অপূর্বর ডিভোর্স : তৃতীয় কাউকে জড়ালে আইনগত পদক্ষেপ

মানবকণ্ঠ
- ছবি : সংগৃহীত

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১৮ মে ২০২০, ১৬:৩৯

জনপ্রিয় অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্বর ৯ বছরের সংসার ভেঙে গেছে। তার ডিভোর্সের মধ্যে ‍তৃতীয় কাউকে টেনে গুজব ছড়ানো হচ্ছে বলে দাবি করেছেন অপূর্ব। সেই গুজবে উঠে এসেছে জনপ্রিয় অভিনেত্রী তানজিন তিশার নাম। যিনি অপূর্বর সঙ্গে বেশ কিছু দর্শকপ্রিয় নাটকে অভিনয় করেছেন।

অপূর্বর সংসার ভাঙার মধ্যে তাকে টেনে আনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন এই অভিনেতা। অপূর্ব হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, তাদের ডিভোর্সে তৃতীয় কাউকে জড়ালে তিনি আইনগত পদক্ষেপ নেবেন।

রবিবার গভীর রাতে নিজের ফেসবুকে একটা স্ট্যাটাস দিয়ে এই হুঁশিয়ারি দেন বহু দর্শকপ্রিয় নাটকের এই অভিনেতা। সেই স্ট্যাটাসে অপূর্ব লেখেন, ‘ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে গসিপ করা এবং তীর্যক, মিথ্যা বানোয়াট মন্তব্য করে আমাদের কষ্ট বাড়িয়ে দেয়ার মতো খারাপ কাজগুলো থেকে সবাই বিরত থাকবেন এবং এর মধ্যে রসালো কোনো গল্প তৈরি করে সংবাদ করার চেষ্টা করবেন না, প্লিজ।’

অপূর্ব লেখেন, ‘অত্যন্ত সম্মানের সঙ্গে জানাচ্ছি, আমি এবং আমার স্ত্রী অদিতি অত্যন্ত শান্তিপূর্ণ সমাধানের মধ্যদিয়ে আমাদের সম্পর্কের আইনগত ভাবে ইতি টেনেছি। কোনও সংবাদ মাধ্যম এই ব্যাপারটাতে তৃতীয় কাউকে জড়িয়ে কোনো ধরনের ভুল সংবাদ প্রকাশ করলে আমি তাদের বিরুদ্ধে আইসিটি অ্যাক্টে আইনগত ব্যবস্থা নিব। অলরেডি প্রকাশিত কিছু সংবাদের লিংক আমি সংগ্রহ করেছি।’

অপূর্ব আরও লেখেন, ‘এখানে আরো উল্লেখ করতে চাই যে, আমি অদিতিকে সম্মান করি এবং আজীবন করব। সুতরাং কোনোভাবেই অদিতিকে অসম্মান করে তার পাশে অন্য কারো নাম আমি সহ্য করব না। ভুলে যাবেন না, অদিতি এখন আইনগত ভাবে আমার স্ত্রী না থাকলেও সে আজীবন আমার সন্তানের মা।’

তবে সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন প্ল্যাটফরমে এমন খবর ছড়ালেও বিভিন্নভাবে খোঁজ নিয়ে তানজিন তিশার সংশ্লিষ্টতা কোনোভাবেই পাওয়া যায়নি। এদিকে এমন গুজবে কান না দিতে আহ্বান জানিয়েছেন তানজিন তিশা। এমনকি গুজব যারা ছড়াবেন তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেবেন বলেও হুমকি দিয়েছেন তিনি।

সোমবার ভোরের নিজের ফেরিফাইড ফেসবুক পেজে এক পোস্টে তানজিন তিশা লিখেছেন, ‘আমি সাধারণত গুজবে সাড়া দেই না। তবে আজ আমি অনুভব করছি যে, কয়েকটি অনলাইন সংবাদপত্রে প্রকাশিত চলমান গসিপ বন্ধ করা উচিত। দয়া করে আমার নামটি ব্যাবহার করবেন না। এতে আমারসহ শিল্পী এবং তার পরিবারের চলমান পরিস্থিতি আরও খারাপ হবে। আমি সত্যিকার অর্থে বিশ্বাস করি যে, কেউ আমার খ্যাতি কুখ্যাতে ইচ্ছাকৃতভাবে এটি তৈরি করছে।

তিশা বলেন, ‘দয়া করে এমন খবরে বিশ্বাস করবেন না, যার কোনও সত্যতা নেই। আমি আপনাদের সবাইকে অনুরোধ করছি যেন এই গুজবে আর ভাগ না বসিয়ে এবং ছড়িয়ে না দেন। কারণ, ভুয়া খবর ছড়িয়ে দেয়াও একটি সাইবার অপরাধ।’

গণমাধ্যমকর্মীদের উদ্দেশ্যে তিশা বলেন, অনুরোধ করছি আপনাকে এই ধরনের ভিত্তিহীন গল্পে আমার নাম উল্লেখ না করার। যারা এই কাজটি চালিয়ে যাবেন তাদের আমার শেষ থেকেই আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

এর আগে গতকাল রবিবার (১৭ মে) বিকেলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সংসার ভাঙার খবর নিশ্চিত করেন অপূর্বর স্ত্রী নাজিয়া হাসান অদিতি। নিজের ফেসবুকে তিনি লিখেছেন, 'স্টপ কলিং মি ভাবি এভরিওয়ান।'

তবে কী কারণে সংসার ভেঙেছে, কবে ডিভোর্স হলো তা নিয়ে কিছুই জানান নাজিয়া হাসান অদিতি। তিনি জানান, ‘অপূর্বর সঙ্গে ডিভোর্স হয়েছে, এটা সত্য।’

তার ভাষ্য ছিল এমন, ‘অপূর্বর সঙ্গে ডিভোর্স হয়েছে মানুষের এটা জানা দরকার। জানালাম। এর বেশি কিছুই বলতে চাইনা। ব্যক্তিগত বিষয় ব্যক্তিগতই থাকুক।’

অপূর্ব-অদিতির দাম্পত্যজীবনে আয়াশ নামে এক পুত্র সন্তান রয়েছে।

সন্তান কার কাছে জানতে চাইলেও অদিতি এড়িয়ে গিয়ে বলেন, আর কিছু জানাতে চাইছি না। তবে তাদের একটি ঘনিষ্ঠসূত্র থেকে জানা যায়, চলতি বছরের প্রথমদিকে নাজিয়ার সঙ্গে অপূর্বর বিচ্ছেদ হয়।

প্রসঙ্গত, এর আগে ২০১০ সালের ১৮ আগস্ট মডেল-অভিনেত্রী সাদিয়া জাহান প্রভাকে ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন অপূর্ব। মাত্র ছয় মাস টিকেছিল সে সংসার। প্রভার সাবেক প্রেমিক রাজিবের সঙ্গে তার অবৈধ সম্পর্কের কথা এবং আপত্তিকর কিছু ভিডিও প্রকাশ হওয়ায় ২০১১ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি তাকে ডিভোর্স দেন অপূর্ব। ওই বছরেরই ২১ ডিসেম্বর তিনি অদিতিকে বিয়ে করেন।

মানবকণ্ঠ/জেএস




Loading...
ads






Loading...