‘আমি ভবিষ্যৎ নিয়ে খুব একটা ভাবি না’

মানবকণ্ঠ
প্রীতম আহমেদ

  • ১৪ আগস্ট ২০২০, ১৪:২০,  আপডেট: ১৪ আগস্ট ২০২০, ১৪:২৮

প্রীতম আহমেদ সংগীতশিল্পী হিসেবেই সমাদৃত। নিজের গানের মডেলিংসহ নাটকেও অভিনয়ও করেছেন এই শিল্পী। পাশাপাশি তিনি কবি ও সমাজকর্মী, তিনি সংগীতচর্চার পাশাপাশি মানবাধিকার ও সমাজসংস্কার নিয়ে কাজ করেন। আজকে আমাদের সঙ্গে থাকছেন প্রীতম আহমেদ, সাক্ষাৎকার নিয়েছেন সাইফুল ইসলাম

স্বাগত, কেমন আছেন? কেমন আছে ‘মেঘ ও রোদ্দুর’?
আমি ভালো আছি। ওরাও ভালো আছে।

বালিকা থেকে কার জন্য, এই দীর্ঘ সময়ের পথচলা এবং চলমান পথের প্রীতম আহমেদের সম্পর্কে জানাবেন কি?
আমি চেষ্টা করেছি আমার বেঁচে থাকার সময়টাকে গানের কথা সুরে ধারণ করার জন্য। ২০/৫০ বছর পর যদি কেউ গানগুলো শোনে সে যেন আমার সময়টায় সঙ্গীত কেমন ছিল, আমাদের জীবন ভাবনা কেমন ছিল সেটা বুঝতে পারে। সঙ্গীত জীবনকাল অনেক বড়, মাত্র ২১ বছরের ক্যারিয়ারে একটা দেশের সঙ্গীতে তেমন একটা অবদান রাখা যায় না। চেষ্টা করছি, হয়তো আরো পরিপক্ব হলে কাজের মান ও বাড়বে। হয়তো শেষ বয়সে হলেও কিছু ভালো কাজ রেখে যেতে পারব।

সংগীতশিল্পী, কবি, সমাজকর্মী। একজন ব্যক্তি প্রীতম আহমেদকে অভিনেতা বললে কি ভুল হবে? অন্তঋণ ও হেলমেট এর অভিজ্ঞতা বলবেন কি?
আমি নিয়মিত অভিনয় করছি না তাই সৌখিন অভিনেতা বলা যেতে পারে। নিয়মিত হবার ইচ্ছে থাকলেও অভিনয়ের পারিপার্শ্বিক পরিবেশ সব সময় অনুক‚লে থাকছে না। আর যেহেতু অভিনয়টা আমার পেশা নয় তাই এই ক্যারিয়ারের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নিয়ে কিছু বলা মুশকিল। হেলমেট এর অভিজ্ঞতা ভালো, আমার মনে হয় পরিচালক এর সাপোর্ট পেলে আমি অভিনয় করার চেষ্টা করতে পারব।

শোনো যাচ্ছে চলচ্চিত্রও নির্মাণ করছেন, কোন ধাঁচের চলচ্চিত্র আমরা আপনার কাছ থেকে পেতে যাচ্ছি?
আমি চলচ্চিত্র নির্মাণ করব না, তবে নিয়মিত প্রযোজনা করার ইচ্ছে আছে। কিন্তু যে মুহূর্তে সব গুছিয়ে শুরু করতে যাচ্ছিলাম তখনই করোনা শুরু হয়েছে। সবকিছু স্বাভাবিক হলে আবার সব শুরু করব।

‘জন্মদাগ; কবিতা ও গান’ নিয়ে কবি কিছু বলবে কি?
আমার লেখা গান কবিতার সংকলন এটা। আরো লেখা হচ্ছে। হয়তো আবার আরো একটা বই ছাপা হবে। লেখালেখির ধারাবাহিকতা থাকবে।

প্রীতম আহমেদ একমাত্র শিল্পী যিনি কোনো গান নাটক বা গানের কথাসহ কোনো কন্টেন্টই কারো কাছে বিক্রি করেননি, বরং এ নিয়ে মামলা করেছেন একটি বহুজাতিক প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে। একজন শিল্পীর সৃষ্টি বাঁচিয়ে রাখতে এবং ভবিষ্যতের জন্য বিষয়টি কতখানি জরুরি বলে মনে করেন?
একজন শিল্পীর নিজস্বতা সাথে তার শিল্পকর্মগুলোও জড়িত। আপনারা জানলে অবাক হবেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ মার্চের ভাষণসহ অনেক ভাষণ আমাদের রাষ্ট্রীয় সম্পদ হলেও এর কপিরাইট আমাদের কাছে নেই!!! অযত্নে অবহেলায় থাকলে যে কোনো শিল্প বা কর্ম অন্যেরা দখল করে নেন। সেটা যে যত বড় ক্ষমতাবান মানুষের সৃষ্টিই হোক না কেন।

কি আসছে দর্শকশ্রোতা ও পাঠকদের জন্য?
আমার ক্যারিয়ার ২১ বছরে পা দেবে এই নভেম্বরে। বিগত সময়ের ২১টি গান রিলিজ করছি ধাপে ধাপে। আজ রিলিজ করেছি দ্বিতীয় গান এই শহরে। এভাবে চলতে থাকবে নভেম্বর পর্যন্ত।

প্রীতম আহমেদের আগামীর চিন্তা?
আমি ভবিষ্যৎ নিয়ে খুব একটা ভাবি না। সুস্থ থাকতে চাই এটাই বড় কথা।

মানবকণ্ঠ/এইচকে



poisha bazar

ads
ads