ভারত সঙ্গে সম্পর্কের মূল ভিত্তি মুক্তিযুদ্ধ : শাহরিয়ার আলম


  • অনলাইন ডেস্ক
  • ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ২১:৫২

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম বলেছেন, বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের সম্পর্কের মূল ভিক্তিই হলো মহান মুক্তিযুদ্ধ। স্বাধীনতার সপক্ষের শক্তি এক কথায় বলতে গেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং তারও আগে ১৯৭২ সালের ১০ জানুয়ারি ফিরে এসে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭৫ এর ১৫ আগস্ট পর্যন্ত যে সর্ম্পক বজায় রেখেছিলেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যার পর সেই সর্ম্পকটি উল্টো পথে চলেছিল।

বুধবার (০৮ ডিসেম্বর) সকালে তিনদিনের সরকারি সফরে ভারতে যাওয়ার পথে চাঁপাইনবাবগঞ্জের সোনামসজিদ স্থলবন্দর ইমিগ্রেশনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রতিবেশীর সঙ্গে সু-সর্ম্পক রেখেই দেশকে চালাতে হয়। বাংলাদেশ-ভারতের কূটনৈতিক সর্ম্পকের মৈত্রী ৫০ বছরের ও এই সর্ম্পক বিশ্বে দুই দেশের মধ্যে এক ঐতিহাসিক সর্ম্পক।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে সোনামসজিদ স্থলবন্দর পর্যন্ত রেলপথ সম্প্রসারণ নির্মাণকাজ চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে জানিয়ে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, করোনা পরিস্থিতির কারণের অনেক আলোচনায় স্থগিত ছিল। তবে পার্শ্ববর্তী আমনুরা রেলস্টেশনে পণ্য পরিবহনের ক্ষেত্রে রেল সংযোগ চালু আছে। সোনামসজিদ বন্দর থেকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পর্যন্ত রেলপথ সম্প্রসারণ নির্মাণকাজ চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে। ইতোমধ্যে রেলপথমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। একই সঙ্গে ভারত-বাংলাদেশ রেলপথ মন্ত্রণালয় এ বিষয়ে আলোচনায় লিপ্ত রয়েছে।

তিনি বলেন, ভারত ভ্রমণে সাধারণ যাত্রীদের সড়কপথে যাতায়াতের জন্য ইমিগ্রেশন খোলার বিষয়ে সরকার সক্রিয় অবস্থানে আছে। এ ব্যাপারে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে ক্লিয়ারেন্স পাওয়ার পর এটি পুরোপুরিভাবে খুলে দেওয়া হবে। তবে মহামারির নতুন ধরন ওমিক্রন যদি খুব একটা ঝুঁকিপূর্ণ না হয় তাহলে দ্রুত সড়কপথে সফরকারীদের যোগাযোগ যাতে আবার স্থাপিত হয় এ বিষয়ে সর্বোচ্চ গুরত্ব দেওয়া হবে।

শাহরিয়ার আলম আরও বলেন, যেকোনো দুটি দেশের মধ্যে কিছু সমস্যা থাকবেই। তবে সেদিকে গুরুত্ব না দিয়ে আরও সম্পর্ক উন্নয়নের দিকে মনোযোগ দিতে হবে। বাংলাদেশ-ভারতের সাড়ে ৪ হাজার কিলোমিটার দীর্ঘ সীমান্ত রয়েছে। দুই দেশের সম্পর্ক উন্নয়নে কাজ করছে সরকার।

তিনি আরও বলেন, এই স্থলবন্দর দিয়ে ভারতে প্রথম যাচ্ছি। সঙ্গে বাবা-মা রয়েছেন। আমার বাবার পৈত্রিক নিবাস সোনামসজিদ স্থলবন্দর দিয়ে খুব কাছে। ১৯৬০ এর দশকে এই সীমান্ত দিয়েই আমার বাবা বাংলাদেশে প্রবেশ করেছেন। আগামী রোববার বেনাপোল সীমান্ত দিয়ে দেশে প্রবেশের কথা রয়েছে।

 এ সময় মন্ত্রীকে শুভেচ্ছো জানাতে উপস্থিত ছিলেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ-১ (শিবগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য ডা. সামিল উদ্দিন আহমেদ শিমুল, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাকিব আল রাব্বী ও পানামা সোনামসজিদ পোর্ট লিংক লিমিটেডের পোর্ট ম্যানেজার মাইনুল ইসলামসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতারা।


poisha bazar

ads
ads