12 12 12 12
দিন ঘন্টা  মিনিট  সেকেন্ড 

সম্পদ ভাগাভাগি করলে দারিদ্র্য ইতিহাসে চলে যেতো: ফজলে কবির

সম্পদ ভাগাভাগি করলে দারিদ্র্য ইতিহাসে চলে যেতো: ফজলে কবির
প্রাইম ব্যাংকের শিক্ষাবৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের গর্ভনর ফজলে কবির। - সংগৃহীত

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১৮ জানুয়ারি ২০২০, ১৮:০৭

বাংলাদেশ ব্যাংকের গর্ভনর ফজলে কবির বলেছেন, আমাদের দেশের মানুষ সম্পদ ভাগাভাগি করে না। যদি সবাই সম্পদ ভাগাভাগি করতাম তবে দারিদ্র্য ইতিহাসে চলে যেতো।

শনিবার (১৮ জানুয়ারি) রাজধানীর আগারগাঁওয়ের স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর ভবনে প্রাইম ব্যাংকের শিক্ষাবৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব কফি আনানের একটি বক্তব্য উদ্ধৃতি করে গর্ভনর বলেন, মানুষ কিন্তু সম্পদ ভাগাভাগি করে না। সম্পদ যদি সবাই ভাগাভাগি করতাম, যেখানে প্রয়োজন সেখানে দিতাম; সেটা প্রাতিষ্ঠানিকভাবে হোক, সামাজিকভাবে হোক, পারিবারিকভাবে হোক আর ব্যক্তিগতভাবে হোক; তাহলে কিন্তু আমাদের দারিদ্র্য ইতিহাসে চলে যেতো।

রাশিয়ান একজন লেখকের উদ্ধৃতি দিয়ে গর্ভনর বলেন, আপনি একটি মোমবাতি জ্বালিয়ে দেবেন, সেই মোমবাতি দিয়ে আবার হাজারো মোমবাতি জ্বালাবে। আজকে সম্মাননা পাওয়া চারজন ছাড়াও আমি দেখছি, এমবিবিএস চিকিৎসক ২৮৭ জন, প্রকৌশলী ২২৮ জন, বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজ শিক্ষক ৭৫ জন, বিসিএস ও সরকারি কর্মকর্তা ৫২ জন, ব্যাংকার ১৪২ জন রয়েছেন। বিশেষ করে যারা চিকিৎসা ও শিক্ষকতা করছেন তারাই এই মোমবাতি জ্বালিয়ে দেবেন। আর এজন্য আপনাদের সহায়তা করছে প্রাইম ব্যাংক।

এসময় আরও বক্তব্য রাখেন প্রাইম ব্যাংকের চেয়ারম্যান আজম জে চৌধুরী, প্রাইম ব্যাংক ফাউন্ডেশনের শিক্ষা সহায়তা কর্মসূচির উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য অধ্যাপক জামিলুর রেজা চৌধুরী।

অনুষ্ঠানে প্রাইম ব্যাংকের বৃত্তি নিয়ে কর্মক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠিত বেশ কয়েকজনকে ক্রেস্ট দিয়ে সম্মাননা জানান অতিথিরা। এছাড়াও অধ্যাপক জামিলুর রেজা চৌধুরী, গর্ভনর ফজলে কবির ও প্রাইম ব্যাংকের চেয়ারম্যান আজম জে চৌধুরীকে সম্মাননা ক্রেস্ট দেওয়া হয়। অনুষ্ঠানে রিয়েল টাইম সুইচ চেপে বৃত্তি প্রাপ্ত সব শিক্ষার্থীর ব্যাংক হিসাবে প্রথম কিস্তির টাকা স্থানান্তর করা হয়।

মানবকণ্ঠ/এসকে




Loading...
ads






Loading...