পটুয়াখালীতে মোটরসাইকেল চালক হত্যায় ব্যবহৃত অস্ত্র উদ্ধার


  • প্রতিনিধি, দৈনিক মানবকণ্ঠ
  • ২৪ নভেম্বর ২০২১, ২০:৫০,  আপডেট: ২৪ নভেম্বর ২০২১, ২১:১৮

জাকির মাহমুদ সেলিম, পটুয়াখালী

পটুয়াখালী সদরের বড়বিঘাই ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ওহিদুজ্জামান মজনু মোল্লার মোটরসাইকেল চালক মাসুদ রানা ব্যাপারীকে গত (৬ নভেম্বর) শ‌নিবার নৃশংস ভাবে কুপিয়ে হত্যা করা হয়।

এ ঘটনায় নিহতের ভাই মাহফুজুর রহমান (১৬) পটুয়াখালী সদর থানায় অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে মামলা দায়ের করেন। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) পটুয়াখালী, ডিবি ও পটুয়াখালী থানা পুলিশের সমন্বয়ে যৌথ অভিযানিক দল মামলা দায়েরের পাঁচ ঘণ্টার মধ্যেই হত্যায় জড়িত চারজনকে আটক করে।

আটক ব্যাক্তিদের জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, নির্বাচন চলাকালে তারা স্থানীয় চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ওয়াহিদুজ্জামান মজনু মোল্লার সমর্থনে প্রচারণার কাজ করতেন। স্থানীয় রাজনৈতিক দ্বন্দ্বের ফায়দা হাসিলের উদ্দেশ্যে ভিকটিম মাসুদ রানাকে টার্গেট করে হত্যার পরিকল্পনা করা হয়। গ্রেফতারকৃত আসামি আল-আমিন হত্যার দায় স্বীকার করে জড়িত অন্যান্যদের নাম উল্লেখ করে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেন।

গত ১১ নভেম্বর বড়বিঘাই এলাকা থেকে স্থানীয়দের সহায়তায় এ ঘটনার মাস্টার মাইন্ড বিল্লাল হোসেনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। বিল্লালের কাছ থেকে পাওয়া তথ্যানুযায়ী এবং বাকী আসামিদের দেওয়া জবানবন্দি পর্যালোচনা শেষে ঘটনায় জড়িত থাকা অপর আসামি মাসুম বিল্লাহকেও গ্রেফতার করে পুলিশ।

জানা যায়, গত ২৩ নভেম্বর এলাকা থেকে ঢাকায় পালিয়ে যাওয়ার পথে মির্জাগঞ্জ থানা এলাকা থেকে আসামি মাসুম বিল্লাহ পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়। গ্রেফতারকৃত প্রত্যেক আসামিই এই হত্যাকান্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করলেও হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত আলামত সমূহ উদ্ধারের ব্যাপারে কৌশলে নিজেদের এড়িয়ে যায়।

সর্বশেষ আসামী মাসুম বিল্লাহকে নিবিড় ও ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত অস্ত্রের কথা পুলিশের কাছে স্বীকার করেন।

সেই তথ্য থেকে জানা যায়, বড়বিঘাই ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ওয়াহিদুজ্জামান মজনু মোল্লার বাড়ির উত্তর পাশের পুকুরে হত্যায় ব্যবহৃত অস্ত্র ফেলে রাখা হয়। তথ্য বিশ্লেষণ করে পরবর্তীতে পুকুরে অনুসন্ধান চালিয়ে একটি চাইনিজ কুড়াল, লোহার রডের সঙ্গে স্ক্রু সংযুক্ত চেইন গিয়ারের সমন্বয়ে তৈরি দেশিয় অস্ত্র এবং দুটি দা উদ্ধার করে পুলিশ।

বুধবার (২৪ নভেম্বর) সকাল ১১টায় পটুয়াখালী জেলা পুলিশের প্রেস ব্রিফিং এ জানানো হয় যে, এই হত্যাকাণ্ডে সাথে জড়িত বাকী আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।


poisha bazar

ads
ads