১০ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর খুলনার সঙ্গে রেল যোগাযোগ শুরু

- ছবি : সংগৃহীত

poisha bazar

  • অনলাইন ডেস্ক
  • ২৭ অক্টোবর ২০২০, ১৪:২৭

প্রায় ১০ ঘণ্টা চেষ্টার পর খুলনার সঙ্গে সারাদেশের রেল যোগাযোগ স্বাভাবিক করতে পেরেছে রেল কর্তৃপক্ষ। ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুরে সোমবার দিবাগত রাত পৌনে ২টার দিকে দুটি মালবাহী ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনায় খুলনার সঙ্গে সারা দেশের রেল যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এতে অনিশ্চয়তার মধ্যে পড়েন দক্ষিণাঞ্চল থেকে ঢাকাগামী হাজার হাজার যাত্রী।

রেল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, প্রায় ১০ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর খুলনার সঙ্গে সারাদেশের রেল যোগাযোগ শুরু করা সম্ভব হয়েছে। ঈশ্বরদী থেকে রিলিফ ট্রেন গিয়ে লাইনচ্যুত ট্যাঙ্কার উদ্ধার করলে মঙ্গলবার বেলা ১১টা ৪০ মিনিটে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়।

ঘটনার বর্ণনা দিয়ে কোটচাঁদপুর উপজেলার সাফদালপুর স্টেশন মাস্টার গোলাম মোস্তফা গণমাধ্যমকে জানান, সোমবার (২৭ অক্টোবর) রাত আড়াইটার দিকে পার্বতীপুর থেকে তেলবাহী ও যশোর নোয়াপাড়া থেকে মালবাহী ট্রেন দুইটি সিগনাল অমান্য করে একই লাইনে ঢুকে পড়ে।

স্টেশন মাস্টারের ভাষ্যমতে, এ সময় দুইটি ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষ হলে ইঞ্জিনসহ পাঁচটি তেলবাহী ট্যাঙ্কার লাইনচ্যুত হয়। এতে খুলনার সঙ্গে সারাদেশের ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ট্যাঙ্কার লাইন থেকে পড়ে যাওয়ার ফলে বিপুল পরিমাণ ডিজেল এলাকায় ছড়িয়ে পড়েছে। তবে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

স্টেশন মাস্টার গোলাম মোস্তফা আরো বলেন, এ দুর্ঘটনায় তেলবাহী ট্রেন এবং লাইনের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। পরে ঈশ্বরদী থেকে ১২০ টনের ক্ষমতাসম্পন্ন উদ্ধারকারী ট্রেন ঘটনাস্থলে পৌঁছে সকাল ৭টা থেকে উদ্ধার কাজ শুরু করে।

সাফদালপুরের এক স্থানীয় বাসিন্দা বলেন, কোটচাঁদপুর উপজেলার সাবদারপুর রেলস্টেশনের প্লাটফর্মের পূর্ব প্রান্তে এই দুর্ঘটনা ঘটে। রাত পৌনে ২টার কাছাকাছি সময়ে দুটি ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষ হলে বিকট শব্দ শুনে আশপাশের লোকজন ঘর থেকে বেরিয়ে পড়েন। আমরা দেখতে পাই তেলবাহী ট্রেনের কন্টেইনার তিনটি (বিটিও) লাইনের ধারে উল্টে পড়ে আছে। কন্টেইনার ফেটে তেল পড়ে আশপাশের গর্ত ভরে যায়, রাস্তায় তেলের যেন স্রোত বয়ে যায়। এসময় বাড়ি থেকে পাতিল এনে তেল ভরে নিয়ে যান অনেক মানুষ।

সাফদালপুর স্টেশনের এক কর্মকর্তা জানান, রাত ১টা ৪২মিনিটে প্রথমে দর্শনা থেকে খুলনাগামী মালবাহী ডিজিএম-২৬ ডাউন ট্রেনটিকে স্টেশনের ১ নম্বর লাইনে দাঁড়ানোর জন্য সিগন্যাল দেয়া হয়। ট্রেনটি প্লাটফর্মে ঢুকে দাঁড়ানোর মুহূর্তে খুলনা থেকে পার্বতীপুরগামী তেলবাহী ট্রেনটি অপরদিক থেকে সিগন্যাল অমান্য করে ১ নম্বর লাইনে ঢুকে পড়লে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

মানবকণ্ঠ/এমকে






ads