কলাপাড়ায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের জমি দখল করে বিক্রির অভিযোগ

পানি উন্নয়ন বোর্ডের জমি
- ছবি: প্রতিবেদক

poisha bazar

  • প্রতিনিধি, দৈনিক মানবকণ্ঠ
  • ১৭ নভেম্বর ২০২০, ১৭:২২

গোফরান পলাশ, কলাপাড়া : পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের সরকারি জমি দখল করে বিক্রির অভিযোগ উঠেছে।

জনপ্রতিনিধিসহ স্থানীয়দের অভিযোগ, মুক্তিযোদ্ধা অহিদুল আলম তালুদারের বন্দোবস্তপ্রাপ্ত দেড় একর জমির কাগজ দেখিয়ে এসব জমি বিক্রি করছেন ছোটভাই জহিরুল আলম তালুকদার।

অপরদিকে জহিরুল আলম তালুকদারের দাবী, স্থানীয় প্রভাবশালী চক্র বন্দোবস্তকৃত এই জমি দখলের জন্য তাদের নানাভাবে হয়রানি করে আসছে।

স্থানীয়দের অভিযোগ, মুক্তিযোদ্ধা অহিদুল আলম তালুকদার উপজেলার লালুয়া ইউনিয়নের চান্দুপাড়া মৌজার ৩৬৬ নং খতিয়ানের ১৪৮৬ নম্বর দাগে দেড় একর জমি বন্দোবস্তপ্রাপ্ত হন। মুক্তিযোদ্ধা বাজারের উত্তর পার্শ্বের এই জমি প্লট আকারে বিক্রি করছে ছোটভাই জহিরুল আলম তালুকদার। প্রতিটি প্লট ২ থেকে সাড়ে ৩ লক্ষ টাকায় বিক্রি করা হচ্ছে। আলাউদ্দিন ফরাজী, সজীব ফরাজী, ইলিয়াস হাওলাদার, রেজাউল মাঝি, শাহাবৃুদ্দিন মাঝি, দুলাল হাওলাদার, হাবিব হালদারাসহ ৭/৮জন এসব প্লট ক্রয় করে টিনশেড ঘর উত্তোলন করেছেন। পানি উন্নয়ন বোর্ডের জমি দখল করে বিক্রি করতে গেলে বাঁধা দেয় স্থানীয়রা।

মঞ্জুপাড়ার জলিল গাজী বলেন, অহিদুল আলম তালুদারের বন্দোবস্তকৃত দেড় একর জমি অন্যত্র হলেও বাজারের সাথে দেখিয়ে অবাধে বিক্রি করছেন। এ নিয়ে প্রতিবাদ করতে গেলে একই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মাসুদসহ ৬ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন জহিরুল আলম তালুকদার।

লালুয়া ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য মাসুদ বলেন, সরকারি জমি দখল ও বিক্রির বিষয়টি নিয়ে তৎকালীন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ করলে ওই জমিতে ঘর তোলাসহ বিক্রি করতে নিষেধ করা হয়। কিন্ত এ নির্দেশ আমলে না নিয়ে জহিরুল আলম তালুকদার জমি বিক্রি করে যাচ্ছেন। এতে বাজারের সৌন্দর্যহানিসহ সরকারি জমি বেহাত হয়ে যাচ্ছে।

পানি উন্নয়ন বোডের্র কলাপাড়া সার্কেলের উপ-সহকারী প্রকৌশলী তাজুল ইসলাম বলেন, সরজমিনে গিয়ে জহিরুল আলম তালুকদারকে ঘর উত্তোলনে নিষেধ করে দেয়া হয়েছে।

কলাপাড়া ইউএনও আবু হাসনাত মোহাম্মদ শহীদুল হক বলেন, বিষযটি জেনেছি। তদন্ত করে আইনী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মানবকণ্ঠ/এইচকে






ads
ads