ভালো খেলে শিরোপা ধরে রাখতে চান সালমা


  • অনলাইন ডেস্ক
  • ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২১:৩২

আগামী শনিবার থেকে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শুরু হবে নারী এশিয়া কাপ-২০২২। সাত দেশের এ টুর্নামেন্টে প্রথমদিন থাইল্যান্ডের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। ম্যাচের আগে আজ বৃহস্পতিবার প্রথম অনুশীলন করেছে দলগুলো।

অনুশীলন শেষে মাঠে ভালো খেলার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন বাংলাদেশ দলের সালমা। বিশ্বকাপ প্রস্তুতি টুর্নামেন্টে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ান হওয়ার আত্মবিশ্বাস এ টুর্নামেন্টে কাজে লাগবে বলেও মনে করেন বাংলাদেশ দলনেতা।

গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে সালমা বলেন, ‘একটা ভালো টুর্নামেন্ট শেষ করে এসেছি। খেলোয়াড়রাও ফর্মে আছে। আমাদের প্রস্তুতি খুব ভালো। এখানে ভালোও কিছু আশা করছি।’

‘এখানে ভালো করতে হলে সবগুলো ডিপার্টমেন্টেই ভালো করতে হবে। তিনটি ডিপার্টমেন্টে ভালো করলেই সাফল্য আসবে। তবে, আত্মতুষ্ঠিতে ভোগার সুযোগ নেই।’ যোগ করেন তিনি।

সিলেটের মাঠে কিছুদিন আগেও খেলে গেছে বাংলাদেশের নারী ক্রিকেট দল। ক্রিকেটাররা অনুশীলন ক্যাম্পও করে গেছেন এখানে। এই অভিজ্ঞতাও মাঠে কাজে লাগবে বলে মনে করেন সালমা। তিনি বলেন, ‘সিলেটে বলতে গেলে আমরা সবসময় থাকি। এখানে কিছুদিন আগেও খেলে গেছি। এখানেই আমাদের বেশিরভাগ খেলা ও প্র্যাকটিস হয়, ক্যাম্পও হয়। ফলে এখানকার উইকেট সম্পর্কে আমরা জানি। আবহাওয়া সম্পর্কেও জানি। মাঠে তা কাজে লাগাতে চেষ্টা করব।’

বৃহস্পতিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) সকালে সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম গ্রাউন্ড-২ এ অনুশীলন করে বাংলাদেশ দল। এ ছাড়া থাইল্যান্ড, মালয়েশিয়া ও আরব আমিরাত, পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কা দল দিনের বিভিন্ন সময়ে অনুশীলন করেছে একই মাঠে।

সকালে অনুশীলন শেষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন টাইগ্রেস অধিনায়ক। সালমা বলেন, ‘আজকের প্র্যাকটিসে সবাই ভালো করছে। এখানে দুদিন অনুশীলন করতে পারব আমরা। দলের সবাই ফিট এবং ফর্মে আছে। আশা করছি মাঠে সেরাটাই দিতে পারবে সবাই। টুর্নামেন্টে ভালো কিছু হবে বলেই আশা করছি।’

টি-২০ র‍্যাংকিংয়ে পিছিয়ে থাকার কথা মনে করিয়ে তিনি বলেন, ‘র‍্যাংকিংয়ে আমরা উপরের দিকে উঠে আসতে চাই। এ জন্য বেস্ট খেলতে হবে। আর পরবর্তীতে বিশ্বকাপের কোয়ালিফাইয়িং রাউন্ড খেলতে চাই না। সরাসরি ওয়ার্ল্ডকাপ খেলতে চাই।’

দর্শকদের প্রত্যাশার ব্যাপারেও অবগত সালমা বলেন, ‘দর্শকরা সবাই চায় বাংলাদেশ টিম ভালো করুক। আমরাও চাই ভালো খেলতে। দর্শকদের প্রত্যাশা পুরণ করতে চাই। মাঠে সেই চেষ্টা আমাদের থাকবে।’

সুনির্দিষ্ট লক্ষ্য না থাকলেও চূড়ান্ত বিজয়ের লক্ষ্য ক্রিকেটার-ব্যবস্থাপনা সংশ্লিষ্টদের। বাংলাদেশ দলের ম্যানেজার মঞ্জুরুল ইসলাম বলেন, ‘কোনো লক্ষ্য স্থির করে আমরা ক্রিকেটারদের চাপে ফেলতে চাই না। বরং ভালো দলগুলো ম্যাচ বাই ম্যাচ টার্গেট নিয়ে মাঠে নামে। আমাদেরও লক্ষ্য সেটি। প্রতিটি ম্যাচে ভালো খেলা।’

আগামী শনিবার সকালে উদ্বোধনী ম্যাচে বাংলাদেশের মুখোমুখি হবে থাইল্যান্ড। একইদিন দুপুরে একই মাঠে ভারতের বিপক্ষে লড়বে শ্রীলঙ্কা। টুর্নামেন্টের সব খেলা হবে সিলেট স্টেডিয়ামের গ্রাউন্ড-১ ও গ্রাইন্ড-২ এ।

সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম ভেন্যু ম্যানেজার জয়দীপ দাস সুজক বলেন, ‘টুর্নামেন্ট আয়োজনের যাবতীয় প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। চার স্তরের নিরাপত্তা বলয় তৈরি করেছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।’ 

 

মানবকণ্ঠ/পিবি


poisha bazar