১৬ বছরের স্মারক নিলামে তুলবেন মাশরাফি

মানবকণ্ঠ
- ছবি : সংগৃহীত

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ২৬ এপ্রিল ২০২০, ১৬:২৪

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের সংক্রমণের পর থেকে অসহায়-দুস্থদের সহায়তা করে আসছেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। এবার নিজের পছন্দের ক্রিকেট সরঞ্জামাদি নিলামে তোলার সিদ্বান্ত নিয়েছেন তিনি।

১৬ বছরের ক্যারিয়ারে যেসব ক্রিকেট সরঞ্জামাদি তার পছন্দের সেগুলো নিলামে তুলে আর্থিক সহায়তায় এগিয়ে আসতে চান মাশরাফি।

সম্প্রতি ‘অকশন ফর অ্যাকশন’ নামে ফেসবুক পেইজে বিশ্বকাপে খেলা নিজের প্রিয় ব্যাটটি নিলামে তুলেছিলেন সাকিব। এবার তহবিল গঠন করতে সেখানে নিজের ‘প্রিয়’ক্রিকেট সরঞ্জামাদি নিলামে তুলবেন মাশরাফি।

‘অকশন ফর অ্যাকশন’-এর সহ-প্রতিষ্ঠাতা প্রিতো রেজা সাংবাদিকদর বলেন, ‘মাশরাফি তার পছন্দের পছন্দের কিছু সরঞ্জামাদি নিলাম করবেন বালে আমাদের জানিয়েছেন। গেল ১৬ বছর ধরে যেগুলো তিনি নিজের কাছে রেখেছিলেন কিন্তু কি কি সরঞ্জামাদি তা এখনো নিশ্চিত করেননি। কী কী সরঞ্জামাদি নিলামে তুলবেন তিনি জানালে আমরা সবাইকে জানাবো।’

গত ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে যে ব্যাট দিয়ে রানের ফুলঝুড়ি ফুটিয়েছেন সাকিব, সেই ব্যাটটি ‘অকশন ফর অ্যাকশন’ নামে ফেসবুক পেইজে নিলামে তুলেছিলেন। যার ভিত্তিমূল্য ছিলো ৫ লাখ টাকা। পরবর্তীতে সেটি বিক্রি হয় ২০ লাখ টাকায়।

মুশফিকুর রহিম ও মোহাম্মদ আশরাফুলও তাদের প্রিয় ব্যাট নিলামে তুলবেন। বাংলাদেশের হয় প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি যে ব্যাট দিয়ে করেছিলেন মুশফিক, সেটি নিলামে তোলা হবে।

আশরাফুল দু’টি ব্যাট নিলামে তুলবেন। এরমধ্যে একটি হলো, টেস্ট ক্রিকেটে তার প্রথম সেঞ্চুরি করা ব্যাটটি। সর্বকনিষ্ট টেস্ট সেঞ্চুরিয়ান রেকর্ড গড়েছিলেন অ্যাশ। অন্যটি হলো, অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে বাংলাদেশের প্রথম জয়ে যে ব্যাট দিয়ে সেঞ্চুরি করেছিলেন।

সাকিবের পরামর্শ অনুসারে দেশের অন্যান্য ক্রিকেটাররাও তাদের পছন্দের সরঞ্জামাদিগুলো নিলামে তুলতে এগিয়ে আসবেন বলে ধারনা করা হচ্ছে। ভক্তদের সাথে সরাসরি আলোচনায় সতীর্থদের উদ্দেশ্যে এমন ধারনা দিয়েছিলেন সাকিব।

নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফি, তার নিজ এলাকায় করোনাভাইরাসের বিপক্ষে লড়াইয়ে বেশ কিছু পদক্ষেপ নিয়েছেন। নিয়মিত প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র দিয়ে অসহায়দের সহায়তা করেছেন তিনি। নড়াইল সদর হাসপাতালের সামনে একটি জীবাণুনাশক চেম্বারও স্থাপন করেছেন মাশরাফি।

মানবকণ্ঠ/এইচকে




Loading...
ads






Loading...