সিএমএ পেশার সম্ভাবনা ও চ্যালেঞ্জ নিয়ে আইসিএমবিতে কর্মশালা

সিএমএ পেশার সম্ভাবনা ও চ্যালেঞ্জ নিয়ে আইসিএমবিতে কর্মশালা
সিএমএ পেশার সম্ভাবনা ও চ্যালেঞ্জ নিয়ে আইসিএমবিতে কর্মশালা - ছবি: প্রতিনিধি

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ০২ নভেম্বর ২০১৯, ১৪:৪০

দি ইনস্টিটিউট অব কস্ট অ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট অ্যাকাউন্ট্যান্টস অব বাংলাদেশ (আইসিএমএবি)- এর আয়োজনে ‘প্র্যাকটিসিং অপরচুনিটিজ ফর সিএমএ’স- প্রসপেক্টস অ্যান্ড চ্যালেঞ্জস’ শিরোনামে এক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ইনস্টিটিউটের রুহুল কুদ্দুস অডিটোরিয়ামে বৃহস্পতিবার (৩১ অক্টোবর) সন্ধ্যায় এই কর্মশালা আয়োজিত হয়।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. মো. জাফর উদ্দিন এই কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের কমিশনার এবং আইসিএমএবি’র ট্রেজারার ড. স্বপন কুমার বালা এফসিএমএ এতে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। আলোচক হিসেবে অংশ নেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের অর্থ মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব এবং আইসিএমএবি’র সেক্রেটারি ড. আব্দুর রহমান খান এফসিএমএ। আইসিএমএবি’র সেমিনার এবং কনফারেন্স কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান জনাব মো. কাওসার আলম ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

আইসিএমএবি’র সভাপতি জনাব এম আবুল কালাম মজুমদার এফসিএমএ স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন। তিনি সরকারি এবং বেসরকারি পর্যায়ের গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠানসমূহে সিএমএ পেশাদারদের অবদান ও কাজের বিষেয়ে আলোকপাত করেন। তারা কেবল দেশেই নয়, বরং দেশের বাইরেও নিজেদের কাজের মাধ্যমে মূল্যবান বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করছেন। কস্ট অ্যান্ড অ্যাকাউন্ট ম্যানেজমেন্ট পেশাদারদের দক্ষতার বিষয়ে উল্লেখ করতে গিয়ে তিনি বলেন, অ্যান্টি ডাম্পিং-এর মতো বিভিন্ন সমস্যায় সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে সময়োপযোগী সহায়তা করতে পারবেন সিএমএ পেশাদারগণ। রেডিমেড গার্মেন্টস, ফার্মাসিউটিক্যাল, আবাসন, সিরামিক, ফুটওয়্যার সহ সকল পর্যায়ের খাতে কস্ট অডিট বাধ্যতামূলক করার জন্য প্রধান অতিথির দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। তিনি আশা প্রকাশ করেন যে, জাতীয় অর্থনীতিতে এটি উন্নয়নমূলক ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে।

ড. স্বপন কুমার বালা এফসিএমএ তার উপস্থাপিত প্রবন্ধে সিএমএ পেশার গুরুত্ব বিষয়ে সামগ্রিক চিত্র তুলে ধরেন। বাংলাদেশের ভবিষ্যত অর্থনৈতিক লক্ষ্যমাত্রার সাপেক্ষে এই পেশার বর্তমান পরিস্থিতি, সম্ভাবনা এবং বিভিন্ন চ্যালেঞ্জের বিষয়ে তিনি আলোকপাত করেন। ড. আব্দুর রহমান খান এফসিএমএ এই প্রবন্ধের বিষয়ে সংক্ষেপে মতামত তুলে ধরেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাণিজ্য সচিব ড. মো. জাফর উদ্দিন সকল খাতে ব্যবস্থাপনার গুরুত্ব উল্লেখ করেন। তিনি আশা প্রকাশ করেন যে সিএমএ পেশাদারগণ দেশের সরকারি এবং বেসরকারি খাতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখতে পারবেন। একইসাথে অ্যান্টি ডাম্পিংয়ের মতো জটিল সমস্যাগুলোতেও তারা পেশাদারি দক্ষতার মাধ্যমে সহায়তামূলক ভূমিকা পালন করতে পারবেন। বক্তব্যের আগে তিনি আইসিএমএবি ‘এমপ্লয়মেন্ট গেটওয়ে’ এবং কস্ট অ্যাকাউন্ট সিস্টেম-এর তৃতীয় খন্ডের উদ্বোধন করেন।

কর্মশালায় আইসিএমএবির সাবেক সভাপতিগণ, কাউন্সিল সদস্য,সদস্য এবং উল্লেখযোগ্য সংখ্যক শিক্ষার্থী উপিস্থিত ছিলেন।

মানবকণ্ঠ/এআইএস




Loading...
ads





Loading...