পরকীয়ার সন্দেহে ঘুমন্ত স্বামীর পুরুষাঙ্গ কর্তন


poisha bazar

  • প্রতিনিধি, দৈনিক মানবকণ্ঠ
  • ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ০৯:৪০

পরকীয়া প্রেমের সন্দেহে স্বামীর পুরুষাঙ্গ কর্তনের অভিযোগে খাদিজা বেগম নামে এক গৃহবধূকে আটক করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় লালমনিরহাট সদর উপজেলার গোকুন্ডা ইউনিয়নের গুড়িয়াদহ মন্ডলেরহাট এলাকার স্বামীর বাড়ি থেকে অভিযুক্ত স্ত্রীকে আটক করে সদর থানা পুলিশ।

গৃহবূধ খাদিজা ওই এলাকার রাসেল মিয়ার স্ত্রী।

পুলিশ জানায়, সদর উপজেলার গোকুন্ডা ইউনিয়নের গুড়িয়াদহ মন্ডলেরহাট এলাকার শাহজাহান আলীর ছেলে রাসেল মিয়ার (৩০) সঙ্গে কয়েক বছর আগে বিয়ে হয় খাদিজা বেগমের। কিছুদিন ধরে স্বামী রাসেলের ওপর পরকীয়া প্রেমের অভিযোগ তোলেন স্ত্রী খাদিজা বেগম। এ নিয়ে কয়েক দিন ধরে তাদের সংসারে বিবাদ চলছিল।

বুধবার দিনগত রাতে খাবার শেষে ঘুমিয়ে যান স্বামী রাসেল মিয়া। হঠাৎ ধারালো অস্ত্র দিয়ে স্বামী রাসেল মিয়ার পুরুষাঙ্গ কর্তনসহ মাথায় ও বাম চোখে কোপ দেন খাদিজা বেগম। তখন রাসেলের চিৎকারে পরিবারের লোকজন এসে তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে আশঙ্কাজনক অবস্থায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে।

তার পরিবারের খবরে সদর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে অভিযুক্ত স্ত্রী খাদিজা বেগমকে আটক করে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান আহত রাসেলের পরিবার।

লালমনিরহাট সদর থানার ওসি শাহ আলম বলেন, আহত রাসেলের পরিবারের মৌখিক অভিযোগে স্ত্রী খাদিজাকে আটক করা হয়েছে। আহত রাসেলের পুরুষাঙ্গসহ মাথায় ও বাম চোখে পর্যাপ্ত জখম হয়েছেন। স্ত্রীর সঙ্গে আরো কেউ জড়িত কি না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। মামলা দায়ের প্রস্তুতি চলছে।






ads
ads