বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা প্রথম ওয়ানডে আজ


  • সাজ্জাদ এইচ. সাব্বির
  • ২৩ মে ২০২১, ০৮:৪০

দ্বিতীয় সারির দল দেখে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হালকা করে নেয়ার শাস্তি পেয়েছিল বাংলাদেশ। গেল ফেব্রুয়ারিতে দুর্বলতম ক্যারিবীয় দলটির কাছে টাইগাররা ঘরের মাঠে হেরেছিল সিরিজের দুই টেস্টই। সেই দুঃসহ স্মৃতি সামনে আনার কারণ আজ নিজেদের তুলনায় শক্তি-সামর্থ্যরে দিক দিয়ে আরো একটি দুর্বল দলের বিপক্ষে ঘরের মাঠে খেলতে নামছে বাংলাদেশ।

প্রতিপক্ষের নাম শ্রীলঙ্কা, ফরম্যাট ওয়ানডে। যা আবার আইসিসির সুপার লিগের অংশ। দ্বিপাক্ষিক সিরিজে সবশেষ দেখাতে লঙ্কানদের কাছে ধবলধোলাই হয়েছিল বাংলাদেশ। মাশরাফি বিন মর্তুজার অনুপস্থিতিতে ২০১৯ সালে তামিম ইকবালকে অধিনায়ক করে টাইগাররা গিয়েছিল লঙ্কা দ্বীপে।

বর্তমান ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম সেই সিরিজে ব্যাট হাতে তো ছিলেন চরম ব্যর্থ, এই ফরম্যাটে শক্তিশালী বাংলাদেশও হারে তিনটি ম্যাচেই। তবে সেই শ্রীলঙ্কা আর বর্তমান শ্রীলঙ্কার মধ্যে পার্থক্য অনেক।

বিশ্বকাপ সুপার লিগের পয়েন্ট তালিকাতে কোনো জয় ছাড়া সবার তলানিতে শ্রীলঙ্কা। এর ভেতর, কোনো বেতন-ভাতা নিয়ে বোর্ডের সঙ্গে দ্বন্দ্বে জড়িয়েছেন দেশটির অধিকাংশ সিনিয়র ক্রিকেটার। এসএলসিও (শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড) বাংলাদেশে তাই অপেক্ষাকৃত তরুণ একটি দল পাঠিয়েছে। যাদের অনেকের অল্পদিনের পরিচয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের সঙ্গে।

ভারত, পাকিস্তান, নিউজিল্যান্ড, দক্ষিণ আফ্রিকাসহ বড় বড় দলও এ দেশে এসে সহজে কুলিয়ে উঠতে পারে না বাংলাদেশের সঙ্গে। সেখানে কুশল পেরেরার নেতৃত্বাধীন দলকে তো নস্যি মনে হওয়ার কথা। তবে শ্রীলঙ্কাকে সেভাবে নিলে যে বিপদ। যার উদাহরণ, মাস তিনেক আগে উইন্ডিজের বিপক্ষে সেই টেস্ট সিরিজ।

এদিকে, টাইগারদের সাম্প্রতিক ফর্ম খুব বাজে। শেষ ১০ আন্তর্জাতিক ম্যাচের একটিতেও জয় নেই টাইগারদের। সবশেষ ওয়ানডে সিরিজে নিউজিল্যান্ডের কাছে নাস্তানাবুদ হয়েছে তামিম ইকবাল বাহিনী। ঘরের মাঠে শেষ ওয়ানডে সিরিজে অবশ্য সফরকারী উইন্ডিজকে পাত্তাই দেয়নি বাংলাদেশ। সিরিজ জিতে নেয় ৩-০ ব্যবধানে।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে বাংলাদেশের জন্য আরো স্বস্তি বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের দলে ফেরা। অধারাবাহিক মুস্তাফিজুর রহমানও আইপিএল দিয়ে নিজের পুরনো চেহারায় ফেরার আভাস দিয়েছেন। ভারত থেকে ফিরে এই দুই ক্রিকেটার কোয়ারেন্টিনের চক্করে নিজেদের তেমন পরিচর্যার সুযোগ না পেলেও, তাদের অভিজ্ঞতাই তাদের অস্ত্র। শেষ মুহূর্তে বিশেষ কোনো অঘটন না ঘটলে দুজনেই খেলবেন আজ। হবেন তামিমের বড় দুই অস্ত্র।

রুবেল হোসেন চোটের কারণে ছিটকে পড়ায় একাদশে ফিরছেন পেস বোলিং অলরাউন্ডার সাইফ হাসানও। সাকিব তার প্রিয় জায়গা তিন ফিরে পাওয়ায় সৌম্য সরকারকে থাকতে হবে একাদশের বাইরেই। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে শেষ সিরিজে চরম ব্যস্ত লিটন কুমার দাস আজও তামিম ইকবালের সঙ্গে ওপেনিং সঙ্গী হিসেবে নামবেন। দলে টিকে থাকার জন্য এসিড টেস্টই দিতে হবে তাকে।

এদিকে, সবশেষ ওয়ানডে একাদশ থেকে অন্তত চারটির বেশি পরিবর্তন আসছে লঙ্কান দলে। কুশল পেরেরার নেতৃত্বে নিরোশান ডিকভেলা ও দানুশকা গুনাথিলাকা ইনিংস শুরু করবেন। বোলিং ডিপার্টমেন্ট সামলাবেন ইসুরু উদানা, ভানিন্দু হাসারাঙ্গারা। আজ অভিষেক হতে পারে রমেশ মেন্ডিস অথবা চামিকা করুনারত্নের। যদি করুনারত্নে একাদশে ঢুকে যান তবে আবার বাদ পড়বেন দীর্ঘকায় বাঁহাতি পেসার বিনুরা ফের্নান্দো।

এতো এতো পরিবর্তনে শ্রীলঙ্কা যখন নিজেদের গুছিয়ে উঠতে নামবে মাঠে, সেখানে পরতি ফর্মের সঙ্গে পরিসংখ্যানের বিরুদ্ধে লড়তেও হবে বাংলাদেশকে। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ঘরের মাঠে শেষ তিন ওয়ানডেতে মাত্র একবার জিতেছে বাংলাদেশ। সবমিলিয়ে শেষ চার দেখায় জয় মাত্র একটিতে।

মুখোমুখি দেখায়ও লঙ্কানদের চেয়ে বেশ পিছিয়ে টাইগাররা। ৪৮ দেখায় শ্রীলঙ্কার ৩৯ জয়ের বিপরীতে বাংলাদেশের জয় মাত্র ৭ ম্যাচে। এই তিন ওয়ানডে দিয়ে বাংলাদেশ তাই চাইবে জয়ের পাল্লায় নিজেদের আরো সমৃদ্ধ করতে, আরো শক্ত করতে সুপার লিগের পয়েন্ট টেবিলে নিজেদের স্থান ।



poisha bazar

ads
ads