‘গান নিয়ে আমার স্বপ্ন অনেক বড়’

নুজহাত সাবিহা পুষ্পিতা
নুজহাত সাবিহা পুষ্পিতা

poisha bazar

  • অচিন্ত্য চয়ন
  • ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:৩২

নতুন প্রজন্মের জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী নুজহাত সাবিহা পুষ্পিতা। স্কুলের গণ্ডি না পেরুতেই প্রকৃতিপ্রদত্ত সুরেলাকণ্ঠ দিয়ে ২০১৫ সালে জিতে নেন চ্যানেল আই ক্ষুদে গানরাজের পঞ্চম আসরে সেরার খেতাব। মোহনীয় সেই কণ্ঠ দিয়ে দর্শক-শ্রোতার হৃদয় কেড়ে নিয়েছে পুষ্পিতা। সম্প্রতি এই শিল্পী মাথায় ঝলমলে মুকুট পরার পাঁচ বছর পার করলেন। বর্তমান ব্যস্ততা ও গানজীবন নিয়ে কথা হয় তার সঙ্গে। কথা বলেছেন- অচিন্ত্য চয়ন

চ্যাম্পিয়ন হওয়ার ৫ বছরের অনুভূতি ও প্রাপ্তি নিয়ে বলুন
আসলে যেই দিনটি আমি চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করি- সেই দিনটি আমার জন্য অনেক বেশি স্মরণীয়। ভাল লাগার একটি দিন। ৫ বছর পার হলো চ্যাম্পিয়ন হওয়ার! খুবই ভাল লাগছে, যা ভাষায় ব্যক্ত করা সম্ভব না । কিংবদন্তি শিল্পী শ্রদ্ধেয় রুনা লায়লা ম্যাম নিজ হাতে আমাকে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার মুকুটটি পরিয়ে দিয়েছিলেন! শুধু সেই স্মৃতি মনে পড়ছে। এ উপলক্ষে আমার ইউটিউব চ্যানেল Pushpita Official এ ক্ষুদে গানরাজের পুরো জার্নির কিছু প্রিয় মুহূর্ত শেয়ার করেছি। আর প্রাপ্তির তো আসলে কোনো শেষ নেই। দর্শক-শ্রোতাদের ভালবাসাই বড় প্রাপ্তি। প্রাপ্তি শুরু হয়েছিল উপমহাদেশের কিংবদন্তি শিল্পী শ্রদ্ধেয় রুনা লায়লা ম্যাম এর হাত থেকে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার মুকুটটি মাথায় পড়ে। ক্ষুদে গানরাজ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর অনেক কিছুই পেয়েছি। তবে আমার কাছে দর্শক-শ্রোতাদের ভালোবাসাই শ্রেষ্ঠ প্রাপ্তি।

নতুন কী কাজ করছেন?
বর্তমানে যে মহামারী পরিস্থিতি চলছে তাতে কিছুটা হলেও মানুষকে সচেতন করার জন্য করোনা সচেতনতামূলক একটি গান প্রকাশ করেছি আমার ইউটিউব চ্যানেলে । গানটির কথা লিখেছেন আমার বাবা এবং সুর করেছি আমি নিজেই। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে একটি গান করেছি, যা জাতীয় শোক দিবসে প্রকাশিত হয়েছে। এই গানটিও আমার বাবা লিখেছেন এবং আমি সুর করেছি। যেহেতু আমার বেসিক হচ্ছে নজরুল সঙ্গীত, নজরুল সঙ্গীত নিয়ে একটি অডিও ও ভিডিও এ্যালবাম করার ইচ্ছা আছে। কাজও শুরু করেছি। মাকে নিয়ে একটি গানের রেকর্ডিংও শুরু হয়েছে । খুব শিগগিরই রিলিজ হবে। এছাড়া বিভিন্ন টেলিভিশন চ্যানেলে নিয়মিত প্রোগ্রাম করছি।

বাংলা গানের সার্বিক অবস্থা নিয়ে বলুন।
আমি মনে করি বর্তমানে খুব ভাল ভাল গান হচ্ছে- যা দর্শক-শ্রোতাদের মন জয় করতে সক্ষম হচ্ছে। এজন্য আমি খুবই আনন্দিত বোধ করি। অনেক প্রতিভাবান গীতিকার, সুরকার, সঙ্গীত পরিচালক ও শিল্পীরা বের হয়ে আসছেন।

অগ্রজরা আপনার শুরুতে কিভাবে সহযোগিতা করেছেন?
অগ্রজের সহযোগিতাতেই অনুজের পথচলা। তাদের সহযোগিতা সবসময়ই পেয়ে আসছি। আশা করি ভবিষ্যতেও এই সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে?

