বিশ্বম্ভরপুরে নষ্ট হচ্ছে বোর ধান


  • প্রতিনিধি, দৈনিক মানবকণ্ঠ
  • ২০ মে ২০২২, ২১:৫১

সুনামগঞ্জ বিশ্বম্ভরপুর উপজেলায় টানা বৃষ্টি ও রোধ না থাকায় গেরা এসে পছে যাচ্ছে কৃষকের সুনালী স্বপ্ন। ভিজে যাওয়া ধান শুকিয়ে ঘরে তুলতে পারছেননা। পাকা ধান পানির নিছে তলিয়ে গেছে তাতে চারা গজিয়ে যাবে নিয়ে এখন চিন্তিত কৃষকেরা।

সরেজমিনে বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, উপজেলাতে নেই বিদ্যুৎ, বৃষ্টির জন্য ধান শুকাতে পারছেন না কৃষকরা। অনেক কৃষক ক্ষেতের ধান কেটে ঘরে তুলেছেন আবার কারও কারও কাটা ধান রয়ে গেছে। হঠাৎ বৃষ্টি এসে অনেক স্থানেই ধান ভিজে গেছে।

উপজেলার ৫টি ইউনিয়নের মধ্যে ৩টি ইউনিয়নের ইচক্রিমের প্রায় ১৫০০ হেক্টর জমির ধান পানির নিছে তলিয়ে গেছে। ৬-৭ দিন হল অত্র এলাকার কৃষকের সুনালী স্বপ্ন পানির নিছে। আজ কালের মধ্যেই তলিয়ে যাওয়া ঐ ধান পছন ধরবে বলে কৃষকের দারনা।

সুনামগঞ্জের বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার বাদাঘাট দক্ষিণ ইউনিয়নের ললিয়া পুর গ্রামের কৃষক আসকর আলী বলেন, ১৫ কিয়ার জমির ধান কাটতেই পারিনি।

পলাশ ইউনিয়নের মুক্তখলা গ্রামের কৃষক সইবুর রহমান বলেন, আমার ৫ কিয়ার জমিনের ধান রইদ না থকায় ফুকাইতাম পারতাছি না। গেরা আইয়া ফইচ্ছা যাইতাছে।

বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা নয়ন মিয়া জানান, বৃষ্টিতে কেটে রাখা ধান চারা গজিয়ে কিছুটা ক্ষতি হচ্ছে। তবে যদি বৃষ্টি দীর্ঘস্থায়ী হয় তাহলে কৃষকের ক্ষতির মাত্রা বাড়বে। অত্র এলাকার নন-হাওরের অনেক ধান পানির নিছে তলিয়ে গেছে। সে গুলিও পানি না কমায় পঁচে যাওয়ার সম্ভাবনা আছে।

মানবকণ্ঠ/এমআই


poisha bazar