শ্রীমঙ্গলে স্ত্রী হত্যার অভিযোগে সাংবাদিক গ্রেফতার


poisha bazar

  • প্রতিনিধি, দৈনিক মানবকণ্ঠ
  • ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ১৯:২২,  আপডেট: ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ১৯:৫১

শ্রীমঙ্গলে স্ত্রীকে নির্যাতন করে হত্যার অভিযোগে অনুজ কান্তি দাশ (৪০) নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শ্রীমঙ্গল শহরের পূর্বাশা আবাসিক এলাকার নরেশ চন্দ্র দাশের ছেলে গ্রেফতারকৃত অনুজ কান্তি দাশ দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকার শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরত।

শ্রীমঙ্গল থানা সূত্রে জানা গেছে, গত ২৮ নভেম্বর অনুজ কান্তি দাশের স্ত্রী অনিতা রানী দাশকে অসুস্থ অবস্থায় সিলেটের রাগিব রাবেয়া হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। তার অবস্থার অবনতি হলে সেখানে ওইদিন আইসিউতে রাখা হলে পরদিন ২৯ নভেম্বর সে মারা যায়।

এ ঘটনায় গত ৪ ডিসেম্বর অনিতা রাণীর পরিবার থেকে তাকে নির্যাতন করে হত্যার অভিযোগ করা হয়। নিহতের বাবা দিলীপ দাশ (৬৫) বাদী হয়ে অনুজ কান্তি দাশকে প্রধান আমামি করে শ্রীমঙ্গল থানায় হত্যার অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করেন। মামলায় অনুজের মা পূরবী রাণী দাস (৬৫) ও বাবা নরেশ চন্দ্র দাশ (৭০) কে আসামি করা হয়। এ মামলার জের ধরে পুলিশ শনিবার দুপুরে নিজ বাসা থেকে অনুজ কান্তি দাশকে গ্রেফতার করে।


মামলা ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত ২০১৭ সালের মে মাসে হবিগঞ্জ জেলার বানিয়াচং উপজেলার পোকড়া গ্রামের বাসিন্দা অনিতা রানী দাশের সাথে অনুজ কান্তি দাশের পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। অনিতার পরিবার শুরু থেকে মেয়ের জামাই অনুজ কন্তি দাশের বিরুদ্ধে মদ্যপান করে প্রায় প্রতিদিন অনিতাকে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতনের অভিযোগ তোলেন। এনিয়ে এলাকায় বিচার সালিশ এবং অনিতাকে পিত্রালয়ে আটক করে রাখার ঘটনা ঘটে।

অনিতার বাবা মামলায় অভিযোগ করেন, গত ২৮ নভেম্বর তার মেয়েকে নির্যাতন করে প্রথমে শহরের একটি ক্লিনিকে এবং পরে সিলেটের রাগিব রাবেয়া হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। পরদিন অনিতা আইউসিতে থাকাবস্থায় মারা যায়।

এ ব্যাপারে শ্রীমঙ্গল থানার ওসি আব্দুছ ছালেক বলেন, নিহত অনিতা রানীর পিতার অভিযোগ ও প্রাথমিক স্বাক্ষ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে মামলার প্রধান আসামি অনুজ কান্তিকে গ্রেফতার করে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে তিনি জানান।

মানবকণ্ঠ/এনএস






ads