নতুন মডেলের স্মার্ট এসি বাজারে ছাড়লো ওয়ালটন


poisha bazar

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ১০ অক্টোবর ২০১৯, ১৩:৩৮

মুঠোফোনে নিয়ন্ত্রণযোগ্য নতুন মডেলের স্মার্ট এয়ার কন্ডিশনার বাজারে ছেড়েছে বাংলাদেশি মাল্টিন্যাশনাল ব্র্যান্ড ওয়ালটন। ক্রিস্টালাইন সিরিজের ওই এসি দেড় এবং দুই টন আকারে বাজারে মিলছে। এই নিয়ে ওয়ালটনের স্মার্ট এসির সংখ্যা দাঁড়ালো ৭টিতে।

ওয়ালটন এসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মো. তানভীর রহমান জানান, ওয়ালটনের আইওটি বেজড স্মার্ট এসিতে রয়েছে অত্যাধুনিক সব সুবিধা। এসিতে প্রতিদিন বা মাসিক বিল কত আসছে? ভোল্টেজ লো না হাই? কমপ্রেসর কি ওভারলোডে চলছে? ওয়ালটনের স্মার্ট এসিতে এসব তথ্য জানা এবং সংরক্ষণ করা যাবে। গ্রাহক বিশ্বের যেকোনো প্রান্তে বসে মুঠোফোনের মাধ্যমে এসি পরিচালনা করতে পারবেন। ‘ভয়েস কন্ট্রোল’ বা ‘অ্যামাজন ইকো’র মাধ্যমে রিমোট কন্ট্রোল ছাড়াই ওয়ালটন স্মার্ট এসির শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা বাড়ানো, কমানো, চালু বা বন্ধ করা যাবে।

ওয়ালটনের ডেপুটি অপারেটিভ ডিরেক্টর মফিজুর রহমান জানান, ওয়ালটনের স্মার্ট এসি অ্যান্ড্রয়েড এবং আইওএস অপারেটিং সিস্টেমে চলবে। থাকছে একই অ্যাপে একাধিক এসি নিয়ন্ত্রণের সুবিধা। রয়েছে অটো আপডেট সহ স্ট্যাটিসটিক্যাল ডাটা সংরক্ষণের সুযোগ।

নতুন আসা স্মার্ট এসি ছাড়াও বর্তমানে বাজারে রয়েছে ওয়ালটনের ভেনচুরি, রিভারাইন, রিভারাইন প্রো এবং ক্রিস্টালাইন সিরিজের এক, দেড় এবং দুই টনের বিভিন্ন মডেলের স্প্লিট এসি। যার মধ্যে আছে ব্যাপক বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী ইনভার্টার, টুইন ফোল্ড ইনভার্টার, ফিক্সড স্পিড আয়োনাইজার এসি। এগুলোর দাম ৩৬ হাজার ৯০০ থেকে ৭৭ হাজার ৪০০ টাকার মধ্যে।

ওয়ালটন এসির গবেষণা ও উন্নয়ন (আরএন্ডডি) বিভাগের প্রধান প্রকৌশলী সন্দীপ বিশ্বাস জানান, ওয়ালটনের প্রতিটি এসি আন্তর্জাতিকমানের টেস্টিং ল্যাব নাসদাত-ইউটিএস থেকে মান নিয়ন্ত্রণ ছাড়ের পর বাজারজাত করা হচ্ছে। ওয়ালটন এসিতে সংযোজিত হয়েছে ইনভার্টার প্রযুক্তির কম্প্রেসর। যা ঘরের ভেতরের তাপমাত্রা বুঝে সেই অনুযায়ী রেফ্রিজারেন্ট সরবরাহ করে। এতে ৬০ শতাংশ পর্যন্ত বিদ্যুৎ সাশ্রয় হয়। এর টার্বোমুড রুমের তাপমাত্রা দ্রুত কমিয়ে এনে রুমকে তাড়াতাড়ি ঠাণ্ডা করে। কম্প্রেসরে ব্যবহৃত হয়েছে বিশ্বস্বীকৃত সম্পূর্ণ পরিবেশবান্ধব এইচএফসি গ্যাসমুক্ত আর৪১০এ রেফ্রিজারেন্ট। রয়েছে আয়োনাইজার প্রযুক্তি। যা ঠাণ্ডা করার পাশাপাশি রুমের বাতাসকে ধূলা-ময়লা ও ব্যাকটেরিয়া মুক্ত করে। কন্ডেন্সারে ব্যবহার করা হচ্ছে মরিচারোধক গোল্ডেন ফিন কালার প্রযুক্তি। যার ফলে ওয়ালটন এসি টেকসই ও দীর্ঘস্থায়ী।

এদিকে, অনলাইনে দ্রুত ও সর্বোত্তম বিক্রয়োত্তর সেবা দিতে ডিজিটাল ডাটাবেজ তৈরি করছে ওয়ালটন। এজন্য তারা চালাচ্ছে ডিজিটাল ক্যাম্পেইন। এর আওতায় যে কোনো মডেলের এসি কিনে রেজিস্ট্রেশন করলেই ক্রেতারা পেতে পারেন ১২ বছর পর্যন্ত বিদ্যুৎ বিল ফ্রি। আছে নিশ্চিত ক্যাশব্যাক। ওয়ালটন এসিতে রয়েছে ফ্রি ইন্সটলেশন সুবিধা।

এছাড়াও, এক্সচেঞ্জ অফারে থাকছে যে কোনো ব্র্যান্ডের পুরাতন এসি দিয়ে ২৫ শতাংশ ছাড়ে ওয়ালটনের নতুন এসি কেনার সুযোগ। মাত্র ৪ হাজার ৯০০ টাকা ডাউন পেমেন্টে ৩৬ মাসের সহজ কিস্তির সুবিধা, জিরো ইন্টারেস্টে ১২ মাসের ইএমআই (ইক্যুয়াল মান্থলি ইনস্টলমেন্ট), পাশাপাশি, অনলাইনে ই-প্লাজা থেকে এয়ার কন্ডিশনার কেনায় ১০ শতাংশ ছাড় পাওয়া যাবে। ৬ মাসের রিপ্লেসমেন্টসহ ইনভার্টার এসির কম্প্রেসরে ১০ বছরের গ্যারান্টি দিচ্ছে ওয়ালটন।

মানবকণ্ঠ/এএম




Loading...
ads




Loading...