বোরকা পরে ঘরে ঢুকে বিধবাকে ধর্ষণ করল ছাত্রদল নেতা


poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ০৫ মার্চ ২০২১, ১২:০৮,  আপডেট: ০৫ মার্চ ২০২১, ১২:১১

সিলেটের কানাইঘাট উপজেলায় বোরকা পরে ঘরে ঢুকে বিধবাকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে এক ছাত্রদল নেতার বিরুদ্ধে। ধর্ষণের শিকার তিন সন্তানের জননী ওই নারী আতঙ্কে স্বামীর ভিটে ছেড়ে আশ্রয় নিয়েছেন বাবার বাড়িতে।

ঘটনার ১৩ দিন অতিবাহিত হলেও ধর্ষণে অভিযুক্ত ছাত্রদল নেতা জুবায়ের আহমদ শিপু ধরাছোঁয়ার বাইরে রয়েছেন। তিনি সিলেট সরকারি কলেজ ছাত্রদলের যুগ্ম-আহ্বায়ক। তার বিরুদ্ধে কানাইঘাট থানায় মামলা হয়েছে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, ১৯ ফেব্রুয়ারি রাত ১২টার দিকে বোরকা পরে ওই নারীর ঘরের দরজা কেটে ভেতরে ঢোকে ছাত্রদল নেতা শিপু। এরপর অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে তাকে ধর্ষণ করে। ধর্ষণের পর যাওয়ার সময় বিধবা নারীর মোবাইল নম্বর নিয়ে যায় শিপু। এছাড়া ঘটনাটি কাউকে জানালে হত্যার হুমকিও দেয়া হয়। পরের দিন ফোন করে বলে সে আবারো আসবে। সুযোগ না দিলে বড় ধরনের ক্ষতি করবে। ভয়ে স্বামীর ভিটা ছেড়ে বাবার বাড়ি চলে যান ভুক্তভোগী নারী।

ভুক্তভোগীর ভাই জানান, তার ৩১ বছর বয়সী বোনের ১১ বছর বয়সী একটি মেয়ে, আট ও চার বছর বয়সী দুটি ছেলে রয়েছে। ছোট ছেলেকে মাত্র কয়েক মাসের রেখে প্রায় সাড়ে তিন বছর আগে মারা যান স্বামী। ঘটনার রাতে বিধবা নারীর বড় দুই সন্তান ছিল তাদের মামার বাড়িতে। এ সুযোগে দেশীয় অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে ধর্ষণ করে শিপু।

ঘটনার পরের দিন কানাইঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিতে যান ভুক্তভোগী নারী। পরে তাকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান চিকিৎসকরা। সেখানে থেকে চিকিৎসা শেষে তিনি বর্তমানে বাবার বাড়িতে রয়েছেন।

কানাইঘাট থানার ওসি (তদন্ত) মো. জাহিদুল ইসলাম বলেন, ধর্ষণ মামলার আসামিকে গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।






ads
ads