ঘরের ছেলে ফিরছে ঘরে


poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ২৮ অক্টোবর ২০২০, ১৮:৫৯

অপেক্ষার প্রহর ফুরাল। দীর্ঘ ১২ মাসের সাজা শেষে ক্রিকেটে ফিরছেন সাকিব আল হাসান। সন্দেহাতীতভাবে, দেশের ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় তারকার নিষেধাজ্ঞায় ঘোর আঁধার নেমে এসেছিল বাংলাদেশ ক্রিকেটে। হতাশায় ভুগছিলেন অনেকেই। আজ থেকে ক্রিকেটে মুক্ত পাখির মতো ডানা মেলে উড়তে আর কোনো বাধা নেই সাকিবের।

তার নিষেধাজ্ঞার সময়ে সবাই যেমন হতাশায় ডুবেছিলেন, এখন তার প্রত্যাবর্তনেও আবার আনন্দের ছাপ সবার মুখে। বাংলাদেশ জাতীয় দলের টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদই যেমন বললেন, আমাদের ঘরের ছেলে ঘরে ফিরছে।

সাকিব নিষিদ্ধ হওয়ার আগে জাতীয় দলের টেস্ট আর টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক ছিলেন। সাকিবের স্থলাভিষিক্তই হন মাহমুদউল্লাহ। ক্রিকেটভিত্তিক ওয়েবসাইট ইএসপিএন ক্রিকইনফোকে মাহমুদউল্লাহ সাকিবের ফেরা নিয়ে নিজের উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে বলেন, ‘আমরা সবাই জানি, দীর্ঘদিন যাবত বাংলাদেশ ক্রিকেটের সেরা খেলোয়াড় সাকিব। ড্রেসিং রুমে ওর ফেরার প্রতীক্ষায় এখন আমরা সবাই। শুনতেই ভালো লাগছে, আমরা তাকে দেখতে পারব, তার সঙ্গে কথা বলতে পারব এবং তার সঙ্গে সময় কাটাতে পারব।’

নিষেধাজ্ঞার পরপরই দেশের ক্রিকেটের পোস্টারবয়কে নিয়ে চর্চা কম হয়নি। কবে ফিরবেন সাকিব? কাদের বিপক্ষেই বা ফিরবেন? শ্রীলঙ্কা সফর দিয়েই ফের মাঠে ফেরার কথা ছিল সাকিবের। তবে কোয়ারেন্টাইন ইস্যুতে সমঝোতায় পৌঁছাতে না পারায় বাংলাদেশ লঙ্কা সফরে যাচ্ছে না। এই সিরিজকে সামনে রেখে গত ২ সেপ্টেম্বর দেশে ফিরে অনুশীলনে ফিরেছিলেন সাকিব। বিসিবির সহায়তা নিতে পারবেন না বলে বিকেএসপিতে সাবেক দুই গুরু নাজমুল আবেদিন ফাহিম ও মোহাম্মদ সালাহউদ্দিনের নজরে থেকে ৪ সপ্তাহ টানা অনুশীলন করেন তিনি। তবে শ্রীলঙ্কা সফর বাতিল হতেই ফের পরিবারের কাছে যুক্তরাষ্ট্রে ফেরেন।

সামনের মাসেই বিসিবির পাঁচ দলের টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট। বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন নিশ্চিত করেছেন, আন্তর্জাতিক সিরিজ দিয়ে প্রত্যাবর্তন না হলেও, এই ঘরোয়া টুর্নামেন্ট দিয়েই ফের ক্রিকেটে দেখা যাবে সাকিবকে। এতদিন পর মাঠে ফিরবেন সাকিব, মাঠে এর প্রভাব কতটুকু পড়তে পারে? মাহমুদউল্লাহর মতে এসব সাকিবের কাছে কিছুই না।

বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপজয়ী দলের অধিনায়কের বিশ্বাস, সাকিব ফিরবেন সাকিবের মতোই। ‘সাকিব চ্যাম্পিয়ন খেলোয়াড়। রিদমে ফিরতে তার সময় লাগবে না। আমার বিশ্বাস, ক্রিকেট মাঠে ফিরতেই ও নিজেকে ফিরে পাবে’-বলেন তিনি।

সাকিবের এক বছরের নিষেধাজ্ঞায়, তার জায়গা নেয়ার সুযোগ এসেছিল অনেকের সামনেই। নির্বাচকরাও দেখতে চেয়েছিলেন, সাকিবের অভাব কেউ পূরণ করতে পারেন কি-না। কিন্তু সেটা হয়নি। কেউই সাকিব হতে পারেননি। সাকিব না থাকার সময়ে বাংলাদেশ চার টেস্ট খেলেই হেরেছে। তিনটি আবার ইনিংস ব্যবধানে। সাকিব এসেই যে দলে তার জায়গা বুঝে নেবেন তা আর বলার অপেক্ষা রাখছে না।

বিসিবির প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নুও মানছেন সে কথা। তবে সাকিবকে সময় দেয়ার পাশাপাশি তার শারীরিক অবস্থাও বোর্ড পর্যবেক্ষণ করবে বলে জানিয়েছেন তিনি, ‘আমাদের সেরা খেলোয়াড় মাঠে ফিরছে। হাতে আন্তর্জাতিক কোনো সিরিজ না থাকায় ঘরোয়া ক্রিকেট দিয়েই ফিরতে হচ্ছে তাকে। আমরা ওর শারীরিক অবস্থা পর্যবেক্ষণ করব। তাকে ঘরোয়া ক্রিকেট শুরু করতে দেই। তাকে সময় দিতে হবে। তবে আমরা এও জানি, সে অনেক অভিজ্ঞ। রিদমে ফিরতে তার সময় লাগবে না।’

 

 






ads