ভুল থেকে শিক্ষা নিয়েছেন সাকিব


poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ২৮ অক্টোবর ২০২০, ১৮:৩০

দীর্ঘ এক প্রতীক্ষার অবসান ঘটল। অবশেষে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা— আইসিসির সাজা থেকে ছাড়া পেলেন সাকিব আল হাসান। ম্যাচ পাতানোর প্রস্তাব পাওয়ার পরও তা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে না জানানোয় গত বছরের এই দিনে দুই বছরের নিষেধাজ্ঞা জুটেছিল বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় তারকার।

এর ভেতর এক বছর ছিল শর্তসাপেক্ষে। গত এক বছর আইসিসির সবধরনের বিধি-নিষেধ মেনে চলায় শাস্তির পরিমাণ আর বাড়েনি। ফলে আজ থেকে ক্রিকেটের যেকোনো কার্যক্রমে অংশ নিতে আর কোনো বাধা রইল না সাকিবের।

নিষেধাজ্ঞা পাওয়ার পর সাকিব আল হাসান জানিয়েছেন বড় ভুল করে ফেলেছেন তিনি। এতদিন ক্রিকেটের সঙ্গে থেকে আইসিসির দুর্নীতি দমন ইউনিটের প্রায় সকল বিষয় সম্পর্কেই জানতেন সাকিব। তবুও বিষয়টা নিয়ে উদাসীন থাকাতেই কপালে জোটে এই নিষেধাজ্ঞা। সাকিব নিজের করা সেই ভুল থেকে শিক্ষা নিয়েছেন। ভবিষ্যতে এমন ভুল আর করবেন না বলে প্রতিজ্ঞাও করেছেন। এমনকি এ ধরনের ভুল যেন কেউ না করে সেই উপদেশও দিয়েছেন বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার।

বর্তমানে পরিবারসহ যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান করছেন সাকিব। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নিউইয়র্কে এক সুধী সমাবেশে প্রবাসী বাংলাদেশিদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার। অনুষ্ঠানে সাকিব তার বক্তব্যের শুরুতেই করোনা মহামারীতে গোটা বিশ্বজুড়ে যারা মারা গেছেন, তাদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান। স্মরণ করিয়ে দেন, করোনা এখনো মারাত্মক ঝুঁকি। সবাইকে সতর্ক থাকার কথা বলেন তিনি। দেশের জন্য ভালো খেলার প্রতিশ্রুতি পুনর্ব্যক্ত করে সাকিব সবার কাছে দোয়াও চান।

সাকিব জানিয়েছেন, আগামী ৪ নভেম্বর দেশে ফিরছেন তিনি। বিসিবির সঙ্গে তার সার্বক্ষণিক যোগাযোগও রয়েছে। নিয়মতান্ত্রিক উপায়েই দ্রুত ক্রিকেটে ফিরবেন তিনি। শ্রীলঙ্কা সফর দিয়ে ফিরবেন বলে মাঝে দেশে ফিরেছিলেন সাকিব। যুক্তরাষ্ট্র থেকে উড়ে এসে বিকেএসপির মাঠে নিবিড় অনুশীলনও করেন তিনি। কিন্তু দুই দেশের ভেতর কোয়ারেন্টাইন ইস্যু নিয়ে সমঝোতায় না পৌঁছানোয় শেষ পর্যন্ত শ্রীলঙ্কা সফর স্থগিত হয়ে যাওয়ায় আবারো যুক্তরাষ্ট্রে পরিবারের কাছে চলে যান সাকিব। তবে বর্তমানে সাকিবকে দেখে ফিটই মনে হচ্ছে।

তবুও ফিটনেস টেস্ট করার আগে নিজের ফিটনেস নিয়ে সন্দিহান সাকিব, ‘আমি পুরোপুরি ফিট কিনা, এখনো সেটা বলতে পারছি না। দেশে গিয়ে ফিটনেস টেস্ট দিয়ে বুঝতে পারব ফিট কিনা।’

আগামী বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে বাংলাদেশের সম্ভাবনার কথা জানতে চাইলে সাকিব বলেন, ‘বাংলাদেশ বিশ্বকাপ জিতবে কিনা, এটা তো বলা মুশকিল। কিন্তু দলের তো ইচ্ছা থাকবেই। যেন আমরা ভালো ফল করতে পারি ও বাংলাদেশকে গর্ব করার মতো কিছু এনে দিতে পারি।’






ads