সাভারে স্মৃতিসৌধের সামনে ছিনতাইয়ের কবলে ইত্তেফাকের সাংবাদিক


poisha bazar

  • প্রতিনিধি, দৈনিক মানবকণ্ঠ
  • ০৪ মে ২০২১, ১৬:৫৮

সাভারে জাতীয় স্মৃতিসৌধের সামনে ছিনতাইকারীদের কবলে পড়ে আহত ও প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র খুইয়েছেন দৈনিক ইত্তেফাকের মানিকগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি শহীদুল ইসলাম সুজন।

এ ঘটনায় আশুলিয়া থানায় সোমবার (৩ মে) রাতে একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন তিনি। এর আগে রোববার (২ মে) রাত ১০টার দিকে সাভারের জাতীয় স্মৃতিসৌধের সামনে ছিনতাইয়ের কবলে পড়েন তিনি।

ভুক্তভোগীর বক্তব্য ও লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, রোববার রাতে পেশাগত কাজ শেষে নবীনগর থেকে মানিকগঞ্জ ফেরার জন্য ভাড়ায় চালিত প্রাইভেটকারে ওঠেন ওই সাংবাদিক। গাড়িটি গণবিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় আসলে প্রাইভেটকারে থাকা ছদ্মবেশী তিন জন ছিনতাইকারী তাকে মারধর শুরু করে। এসময় তার কাছে থাকা মুঠোফোন, টাকা কেড়ে নিয়ে তার স্ত্রীকে ফোন করে পাঁচ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। এসময় নিজের সাংবাদিক পরিচয় জানালে তাকে বিভিন্ন ভয়ভীতি দেখিয়ে কালামপুর বাসস্ট্যান্ডের ১০০ গজ দূরে বিসিক এলাকায় হাত-পা বাঁধা অবস্থায় ফেলে চলে যায়।

এসময় তার কাছ থেকে তিনটি মোবাইল ফোন, আংটি, ৩ হাজার টাকা, ঘড়ি ও প্রেস আ্যক্রিডেশন কার্ড (সিরিয়াল- ৬৬৮৩) ছিনিয়ে নেয় ছিনতাইকারীরা।

ভুক্তভোগী শহিদুল ইসলাম সুজন বলেন, আমাকে ছিনতাইকারিরা গাড়ী থেকে ফেলে দেওয়ার পর তাদের চলে যাওয়ার উপস্থিতি নিশ্চিত হয়ে আমি পাশের একটি বাড়িতে উঠে আশ্রয় নেই। তারা আমার হাতের বাঁধন খুলে দেয় এবং বাড়িতে যোগাযোগ করার জন্য মোবাইল ফোনে কথা বলার সুযোগ দেন। পরবর্তীতে আমার পরিবারের লোকেরা আমাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য মানিকগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে আসে চিকিৎসা দেয়। পরে থানায় গিয়ে আমি লিখিত অভিযোগ দায়ের করি।

এ বিষয়ে আশুলিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কামরুজ্জামান বলেন, এই মামলাটি আমরা গুরুত্ব দিয়ে দেখছি। ইতোপূর্বেও এই সড়কে ছিনতাইয়ের ঘটনায় আমরা অপরাধীদের আটক করেছি। খুব দ্রুতই আমরা ছিনতাইকারীদের আটক করতে সক্ষম হব।

মানবকণ্ঠ/এনএস






ads
ads