চট্টগ্রামে করোনার থাবায় প্রাণ গেল প্রধান শিক্ষকের


  • অনলাইন ডেস্ক
  • ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২০:১০

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে মারা গেছেন চট্টগ্রামের হাটহাজারী উপজেলা ছিপাতলী আলী মোহাম্মদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ফেরদৌসি বেগম। রোববার (২৬ সেপ্টেম্বর) বিকালে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের আইসিইউতে (নিবিড় পরিচর্যাকেন্দ্র) চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

এছাড়া ওই উপজেলায় আরও তিন প্রাথমিক শিক্ষক করোনা আক্রান্ত হয়ে হোম আইসোলেশনে আছেন।

সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. শাহিদুল আলম ।

তিনি বলেন, ছিপাতলী আলী মোহাম্মদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ফেরদৌসি বেগম করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। তবে ওই স্কুলের আর কারও করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর পাইনি। এছাড়া অন্য স্কুলের আরও তিনজন শিক্ষক করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, স্কুল খোলার পরই তারা করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। ফেরদৌসি বেগম সুস্থ ছিলেন। তিনি হঠাৎ করে অসুস্থ হয়ে যান। তিনি যেদিন থেকে অসুস্থবোধ করেছেন সেদিন থেকে বিদ্যালয়ে আসেননি। শিক্ষা অফিস থেকেও তাকে স্কুলে না আসার জন্য বলা হয়েছিল। যে শিক্ষকরা আক্রান্ত হয়েছেন তাদেরকে আইসোলেশনে থাকতে বলা হয়েছে। এছাড়া সব স্কুলে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের তাপমাত্রা পরিমাপ করা হচ্ছে। যখনই কারও করোনা শনাক্ত হচ্ছে তাদের বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

এ বিষয়ে হাটহাজারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার সাইদা আলম বলেন, স্কুল খোলার পরে উপজেলার চারজন শিক্ষক করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এরমধ্যে ফেরদৌস বেগম করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। বাকি তিনজন আইসোলেশনে আছেন। তবে শারীরিকভাবে তারা ভালো আছেন।

তিনি বলেন, ফেরদৌস বেগম ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে অসুস্থবোধ করায় আর স্কুলে আসেননি। ২০ তারিখে তার করোনা শনাক্ত হয়। এরপর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রোববার মারা গেছেন।

সাইদা আলম আরও বলেন, যে স্কুলগুলোতে শিক্ষকরা করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ওই স্কুলের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা এখন পর্যন্ত ভালো আছেন। আর হাটহাজারী মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের নমুনা পরীক্ষা করতে দেওয়া হয়েছে। তাদের পরীক্ষার ফলাফল এলে আমরা পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেব।

মানবকণ্ঠ/এমএ


poisha bazar

ads
ads