সিলেটে বৃষ্টিতে ঈদ জামাত


  • প্রতিনিধি, দৈনিক মানবকণ্ঠ
  • ২১ জুলাই ২০২১, ১০:৪৭

পবিত্র ঈদ-উল-আযহা আজ। বুধবার (২১ জুলাই) সকালে সিলেটের প্রধান ও বড় মসজিগুলোতে একাধিক ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। ত্যাগের মহিমায় মহিমান্বিত পবিত্র ঈদ জামাতে বৃষ্টি উপেক্ষা করে মুসল্লিদের সরব উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে।

মঙ্গলবার দিনগত মধ্য রাত থেকেই বৃষ্টিপাত শুরু হয় সিলেটে। সকালেও তা অব্যাহত ছিল। বৃষ্টির মধ্যেই সিলেটে ঈদের নামাজ আদায় করেন ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ায় এবারও সিলেট নগরের ঈদগাহগুলোতে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়নি। মহানগরের সবচেয়ে বড় ও চারশ বছরের ঐতিহ্যবাহী ঈদগাহ শাহী ঈদগাহসহ সবগুলো ঈদগাহে ঈদ জামাত না পড়ে মসজিদে ঈদ জামাত আদায় করতে নগরবাসীর প্রতি আহবান জানিয়েছিলন সিলেট সিটি করর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। মেয়রের আহ্বানে সাড়া দিয়েছেন সিলেটবাসী। তবে সিলেটজুড়ে পাঁচ হাজারেরও বেশি মসজিদে হয়েছে জামাত। এসব জামাতে ছিল মুসল্লিদের উপচে পড়া ভিড়।

সিলেটের প্রধান ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে হজরত শাহজালাল (রহ.) মাজার মসজিদে। এখানে সকাল ৮টায় জামাত অনুষ্ঠিত হয়। স্বাস্থ্যবিধি মেনে নামাজ আদায় করেন মুসল্লিরা। একইভাবে নগরের বন্দরবাজারস্থ ঐতিহ্যবাহী কুদরত উল্লাহ জামে মসজিদে পবিত্র ঈদুল আজহার ৩টি ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। এর মধ্যে সকাল ৭টায় প্রথম, ৮টায় দ্বিতীয় ও ৯টায় তৃতীয় জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

বন্দরবাজারস্থ কালেক্টরেট জামে মসজিদেও ৩টি জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এর মধ্যে সকাল ৮টায় প্রথম, ৯টায় দ্বিতীয় ও ১০টায় তৃতীয় জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। বন্দরবাজার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে ও লামাপাড়া জামে মসজিদে সকাল ৮টায় একটি করে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এছাড়া হজরত শাহপরান (রহ.) মাজার মসজিদ, হজরত বোরহান উদ্দিন মাজার মসজিদ, কাজীরবাজার জামেয়া ইসলামিয়া মাদরাসা মসজিদসহ বিভিন্ন মসজিদে সকাল ৭টা, ৮টা ও ৯টায় ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃষ্টি মাথায় নিয়েই এসব ঈদ জামাতে মুসল্লিরা হাজির হন। তারা মহান আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের নিমিত্তে নামাজ আদায় করেন, খুতবা শোনেন। মোনাজাতে অংশ নিয়ে মুসল্লিরা করোনামুক্তির জন্য কান্নায় ভেঙে পড়েন। ঈদ জামাত শেষে সামর্থ্যবানরা পশু কোরবানি ও চামড়া ছাড়াতে ব্যস্ত সময় পার করছেন সিলেট নগরবাসী।

মানবকণ্ঠ/এনএস


poisha bazar

ads
ads