কালো টাকা বিনিয়োগের সুযোগ রেখেই অর্থবিল পাস

- ছবি : সংগৃহীত

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ২৯ জুন ২০২০, ১৮:২৩,  আপডেট: ২৯ জুন ২০২০, ১৮:৩৫

কোনো বড়ধরনের পরিবর্তন ছাড়াই কালো টাকা বা অপ্রদর্শিত আয়ের অর্থ পুঁজিবাজারসহ বিভিন্ন খাতে বিনিয়োগের বিধান রেখে জাতীয় সংসদে অর্থবিল ২০২০ পাস হয়েছে। একইসঙ্গে পূর্বে কালো টাকা তিন বছর বাজারে রাখার যে শর্ত ছিল তা কমিয়ে এক বছর করা হয়েছে।

এই প্রথম প্রস্তাবিত বাজেটে কোনো রকম পরিবর্তনের ঘোষণা না দিয়েই অর্থ বিল জাতীয় সংসদে পাসের জন্য অনুরোধ করেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

সোমবার (২৯ জুন) স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী অর্থবিল-২০২০ জাতীয় সংসদে পাসের জন্য ভোটে দিলে তা কণ্ঠভোটে পাস হয়। সকালে সংসদের মুলতবি অধিবেশন শুরু হলে সরকারি ও বিরোধীদলীয় সংসদ সদস্যরা বাজেটের ওপর আলোচনা করেন। পরবর্তী সময়ে সংসদ নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নেন।

কোনো প্রশ্ন ছাড়াই ফ্ল্যাট ও অ্যাপার্টমেন্ট কেনা, দালান নির্মাণ এবং অর্থনৈতিক অঞ্চল ও হাইটেক পার্কে অপ্রদর্শিত আয়ের অর্থ বিনিয়োগের সুযোগ গত অর্থবছরই ছিল। কিন্তু এবার এর ক্ষেত্র আরো বাড়ানো হয়েছে। তবে বরাবরের মতোই এসবের জন্য নির্দিষ্ট হারে কর দিতে হবে।

২০২০-২১ সালের বাজেটে গচ্ছিত অর্থ, সঞ্চয়পত্র, শেয়ার, বন্ড বা অন্য কোনো সিকিউরিটিজের ক্ষেত্রেও কালো টাকা সাদা করার সুযোগ দেয়া হয়। প্রস্তাব করেছেন কোনো জরিমানা ছাড়া কেবল ১০ শতাংশ কর দিয়ে যে কেউ তার অবৈধভাবে অর্জিত অথবা কর ফাঁকি দিয়ে গোপনে সঞ্চিত অর্থ এসব খাতে বিনিয়োগ করতে পারবেন। জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) বা সরকারের অন্য কোনো কর্তৃপক্ষ ওই টাকার উৎস জানতে চাইবে না।

মানবকণ্ঠ/এসকে





ads







Loading...