবং মাদক সরবরাহকারী হিসেবে আটক বলিউড নায়িকা রিয়া চক্রবর্তীর পর পুলিশের জালে কোন তারকা ধরা পড়তে যাচ্ছেন, তা জানতে উদগ্রীব হয়ে আছেন সবাই। রিয়ার আটকের আগে বলিউডের বিদ্রোহীকন্যা, ঠোঁটকাটা স্বভাবের নায়িকা কংগনা রানাওত বেশ কয়েকজন নামি দামি জনপ্রিয় তারকা অভিনেতা, চিত্রনির্মাতার নাম সরাসরি উল্লেখ করে তাদের বিরুদ্ধে মাদক সেবনের অভিযোগ এনেছেন।

একসময়ে কঙ্গনা নিজেকে মাদকসেবী হিসেবে কয়েকটি সাক্ষাৎকারে অকপটে স্বীকার করলেও এখন তিনি বলিউডের বেশিরভাগ তারকাই কম-বেশি মাদকসেবী হিসেবে উল্লেখ করেছেন, মাদকের নেশায় ডুবে অনেক অভিনেতা অভিনেত্রীর ক্যারিয়ার ধ্বংস হয়ে গেছে বলে জানিয়েছেন কংগনা। তার অপ্রিয় সত্য ভাষণে বলিউডের অনেকেই চটেছেন। মুম্বাই শহরকে পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীর এর সঙ্গে তুলনা করে মহারাষ্ট্রের ক্ষমতাসীন শিবসেনা-কংগ্রেস কোয়ালিশন সরকারের রাঘববোয়াল নেতাদের রোষাণলের শিকার হয়েছেন গ্যাংস্টার গার্ল কঙ্গনা রানাওত।

মানবকণ্ঠ/এইচকে





ads