শাহজাদপুরে বাড়ছে আত্মহত্যার প্রবণতা


  • প্রতিনিধি, দৈনিক মানবকণ্ঠ
  • ১২ আগস্ট ২০২২, ১৭:১৬

সিরাজগঞ্জ শাহজাদপুরে উদ্বেগজনক হারে বেড়ে চলেছে আত্মহত্যা ও আত্মহত্যা চেষ্টার প্রবণতা। সপ্তাহের ব্যবধানে আত্মহত্যায় প্রাণ গেল ৪ জনের এবং আত্মহত্যার চেষ্টা চালিয়ে ব্যার্থ হয়েছে ২ জন। গত ৩ মাসে যারা বিষপান ও গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হয়েছে প্রায় ৫২ জন। চলতি মাসসহ গত তিন মাসে থানায় ইউডি মামলা হয়েছে ১৭টি।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সূত্রে জানা যায়, উপজেলায় গত মে মাসে ৯ জন ও জুন মাসে ২৩ জন জুলাই মাসে ২০ জন এবং চলতি মাসে ২ জন। এদের মধ্যে ৩৩ জনই নারী।

অপরদিকে থানা পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত মে মাসে ৫ জন ও জুন মাসে ২ জন জুলাই মাসে ৬ জন এবং চলতি মাসে ৪ জন।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, আত্মহত্যার চেষ্টা এবং আত্মহত্যাকারীদের মধ্যে অধিকাংশের বয়স ১৮-৩৫ বছরের মধ্যে।

প্রাপ্ত তথ্যনুসারে, সপ্তাহের ব্যবধানে আত্মহত্যায় প্রাণ গেল ৪ জনের। তারমধ্যে তিনজন পুরুষ ও একজন নারী কয়েক দিনের ব্যবধানে প্রাণ হারান আত্মহত্যায়। গত বৃহস্পতিবার (১১ আগস্ট) রোগের যন্ত্রণা সহ্য করতে না পেরে এক গৃহবধুর আত্মহত্যার করেছেন। গত শুক্রবার (৫ আগস্ট) একজন মোবাইল ফোন কিনে না দেয়ার জন্য অপরজন নেশাগ্রস্থ হওয়ায় আত্মহত্যার করেছে এমনি কথা বলেছিল পরিবারের সদস্যরা। হঠাৎ আত্মহত্যার প্রবনতা বৃদ্ধি পাওয়ায় ভাবিয়ে তুলেছে উপজেলাবাসীকে।

প্রাপ্ততথ্য পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, নারী ও পুরুষরা প্রধানত দুভাবে আত্মহত্যা করে থাকেন। আত্মহত্যার একটি ধরণ হচ্ছে, গলায় ফাঁস এবং আরেকটি বিষপানে আত্মহত্যা। তবে হারপিক পান ও ইদুর তারানোর গ্যাস টেবলেট সেবনেও আত্মহত্যা করে থাকেন কিছু মানুষ।

শাহজাদপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক অপারেশন্স আব্দুল মজিদ বলেন, আমরা থানা পুলিশ সিদ্ধান্ত নিয়েছি এই সপ্তাহ থেকেই বিট পুলিশিং এবং প্রতিটি স্কুলে গিয়ে বিষটি বুঝানো জন্য চেষ্টা করা হবে এবং তিনি প্রতিটা বাবা-মাকে সন্তানের সঙ্গে কঠোর ভাবে পেশ না হয়ে যেন সন্তানকে সংশোধন করার সময় দেয়া এবং তাদের সঙ্গে বন্ধুসুলভ আচরণ করতে তিনি অনুরোধ করেন।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. তরিকুল ইসলাম বলেন, বিষয়টি ইতিমধ্যেই আমার নজরে এসেছে। আমি উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার এবং প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারকে ডেকে এবং চিঠি দিয়ে অবগত করবো যে, প্রতিটি বিদ্যালয়ে যেন সপ্তাহে অন্তত একদিন আত্মহননের ক্ষতিকারক দিক সম্পর্কে শিক্ষার্থীদের বুঝানো হয় এবং পাশাপাশি আমি নিজেও যখন যে এলাকাতে যাব সেই এলাকার বিদ্যালয়গুলোতে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে এ বিষয় নিয়ে মতবিনিময় করব।

মানবকণ্ঠ/এমআই


poisha bazar