• বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২
  • ই-পেপার

সাকিবকে কড়া হুঁশিয়ারি বিসিবির


  • অনলাইন ডেস্ক
  • ১১ আগস্ট ২০২২, ১৮:০৮

বাংলাদেশ টেস্ট অধিনায়ক সাকিব আল হাসান বেটিং-সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান বেটউইনার নিউজের সঙ্গে পণ্যদূতের চুক্তি বাতিল না করলে আসন্ন এশিয়া কাপ থেকে বাদ পড়বেন বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

বৃহস্পতিবার (১১ আগস্ট) গণমাধ্যমে এ কথা বলেন তিনি।

সম্প্রতি আন্তর্জাতিক একটি জুয়াড়ি প্রতিষ্ঠানের (বেটিং কোম্পানি) ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে চুক্তি স্বাক্ষর করেন সাকিব আল হাসান। এমনকি বেট উইনার নামে সেই বেটিং কোম্পানির সাজসজ্জা নিয়ে ছবি তুলেন তিনি।

প্রতিষ্ঠানটির শুভেচ্ছা দূত হওয়ার বিষয়টি ফেসবুকে নিজেই জানান দেন বাংলাদেশ টেস্ট অধিনায়ক। বেটিং কোম্পানির সঙ্গে সাকিবের চুক্তি করার ঘটনায় তোলপাড় বাংলাদেশসহ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটাঙ্গন। বিষয়টিকে বিসিবিও ভালোভাবে নেয়নি। বেটিং নিয়ে বিসিবির নিষেধাজ্ঞা আছে। বাংলাদেশের আইনেও বেটিং মানে বাজি খেলা নিষিদ্ধ। গুঞ্জন আছে, বেটউইনার নিউজের সঙ্গে প্রায় ১০ কোটি টাকায় চুক্তি করেছেন সাকিব।

সাকিবের চুক্তির পরপর আনুষ্ঠানিকভাবে নিজেদের অবস্থান জানায় বিসিবি। খোদ বোর্ড সাকিবকে জানায়, বেটউইনারের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করতে হবে। যদিও এ নিয়ে নির্বিকার থাকেন সাকিব।

আর এ বিষয়টি নিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে আজ বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসানের ধানমন্ডির কার্যালয়ে আলোচনায় বসেছিলেন বোর্ডের শীর্ষ কর্তারা। কিন্তু সে আলোচনা শেষ হয়েছে কোনো সিদ্ধান্ত ছাড়াই, হয়নি এশিয়া কাপের দল ঘোষণাও। কারণ সাকিব এখনো বিসিবির চিঠির উত্তর দেননি।

বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের বিসিবি বস পাপন বলেন, ‘দেখুন সাকিবের যে বিষয়টি এখানে দ্বিতীয় চিন্তা করার কোনও সুযোগ নেই। বিসিবির অবস্থান প্রথম থেকে যা ছিল, এখনও তাই। যখন বিসিবিতে আমি প্রথম আসি, তখনই বলেছি এসব (বেটিং, গ্যাম্বলিং) নিয়ে একদম জিরো টলারেন্স। বিসিবি কোনোভাবেই এগুলোকে গ্রহণ করবে না। যে যেভাবেই এটাকে ব্যাখ্যা করুক বা না করুক। এটা (চুক্তি) থাকার কোনও সুযোগই নেই। তখন আশরাফুলের মতো ক্রিকেটারকেও আমাদের বাদ দিতে হয়েছে। কাজেই এখানে থাকার কোনও সুযোগ নেই। এখন পুরোটাই তার সিদ্ধান্ত।’

বোর্ড সভাপতির কড়া বার্তা, ‘বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবির) সঙ্গে তার কোনও সম্পর্ক থাকবে না, যার কোনো বেটিংয়ের সঙ্গে সম্পৃক্ততা আছে। এরকম কারও বাংলাদেশ ক্রিকেটের সঙ্গে সম্পর্ক থাকার প্রশ্ন আসে না। কোনোভাবেই সম্পৃক্ততা থাকা যাবে না। সম্পূর্ণভাবে ওখান থেকে বেরিয়ে আসতে হবে।’

সাকিব এখন টেস্ট অধিনায়ক। তার টেস্ট অধিনায়কত্বও কেড়ে নেয়া হবে এমন ঘোষণাও দিয়ে রেখেছেন বিসিবি সভাপতি, ‘ও (সাকিব) আমাদের দলেই থাকবে না। অধিনায়কত্ব তো পরের বিষয়। দলে থাকার কিছু নেই। এ ব্যাপারে আলোচনার কোনও সুযোগই নেই। এই সিদ্ধান্ত আগের থেকে নেওয়া এবং আমরা খুব পরিষ্কার নিজেদের সিদ্ধান্তে।’

বিসিবি সভাপতি আরও বলেন, ‘আমরা একটা চিঠি দিয়েছি। সেটার উত্তর আজকের মধ্যে পাওয়ার কথা। কালকের মধ্যেই দেওয়ার কথা ছিল। শুনেছি সে আজকের মধ্যে দেবে বলেছে। অপেক্ষা করি এরপর সিদ্ধান্ত নেবো, ও থাকবে কী থাকবে না।’ 

 

মানবকণ্ঠ/পিবি


poisha bazar