ঢাবি পড়ুয়া ছাত্রের মৃত্যু: নিমিষেই শেষ মা-বাবার স্বপ্ন


  • প্রতিনিধি, দৈনিক মানবকণ্ঠ
  • ২৪ নভেম্বর ২০২২, ১৮:৪৯

প্রভাশ চন্দ্র-নীলা রানী দম্পতির স্বপ্ন ছিল অভাবের সংসারে সুখ আসবে ছেলের হাত ধরে। কিন্তু ছেলে লিমন কুমার রায়ের (২০) অকাল মৃত্যুর সংবাদে সব স্বপ্ন যেন নিমেষেই শেষ হয়ে গেল তাঁদের। সন্তান হারিয়ে যেন আর্তনাদের ভাষা হারিয়ে ফেলেছেন তাঁরা।

বুধবার (২৩ নভেম্বর) সকাল ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হলের ১০ম তলার ছাদ থেকে পড়ে যান ঢাবি শিক্ষার্থী লিমন। নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার মাগুরা ইউনিয়নের দোলাপাড়া গ্রামের রিকশাচালক প্রভাশ চন্দ্র রায়ের ছেলে লিমন। ঢাবির শিক্ষা ও গবেষণা বিভাগের তৃতীয় বর্ষের (২০১৯-২০ সেশন) ছাত্র ছিলেন।

এদিকে তাঁর মরদেহ ঢাকা থেকে বাড়িতে আসছে বলে পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন।

বুধবার বিকেলে সরেজমিনে লিমনের বাড়িতে গিয়ে কথা হয় বাবা প্রভাশ চন্দ্র রায়ের সঙ্গে। তিনি কাঁদতে কাঁদতে বলেন, ‘আমার ছেলে এভাবে আমাদেরকে ছেড়ে চলে যেতে পারে না। এর পেছনে কোনো কারণ থাকতে পারে।’ এ সময় তিনি নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত ঘটনা উদ্ঘাটনের জন্য প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন জানান।

তাঁর স্কুলশিক্ষক মিথুন কুমার রায় বলেন, ‘দরিদ্র বাবার সন্তান লিমন কুমার রায় ছিল মেধাবী। সে বাড়ির পাশে সিঙ্গেরগাড়ী দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি এবং রংপুর কারমাইকেল কলেজ থেকে এইচএসসিতে জিপিএ-৫ পেয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়। এলাকায় নম্র, ভদ্র ও মেধাবী ছাত্র হিসেবে তাঁর পরিচিতি রয়েছে।

মানবকণ্ঠ/এমআই


poisha bazar