প্রেমের প্রতিপক্ষকে শাস্তি দিতে নিজেই পিস্তল তৈরি করে গুলি


  • প্রতিনিধি, দৈনিক মানবকণ্ঠ
  • ০৯ মে ২০২১, ২২:০০

প্রেমে বাঁধা হয়ে দাঁড়ানো প্রতিপক্ষ ছোট ভাইকে শিক্ষা দিতে ইউটিউব ঘেটে পিস্তল তৈরি করে তৌফিকুর রহমান সীমান্ত (২৪)। এরপর শনিবার রাতে নিজের তৈরি পিস্তল নিয়ে মানিকগঞ্জ শহরের এলজিইডি অফিসের পাশে প্রতিপক্ষ এহিয়া হোসেন মির্জা ওরফে নূর মোহাম্মদ(১৬) গুলি করে।

আহত এহিয়া হোসেন মির্জাকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে সাভার একটি বেসরকারি মেডিকেল কলেজে হাসপাতলে ভর্তি করা হয়েছে।

মানিকগঞ্জ সদর সার্কেল অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ভাস্কর সাহা জানান, মানিকগঞ্জ সদর উপজেলা জয়রা এলাকায় মাসুদুর রহমানের ছেলে তৌফিকুর রহমান সীমান্ত ছবি আঁকা, ইনটেরিয়র ডিজাইনসহ বহু সৃষ্টিশীল কাজ করেন। সে ৯ম শ্রেণিতে পড়ুয়া একটি মেয়েকে পছন্দ করে। কিন্তু ওই মেয়ের সাথে এহিয়া হোসেন মির্জা ওরফে নূর মোহাম্মদ(১৬) সম্পর্ক হয়। এতে সীমান্ত এহিয়াকে শিক্ষা দিতে পরিকল্পনা করে। পরে ইউটিউব ঘেটে সবচেয়ে কম খরচে কম পরিশ্রমে কিভাবে পিস্তল বানানো যায় তা রপ্ত করে শখের বশেই বানিয়ে ফেলে বারুদ আর সীসার বুলেটের পিস্তল। ওই পিস্তল নিয়ে শনিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে এলজিইডি অফিসের পাশে এহিয়ার বাসার সামনে এসে নিজের তৈরি পিস্তল দিয়ে এহিয়াকে গুলি করে। ওই গুলি এহিয়ার গলায় লেগে আহত হয়। তাকে রাতেই উন্নত চিকিৎসার জন্য সাভার একটি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এদিকে রাতে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে সদর উপজেলা নবগ্রাম থেকে সীমান্তকে তার নানা বাড়ি থেকে রাত ৩টায় তার নিজের তৈরি পিস্তলসহ গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তার হওয়ার পর সীমান্ত পুলিশের কাছে তার অপরাধ শিকার করেছেন।

এই ঘটনায় আহত এহিয়ার মা নূরজাহান বাদী হয়ে ও অস্ত আইনে এসআই শফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে মামলা করছেন। রোববার দুপুরে সীমান্তকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

মানবকণ্ঠ/এসকে


poisha bazar

ads
ads