মুজিববর্ষ উপলক্ষে ঘর পাচ্ছে নারায়ণগঞ্জের ৬৬৭ গৃহহীন পরিবার

জেলা প্রশাসনের সংবাদ সম্মেলন - ছবি: প্রতিনিধি

poisha bazar

  • প্রতিনিধি, দৈনিক মানবকণ্ঠ
  • ২১ জানুয়ারি ২০২১, ১৯:০৩

নারায়ণগঞ্জে প্রথম পর্যায়ে ভূমিহীন ও গৃহহীন ৩৪৬ পরিবারের মাঝে দুই শতাংশ জমিসহ আধা পাকা নতুন ঘরের চাবি তুলে দেওয়া হবে। আগামী শনিবার (২৩ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ১০টায় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এই আয়োজনে রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদ থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত থাকবেন নারায়ণগঞ্জের সংসদ সদস্য পাট ও বস্ত্র মন্ত্রী, জেলা প্রশাসক, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, জনপ্রতিনিধিরা।

বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) দুপুর সাড়ে ১২টায় এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ। জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার বিভাগের উপ পরিচালক মোঃ মনিরুজ্জামান বকাউল, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) সেলিম রেজা প্রমুখ।

সংবাদ সম্মেলনে জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ জানান, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে মুজিব বর্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সারাদেশে ৬৬ হাজার ১৮৯ ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে দুই শতাংশ জমিসহ ঘর হস্তান্তরের কার্যক্রমের উদ্বোধন করবেন।

সারাদেশের মতো নারায়ণগঞ্জ জেলার পাঁচ উপজেলার শ্রেণিভুক্ত অর্থ্যাৎ আশ্রয়ণ-২ প্রকল্প হতে ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের জন্য বরাদ্দকৃত ৬৬৭টি ঘরের মধ্যে প্রথম ৩৪৬টি ঘর সুবিধাভোগীদের মাঝে হস্তান্তর করা হবে।

কবুলিয়ত জমির খতিয়ান, ঘর প্রদানের সনদ ও চাবি হস্তান্তরের এই কার্যক্রম ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এসময় জেলা প্রশাসক জানান, এই প্রকল্পের মাধ্যমে জেলার ১ হাজার ৭৫০ গৃহহীন সদস্য পাবে আশ্রয়স্থল। জেলায় বরাদ্দকৃত বাকি ৩২১টি ঘর নির্মাণের কাজ চলছে। দুই কক্ষবিশিষ্ট প্রতিটি ঘরই হবে আধাপাকা অর্থ্যাৎ চারদিকে দেয়াল উপরে টিন। জেলার মধ্যে সবচেয়ে বেশি ঘর বরাদ্দ এসেছে রূপগঞ্জ উপজেলায়।

উপকারভোগীদের শিক্ষা, স্বাস্থ্য, কর্মসংস্থানসহ সকল ধরনের সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করতে অধিকাংশ ঘর স্থানীয় গ্রোথ সেন্টারের নিকটবর্তী স্থানে স্থাপন করা হয়েছে। প্রয়োজনীয় বিদ্যুৎ সুবিধা ও বিশুদ্ধ খাবার পানি উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে নিশ্চিত করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে এক প্রশ্নের জবাবে জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ জানান, পুরো জেলায় জমি ও ঘর নাই এমন মানুষের সংখ্যা ৪ হাজার ৯৪৪ জন। বিপরীতে জমি আছে কিন্তু ঘর নেই এমন মানুষের সংখ্যা ৫৭৮ জন। এই পরিসংখ্যান নারায়ণগঞ্জের ভোটার তালিকা হিসেবে অনুযায়ী। পর্যায়ক্রমে আশ্রয়ণ প্রকল্পে সকলকে অন্তর্ভুক্ত করা হবে।

মানবকণ্ঠ/আইএইচ

 






ads
ads