পাঁচ বছর আগের পুষ্পিতা- আর আজকের পুষ্পিতা নিয়ে বলুন
প্রথমেই চ্যানেল আই এর নিকট জানাই অনেক অনেক কৃতজ্ঞতা, কেননা চ্যানেল আই এর জন্যই আমি একটি প্ল্যাটফর্ম পেয়েছি। আমি যখন চ্যাম্পিয়ন হই। তখন মনে হয়েছে আমার শেখার মাত্র শুরু হলো। একটু তো পার্থক্য থাকেই? পাঁচ বছর আগে আমাকে কেউ চিনতেন না, আমার গান দর্শক শ্রোতাদের মাঝে পৌঁছাতে পারতাম না! কিন্তু এখন একটি পরিচিতি আছে। আমার কাছে মনে হয় যে দায়িত্বটা আরো বেড়ে গিয়েছে। দর্শক শ্রোতা আমার কাছ থেকে আরো ভাল কিছু গান আশা করেন।

আপনার প্রথম ও প্রিয় গান নিয়ে কিছু বলুন?
জীবনের প্রথম গানটি হচ্ছে একটি ছড়াগান, যা খালামনি শিখিয়েছিলেন। আর প্রিয় গানের তালিকা আসলে দীর্ঘ। বিশেষভাবে কোনো একটি গান বাছাই করা সম্ভব না!

আপনার এমন কোনো স্মৃতি আছে যা বেদনা দেয়?
মহান আল্লাহর রহমতে আমার আসলে সেরকম কোনো বেদনাদায়ক স্মৃতি নেই, এইজন্য আল্লাহর নিকট অজস্র কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করি। আমি যা চেয়েছি কিংবা যা পাওয়ার জন্য চেষ্টা করেছি, সবই পেয়েছি। এভাবেই যেন আল্লাহ আমার সব মনের আশা পূরণ করেন- সেই প্রার্থনাই করি।

আপনার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা কী?
গান নিয়ে আমার স্বপ্নটা অনেক বড়। সবেমাত্র ৫ বছর হয়েছে মিডিয়াতে এসেছি। অনেক কাজ বাকি। তবে সবার আগে একজন ভাল মানুষ হতে চাই। দেশের মানুষের জন্য কিছু করতে চাই। অনেক বড় শিল্পী হতে চাই, এমন কিছু গান করতে চাই যে গানগুলো মানুষের হƒদয় ছুঁতে পারবে এবং ইচ্ছা আছে একজন কম্পোজার হওয়ার।

গানের বাহিরে কিছু করার চিন্তা আছে কী?
গানের বাহিরে লেখাপড়া চালিয়ে যাচ্ছি। একজন ইঞ্জিনিয়ার হওয়ার স্বপ্ন দেখি। দেশের সেবায় নিয়োজিত হতে চাই। গানের পাশাপাশি উপস্থাপনা চালিয়ে যেতে চাই।

বাংলা গানের ভবিষ্যৎ নিয়ে বলুন
আমি মনে করি বাংলা গানের ভবিষ্যৎ খুবই উজ্জ্বল। নিজেদের মাতৃভাষা বাংলা প্রতিষ্ঠা করার জন্য পৃথিবীতে একমাত্র বাঙালি জাতি প্রাণ দিয়েছে? সেই দৃষ্টিকোণ থেকে বাংলা গানের ভবিষ্যৎ নিঃসন্দেহে খুবই উজ্জ্বল। এছাড়া বর্তমানে তরুণ প্রজন্মের শিল্পীরা বাংলা গানের পেছনে যথেষ্ট পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। আমরা অনেক অসাধারণ বাংলা গান পাচ্ছি এবং ভবিষ্যতেও পাবো- সেই প্রত্যাশা করি।

পরের প্রজন্মকে কিছু বলুন
পরের প্রজন্মকে বলতে চাই বেশি বেশি বাংলা গান শুনতে হবে। বাংলা গান নিয়ে এগিয়ে আসতে হবে এবং নিজস্ব সংস্কৃতিকে আঁকড়ে ধরে থাকতে হবে।

মানবকণ্ঠ/এইচকে





ads







Loading...