সওজের কাজে অনিয়ম নিয়ে ক্ষুব্ধ সংসদীয় কমিটি


poisha bazar

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ১৮ অক্টোবর ২০২০, ২১:৩৫

সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় নিয়ন্ত্রণাধীন প্রতিষ্ঠান সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের ( সওজ) কাজের মান ও প্রতিটি খাতে অনিয়ম নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে সংসদীয় কমিটি। রাস্তা নির্মাণে অতিরিক্ত বালি ভরাটের নামে অতিরিক্ত অর্থ আদায়, নিম্নমানের ইট ব্যবহারসহ এমন কোনো অনিয়ম নেই যা ওখানে হয় না। কোনো কোনো কাজের ক্ষেত্রে সাশ্রয়কৃত টাকাও খরচ করে ফেলা হয় সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের অনুমোদন ছাড়াই।

জাতীয় সংসদ ভবনে রোববার (১৮ অক্টোবর) অনুষ্ঠিত সরকারী হিসাব সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির বৈঠকে মহা হিসাব নীরিক্ষক ও নিয়ন্ত্রকের কার্যালয় উত্থাপিত প্রতিবেদনে এসব তথ্য তুলে ধরা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে কমিটির সদস্যরা ক্ষোভ প্রকাশ করে সওজের কাজ নিয়ে নানা সময়ে আসা অভিযোগ খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা গ্রহণের তাগিদ দেন।

কমিটির সভাপতি মোঃ রুস্তম আলী ফরাজীর সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটির সদস্য মোঃ আব্দুস শহীদ, মোঃ শহীদুজ্জামান সরকার, র,আ,ম, উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী, মুস্তফা লুৎফুল্লাহ, ওয়াসিকা আয়েশা খান এবং মোঃ জাহিদুর রহমান অংশ নেন। সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব মো: নজরুল ইসলাম, সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তর, অডিট অফিস এবং বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাবৃন্দ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

সংসদ সচিবালয় জানায়, বৈঠকে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের(প্রাক্তন যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের) সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের ১৯৯৯-২০০০ অর্থ বছরের হিসাব সম্পর্কিত মহা হিসাব-নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রকের বার্ষিক অডিট রিপোর্ট নিয়ে আলোচনা হয় এবং কমিটি কর্তৃক প্রদত্ত নির্দেশনার আলোকে নিষ্পত্তির সুপারিশ করা হয়।

বৈঠকে কার্যসম্পাদনে ব্যর্থ ঠিকাদারের নিকট থেকে জরিমানা বাবদ ৬ লাখ ৬ হাজার ৭২০ টাকা আদায় না করা, ঠিকাদারের বিল হতে মূল্য সংযোজন কর বাবদ ২ লাখ ১১ হাজার ৫২৮ টাকা কম কর্তণ করা, ঠিকাদারের বিল হতে ১ লাখ ৩৬ হাজার ৭৪৫ টাকার আয়কর কম কর্তণ এবং ঠিকাদারের বিল হতে ১ লাখ ৮ হাজার ৮৭৫ টাকার আয়কর কম কর্তণে সরকারের আর্থিক ক্ষতি মর্মে উত্থাপিত অডিট আপত্তির প্রেক্ষিতে কমিটি প্রমাণাদি জমাদানপূর্বক অডিট অফিসেরে সন্তুষ্টি সাপেক্ষে আপত্তিগুলো নিষ্পত্তির সুপারিশ করা হয়।

বৈঠকে অতিরিক্ত বালি সরবরাহ দেখিয়ে ঠিকাদারকে ৭ লাখ ১৬ হাজার ৩৮৭ টাকা অতিরিক্ত পরিশোধ, ঠিকাদারকে দেয়া অগ্রিম থেকে ভ্যাট কর্তণ না করায় ৩ লাখ ৬২ হাজার ৩২১ টাকা ক্ষতি, মটর সাইকেল ছিনতাই এবং অন্যান্য মালামাল চুরির ফলে সরকারের ১ লাখ ২০ হাজার টাকা ক্ষতি, সাশ্রয়কৃত ৪৮ লাখ ৭৯ হাজার ৪৪৫ টাকা অনিয়মিতভাবে ব্যয়, প্রকৃত ঋদ্ধারকৃত ইটের চেয়ে পরিমান কম দেখানোয় সরকারের ১০ লাখ ৩শত ৯২ টাকা ক্ষতি এবং মূল্য সংযোজন কর কম কর্তণ করায় ৩৫ হাজার ৯ শত ৮২ টাকা আর্থিক ক্ষতি মর্মে উত্থাপিত অডিট আপত্তির প্রেক্ষিতে কমিটি আদায়কৃত টাকার প্রমানাদি জমাদানপূর্বক অডিট অফিসের সন্তুষ্টি সাপেক্ষে নিষ্পত্তির সুপারিশ করা হয়।

বৈঠকে প্রকৃত সম্পাদিত কাজ অপেক্ষা অতিরিক্ত কার্যসম্পাদন দেখিয়ে ঠিকাদারকে ৪৩ লাখ ৬১৩ টাকা অতিরিক্ত পরিশোধ এবং ঠিকাদারের বিল থেকে মূল্য সংযোজন কর কম কর্তণ করায় সরকারের ২৭ হাজার ৩২৪ টাকা ক্ষতি মর্মে উত্থাপিত অডিট আপত্তির প্রেক্ষিতে আপত্তিকৃত টাকা সংশ্লিষ্টদের নিকট থেকে আদায় এবং দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করা হয়।

বৈঠকে ঠিকাদারের বিল থেকে মূল্য সংযোজন কর কম কর্তণ করায় সরকারের ২৪ হাজার ৯০২ টাকা ক্ষতি এবং উত্তোলিত পুরাতন ইটের মূল্য ঠিকাদারের নিকট থেকে আদায় না করায় সরকারের ৮২ হাজার ৪২৮ টাকা আর্থিক ক্ষতি মর্মে উত্থাপিত অডিট আপত্তির প্রেক্ষিতে প্রমাণক জমাদান সাপেক্ষে আপত্তি দু’টি নিষ্পত্তির সুপারিশ করা হয়।

মানবকণ্ঠ/এসকে





ads







Loading...